যুুদ্ধাহতের ভাষ্য-৯৫: পলাতক খুনিদের সাজা দিতে না পারলে বঙ্গবন্ধুর আত্মাও শান্তি পাইব না

প্রকাশকাল |

একাত্তরে রাজাকাররাই আমারে রক্তাক্ত করেছিল। অথচ স্বাধীন দেশে আক্তার মোল্লার মতো রাজাকার এখনও বেঁচে আছে। তার কোন বিচার হয় নাই। বরং অনেক প্রভাবশালী হয়েছে। বর্তমান এমপি সাহেব এলাকায় আসলে ওই আক্তার মোল্লার বাড়িতে গিয়াই ওঠেন।

  • Comment 2

যুুদ্ধাহতের ভাষ্য-৯৩: সব সিদ্ধান্ত কেন প্রধানমন্ত্রীকে দিতে হয়?

প্রকাশকাল |

“আমরা তো শিক্ষিত না। আমগো কথা কে শুনবো। এই সরকারকে ভালবাসি। কিন্তু সব সিদ্ধান্ত কেন প্রধানমন্ত্রীকে দিতে হয়? দায়দায়িত্ব তো অন্য মন্ত্রীদের বা সচিবদের আছে। তাহলে বাকীরা কি কাজ করেন? উনি এখনও সঠিক সিদ্ধান্ত দিচ্ছেন। কিন্তু এইভাবে চললে ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রীকেও বির্তকিত করার সুযোগ তৈরি হবে।”

  • Comment 3

যুদ্ধাহতের ভাষ্য– ৭৬: “বিরোধিতা করলেও জাসদ বঙ্গবন্ধুর শত্রু ছিল না”

প্রকাশকাল |

একটা আর্টিলারি এসে পড়ে খুব কাছেই। একটা শব্দ হতেই ডান কানটা বন্ধ হয়ে যায়। নাক দিয়ে পিনপিন করে রক্ত পড়তে থাকে…

  • Comment 5

যুদ্ধাহতের ভাষ্য — ৭৪: ‘মুক্তিযোদ্ধাদেরও দেশের কাজে নিয়োজিত করা দরকার ছিল’

প্রকাশকাল |

বঙ্গবন্ধু হত্যার পর বুকে গুলি লাগার কারণ উল্লেখ করে মেডিকেলে আনফিট করা হয় তাঁকে। শুধু তিনিই নন, মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার কারণে পুলিশের চাকুরি হারান আরও তের জন…

  • Comment 3