যে বিষয়টি স্পষ্ট হলো সেটি হচ্ছে, বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম ব্যবস্থার কাঠামোগত জায়গাটি এখনো দুর্বল৷ একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে গণমাধ্যমের যে স্পষ্ট ও স্বতন্ত্র অবস্থান থাকা উচিত ছিল, সম্ভবত সে অবস্থানটি হারিয়েছি আমরা বা আমরা কখনো সে অবস্থানটি পৌঁছুতে পারিনি৷ যেমন, অনেক সংখ্যক গণমাধ্যম থাকার পরেও, গণমাধ্যমের সংবাদে কোন বৈচিত্র্যতা নেই কেননা একধরনের কৌশল প্রয়োগের মধ্য দিয়ে ব্যবস্থাটিকে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে৷ 
  • Comment 4
গণমাধ্যম শিক্ষার আঁতুর ঘর বলা হয় ফিনল্যান্ডকে৷ প্রায় ৬০ বছর ধরে এ দেশটিতে গণমাধ্যম শিক্ষা কর্মসূচি চালু আছে৷ দেশটিতে কিন্ডারগার্টেন থেকে শুরু করে ১২ ক্লাস পর্যন্ত বিভিন্ন স্তরে শিক্ষার্থীদেরকে গণমাধ্যম বিষয়ে সচেতন করা হয়৷  যেমন ২০১২ সালে দেশটিতে গণমাধ্যম শিক্ষার অংশ হিসেবে ‘মিডিয়া ফান’ নামে একটি প্রজেক্ট হাতে নেওয়া হয়, যেখানে শিক্ষার্থীদেরকে খেলাচ্ছলে শিখানো হয় কিভাবে ও কোন ধরনের মিডিয়া কন্টেন্ট তাদের ব্যবহার করা উচিত৷
  • Comment 0
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যখন অর্থনৈতিকভাবে অপেক্ষাকৃত দুর্বল দেশগুলোতে উন্নয়ন পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়, তখন ধারণা করা হয়েছিল, গণমাধ্যম প্রান্তিক পর্যায়ের জনগণকে শিক্ষিত করে তোলার মধ্য দিয়ে উন্নয়ন প্রক্রিয়ায় সক্রিয় ভূমিকা রাখবে, যে ধারণাটি পরবর্তীতে তীব্রভাবে সমালোচিত হয়।
  • Comment 30