শহীদ জননী জাহানারা ইমাম ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী লড়াই

প্রকাশকাল |

‘৯৩ সালের ২৮ মার্চ নির্মূল কমিটির সমাবেশে খালেদা জিয়ার সরকার বর্বরোচিত আক্রমণ চালায়। পুলিশের লাঠিতে গুরুতরভাবে আহত হন ক্যান্সার আক্রান্ত শহীদ জননী জাহানারা ইমাম। তার আঘাত এতটাই গুরুতর ছিল যে, তাকে পিজি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করতে হয়েছিল। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে গোটা বাংলাদেশের ভৌগলিক সীমারেখা অতিক্রম করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আন্তর্জাতিক মাত্রা লাভ করে ।

  • Comment 3

মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ শক্তিকে পুনর্জাগরণকারী শহীদ জননী জাহানারা ইমাম

প্রকাশকাল |

মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ শক্তিকে পুনর্জাগরিত করতে শহীদ জননী জাহানার ইমামের ভূমিকা সম্পর্কে বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর বলেছিলেন-
সেক্সপীয়র তার “টুয়েলভথ নাইটে” বলেছিলেন কিছু লোকের জন্ম হয় মহৎ মানুষ হিসেবে।

  • Comment 0

নির্মূল কমিটির রাজাকার মুক্ত সংসদ প্রতিষ্ঠার আন্দোলনের ২৭ বছর

প্রকাশকাল |

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের নিরঙ্কুশ বিজয়ের মধ্যে দিয়ে নির্মূল কমিটির ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অভিযাত্রা’ সম্পূর্ণরূপে সফলতা লাভ করেছে। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ রাজাকার মুক্ত হয়েছে। নির্মূল কমিটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার যে সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে তা এই নির্বাচনের মাধ্যমে অনেকাংশে সফলতা লাভ করেছে।

  • Comment 2

তোমার দেখানো পথে হে শহীদজননী

প্রকাশকাল |

শহীদজননী জাহানারা ইমাম মৃত্যুবরণ করেন ১৯ বছর আগে, ২৬ জুন ১৯৯৪ সালে। দীর্ঘ ১৩ বছর দুরারোগ্য কর্কটব্যাধির বিরুদ্ধে যুদ্ধে হেরে গিয়েছিলেন তিনি ঠিকই, কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তিনি হেরে যাননি। বরং স্বাধীনতা-পরবর্তী বিশাল আন্দোলনগুলোর মধ্যে জননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবির আন্দোলনের বীরোচিত বিজয় নিঃসন্দেহে অন্যতম এবং অতুলনীয়। তাঁর মৃত্যুর মাত্র আড়াই বছর… Read more »

  • Comment 8