- মতামত - https://opinion.bdnews24.com/bangla -

সোহেল তাজের ৮ বৈশিষ্ট্য  ও স্বৈরাচার নির্ণয়

খবরের কাগজে দেখেই নিশ্চিত হলাম সোহেল তাজের দেয়া স্বৈরাচারের ৮ বৈশিষ্ট্য তিনি তার ফেইসবুক পেইজে সত্যি লিখেছেন। সামাজিক মিডিয়ায় আজকাল যা আসে তার বেশিরভাগই এখন আর বিশ্বাস করা যায়না। বিশেষত এবারের আন্দোলন বা উত্তাপ বারবার বলে দিয়েছে সামাজিক মিডিয়ার সবকিছু নেয়া যাবেনা।

সেখানে অসম্পাদিত নিউজ বা ভিউজ এতটাই প্রচণ্ড আর বেপরোয়া মাঝে মাঝে তালগোল পাকিয়ে যায়। যার যা খুশি লেখার জায়গা সোশ্যাল মিডিয়ায়। দেশে দেশে এর সুফল এবং কুফলের দিকটা এখন প্রকাশ্য। বহুবার বলেছি আমরা প্রস্তুত জাতি হবার আগেই খুলে গেছে এর দু্য়ার। একজন মেধাবী মানুষ যা দেখেন বা যা লেখেন লেখাপড়া না জানা মানুষও তাই দেখেন তা শুনতে পান।

এর প্রভাব কী হতে পারে? দুজনের কাছে দু রকম অর্থ নিয়ে আসা এক নিউজ কতটা ভয়ংকর আর কতটা আগ্রহের জন্ম দিতে পারে সেটা নির্ণয় করা তখন কঠিন বৈকি! এতদিন পর যখন সরকারের জন্য তা হুমকি মনে হয়েছে তখনই তাঁরা কঠিন হয়ে উঠতে চাইছেন। এমনও শুনছি প্রয়োজনে ফেইসবুক নাকি বন্ধ করে দেয়া হবে। সেটা কী আসলেই সমাধান? সমাধান যে না, সেটা যাঁরা বন্ধ করতে চান তাঁরাও জানেন। তবু নিজেদের স্বার্থে করার কথা বলছেন।

আমরা যারা সাধারণ মানুষ সামাজিক মিডিয়ার যাবতীয় নোংরামী উস্কানির পরও এর কাছ থেকে সরতে পারিনা। বিশেষত বিদেশের বাঙালির খোরাক এই মাধ্যম। এর মাধ্যমে মুক্ত মতামত  আর নানা ধরনের প্রতিক্রিয়া পাই আমরা। মুশকিল হলো ন্যায় অন্যায় বা শুভ অশুভ বিচারে আমাদের অন্ধত্ব। আমরা এখন এমন এক জাতি যার পরিচয় দুই দলের ভেতর আটকা পড়ে আছে। সে কারণে সোহেল তাজের মত সাহসী মানুষের এই বক্তব্যও আমাদের চোখে দুইভাবে বিবেচিত হবে।

একদল বলবে, আওয়ামী লীগের রাজনীতি থেকে হয়তো ছিটকে পড়বেন তিনি; কেউ বলবে, বোধোদয় হয়েছে। তাঁর পিতার মতো তিনিও আজ সরকারী দলের চোখের দুশমন হবেন; আর একদল বলবে, এর নাম ভ্রান্তি। সোহেল তাজ আবারো সে ভুল করলেন যে ভুলের মাশুল দিয়েছিলেন তাঁর পিতা তাজউদ্দিন আহমেদ।

কিন্তু যেভাবে বা যে কারণেই হোক সোহেল তাজের এই ৮ বৈশিষ্ট্য  সরকারী দলের জন্য প্রীতিকর কিছু না।

কারণ, এইসব বৈশিষ্ট্যের অনেকগুলো  বর্তমান সরকারের আচরণের সাথে মিলে যাচ্ছে। মিলে গেলেও বুঝতে হবে তিনি সত্য বলতে চেয়েছেন। যদি কিছু মিলে যায় তার প্রতিকার করা প্রয়োজন। কে না জানে আমাদের দেশে কোনও দল চাইলেই নির্বিঘ্নে দেশ শাসন করতে পারেনা। আওয়ামী লীগ জনগণ নির্ভর একটি বড় দল। যাদের দেশের ধুলিকণায় অধিকার আছে।

যিনি না হলে এদেশ স্বাধীন হতোনা সে বঙ্গবন্ধু আর তাঁর যোগ্য নেতাদের কারণেই দেশ মুক্ত হয়েছিল। দুই দুইবারের গদি লাভ আর দেশ শাসনে তারা আমাদের দেশকে অনেক দিয়েছে। এখন বাংলাদেশ একটি অগ্রসর দেশ। আমাদের দেশের গায়ে লেগেছে নতুন হাওয়া। কিন্তু দেশ আর অর্থনীতিতে হাওয়া লাগলেও সমাজ আর রাষ্ট্র ভালো নেই। এই ভালো নেই থেকে মুক্ত হতে হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোহেল তাজের বক্তব্যগুলো মিলিয়ে নিয়ে প্রতিকার প্রয়োজন।

কারণ আমরা দেখেছি এদেশ কোনওদিন কোনও স্বৈরাচারকে বরদাশত করেনি। কোনও একনায়ক বন্দুক বা ক্যাডারের জোরে বেশিদিন টিকতে পারেনি। শুধু তাই নয়, দেশে তারা ঘৃণিত এবং নিন্দিত হয়েছে। আমরা আওয়ামী বান্ধবদের বলবো এ বিবেচনা মাথায় রাখা দরকার। সোহেল তাজের পিতার কথা না শোনার কারণে এদেশের ইতিহাস রক্তাক্ত হয়েছিল।

তিনি নিজেও জান দিয়ে প্রমাণ করেছিলেন কতটা অনুগত আর দেশপ্রেম ছিলো তাঁর। সোহেল তাজের সাথে কী হয়েছিল, কী হবে সে আলোচনায় না গিয়েই বলা যায় তিনি সাহসী। তাঁর এই সাহস কীভাবে মূল্যায়ন করা হয় বা কী এর পরিণতি তা দেখার আশায় থাকলাম।

৩৮ Comments (Open | Close)

৩৮ Comments To "সোহেল তাজের ৮ বৈশিষ্ট্য  ও স্বৈরাচার নির্ণয়"

#১ Comment By alam On আগস্ট ১০, ২০১৮ @ ৮:২৫ অপরাহ্ণ

“কারণ, এইসব বৈশিষ্ট্যের অনেকগুলো বর্তমান সরকারের আচরণের সাথে মিলে যাচ্ছে।”———————— অনেকগুলো নাকি সবগুলো??????

#২ Comment By সরকার জাবেদ ইকবাল On আগস্ট ১০, ২০১৮ @ ১০:১০ অপরাহ্ণ

যাক, আপনারও তাহলে বোধোদয় হয়েছে!

#৩ Comment By সৈয়দ আলী On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ১:৩১ পূর্বাহ্ণ

সরকার জাবেদ ইকবাল, এদের বোধোদয় হয় না। হাওয়া-মোরগ ঘুরে গেছে তাই সুরের রাগিনী বদলাচ্ছে।

#৪ Comment By m.k.khokun On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ১:১০ পূর্বাহ্ণ

Sohel Taj 1jon sottikarer Rajnitibid………………………….

#৫ Comment By jisu71 On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ৩:০৯ অপরাহ্ণ

correct. he is like his father, man of principle.

#৬ Comment By adnan On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ২:৩১ পূর্বাহ্ণ

দেশের জন্য যা ভালো তিনি তাই বলেছেন , দেশপ্রেমিক মহান নেতার বীর ছেলে, বর্তমান সময়ের মোহন লাল, স্যালুউট স্যর,স্যালুউট লিডার।

#৭ Comment By Ram Chandra Das On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৭:২২ পূর্বাহ্ণ

very good reaction

#৮ Comment By আসিফ On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৮:১৮ পূর্বাহ্ণ

এই দেশের মানুষ যেমনি সেনা বা স্বৈরশাসক গ্রহণ করেনি তেমনি বাকশালও গ্রহণ করে নি।

#৯ Comment By Bongo Raj On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ

বাকশাল ভাল কি খারাপ তা বোঝার আগেই তাকে গলাটিপে মারা হয়েছিল? দেশ গড়া যখন ফরজ তখন আমরা অধিকার, দাবী, নিজের ভাগ বাটয়ারা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লাম। এইসবের কারণে বহুদলীয় গণতন্ত্র ফেইল হলো তখনি বাকশাল করে দেশ গড়ার কথা ভেবেছিলেন জাতির জনক। বাকশালক প্রতিষ্ঠিত হবার আগেই মেরা ফেলা হল, তাকে দোষ দেওয়াটা পাণ্ডিত্য নয়, ইতরামি। তাই বলে বলছি না, দেশ যখন নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারে তখনও বাকশাল দরকার। যেমন এখন বাকশাল হবে বিষাক্ত। দেশ স্বাধীন হবার প্রথম ৭-১০ বছর বাকশাল এর দরকার ছিল এবং ছিল ফরজ। যিনি বাকশাল করেছিলেন তিনি ছিলেন সবচাইতে ভাল আর সৎ বাঙ্গালী।

#১০ Comment By কল্যান ডি কষ্টা On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ১০:৪২ অপরাহ্ণ

জনাব বংগরাজ
আপনার সাথে ১০০% একমত। বাকশাল দরকার । আল্লাহর রহমতে ঐ পথেই যাচ্ছি । এক সময় দেখবেন সারা পৃথিবী বাকশাল নীতি গ্রহণ করছে । আমেরিকা, ইউরোপের সব দেশ বাকশাল নীতি গ্রহণ করতে বাধ্য হবে । সেদিন আর বেশী দুরে নাই ।

#১১ Comment By Bongo Raj On আগস্ট ১৪, ২০১৮ @ ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ

জনাব কল্যান ডি কষ্টা, আমার কমেন্টা ভাল ভাবে পড়েই জবাবটা লিখেছেন তো? নাকি বুঝাতে না পারার অভাব? দেশ স্বাধীন হবার পরপর বাকশাল ছিল ফরজ, এখন হলো বিষাক্ত এ কথাটা পরিষ্কার করে লিখেছিলাম, বোঝার ক্ষমতার অভাবে হয়তো বুঝেননি।
একটা উপমা দিলে আশা করি বুঝতে সুবিধা হবে-
শরীরের ঘাঁ শুকানো বা কেটে গেলে এন্টিবায়টিক সেবন যেমন ফরজ, ঘাঁ না থাকা বা কেটে না যাওয়া শরীরে এটা শুধু একটা বিষ ।

#১২ Comment By কল্যান ডি কষ্টা On আগস্ট ১৫, ২০১৮ @ ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

বংগরাজ
এখন আরো বেশী ফরজ । পৃথিবীর সব দেশ এখন এটার প্রসংশা করছে ।

#১৩ Comment By সাইফুল ইসলাম। On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৯:২৯ পূর্বাহ্ণ

দূর থেকে সমালোচনা করা সহজ। সোহেল তাজ যা বলেছেন তা সত্য।।কিন্তু এটাও সত্য যে, উনি নিজেকে গুটিয়ে নিয়ে এসব নোংরা রাজনীতির বিরুদ্ধে নিজের দায়িত্ব পালন করেন নি বলে আমি মনে করি। এই মুহূর্তে আওয়ামীলীগই অলটারনেটিভ চয়েজ আমাদের। অন্তত সাম্পদ্রায়িকাতার বিষবাষ্প, মৌলবাদীদের ছোবল থেকে আমরা একটু হলেও স্বস্তিতে আছি। উনার উচিৎ আওয়ামীলীগের প্লাটফর্মে এসে এসব কথা বলা। তাতে করে দল হিসাবে আওয়ামীলীগ সমৃদ্ধ হবে। এবং উনাকে সমর্থন করার মত লোক আওয়ামী লীগে অভাব হবে না। কিন্তু ভাসমান সুশীলগিরি যেন না ফলাতে আসে। কারণ বাংলাদেশের সুশীলরা সঠিক পথে না গিয়ে বিরাজনৈতিকরণের পক্ষে কাজ করে চলছে।

#১৪ Comment By সৈয়দ আলী On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৫:৪৪ অপরাহ্ণ

সাইফুল ইসলাম, আপনি কি নিশ্চিত যে আপনার বক্তব্যানুযায়ী ‘এবং উনাকে সমর্থন করার মত লোক আওয়ামী লীগে অভাব হবে না’? আওয়ামী লীগে বর্তমানে যে ধারা চলছে সে ধারার বিপক্ষে দাঁড়িয়ে নিশ্চয়ই রাজনৈতিক হারিকিরি করার পরামর্শ আপনি দিচ্ছেন না যেখানে সোহেল তাজের চাইতেও অনেক পোড় খাওয়া কুশলী রাজনীতিবিদেরা RATS সেজেছেন।
আপনি দাবী করছেন, ‘অন্তত সাম্পদ্রায়িকাতার বিষবাষ্প, মৌলবাদীদের ছোবল থেকে আমরা একটু হলেও স্বস্তিতে আছি।’ সত্যি? আপনি কাকে চোখ ঠারছেন, স্যার? মদিনা সনদের সরকার, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম নিয়ে, তেঁতুল হুজুরকে রাষ্ট্রীয় ধর্মগুরু মেনে অসাম্প্রদায়িক আওয়ামী লীগ? আওয়ামী নেতাদের সংখ্যালঘুর সম্পত্তি দখল করে অসাম্প্রদায়িকতা? ইয়ার্কি মারেন না কি মিঞা?

#১৫ Comment By jisu71 On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৬:২৮ অপরাহ্ণ

thanks for appropriate comment. “koila dhuilay moila jaina.” ……………

#১৬ Comment By কবির On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ২:৫২ পূর্বাহ্ণ

খুব ভাল বলেছেন

#১৭ Comment By Md. Mahbubul Haque On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ১২:১৪ অপরাহ্ণ

সমস্ত বৈশিষ্ঠ্য বর্তমান। কেয়ামত কি আসন্ন?

#১৮ Comment By সেলিম On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ২:৩০ অপরাহ্ণ

আপনার লেখার একজন নিয়মিত পাঠক আমি। বেশ ভালো লাগে আপনার তথ্যবহুল ও যুক্তনির্ভর লেখাগুলো পড়তে।
অনেকের মতো আপনার লেখায় তেলের আধিক্য থাকে না। সবাই সরকারের কাছে ঘেষার (সরোয়ার ভাইসহ) জন্য তেলের ড্রাম নিয়ে বসে থাকেন। আপনি সেখানে সত্যটা তুলে ধরার চেষ্টা করেন।

#১৯ Comment By সৈয়দ আলী On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৫:৩৬ অপরাহ্ণ

সোহেল তাজ যে বৈশিষ্ট্য সমুহের কথা বলেছেন, প্রকৃতপক্ষে এগুলো ফ্যাসিবাদের ১৪ বৈশিষ্ঠ্যের ৮ টি। যাহোক, শ্রী অজয় দাশগুপ্তকে অনুরোধ করবো পরিষ্কার করে আমাদের জানাতে, আওয়ামী লীগ সরকার কি স্বৈরাচারী সরকার?

#২০ Comment By হাসিব হাসান On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ১০:২৪ অপরাহ্ণ

হ্যাঁ, আওয়ামী লীগ স্বৈরাচর, এই ছোট্ট সত্যটা বোঝার জন্য কোন পি,এইচ,ডি লাগে না।

#২১ Comment By Hafij Al Maruf On আগস্ট ১৯, ২০১৮ @ ৪:৩৯ অপরাহ্ণ

হ্যাঁ, আওয়ামী লীগ স্বৈরাচর, এই ছোট্ট সত্যটা বোঝার জন্য কোন পি,এইচ,ডি লাগে না।

#২২ Comment By Hasib Hasan On আগস্ট ১৯, ২০১৮ @ ৮:১১ অপরাহ্ণ

Mr. Hafiz, why have you copied my comments and pasted it? That’s not very professional.

#২৩ Comment By Sharif On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৬:১৭ অপরাহ্ণ

Graps are sour.

#২৪ Comment By মো: মোজাহিদুর রহমান বসুনিয়া On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৭:২৮ অপরাহ্ণ

আমিও আর এই দলে থাকবো না। এরা স্বার্থের জন্য আমার নামে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছেড়া ও টিভি চুরির মামলা দিয়েছে। অথচ আমি ছিলাম ১টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ২ বার ভোটে নির্বাচিত সভাপতি। টাকার লোভে আমার দলীয় মনোনয়ন অন্যের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। সম্পদ নিতে দলে আসিনি কিন্তু অপমান নিয়ে দল ত্যাগ করছি।

#২৫ Comment By kamal On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ৬:২২ অপরাহ্ণ

just hang on my friend and keep low profile! your time will come!

#২৬ Comment By Md. Iqbal Hossen On আগস্ট ১১, ২০১৮ @ ৯:১৯ অপরাহ্ণ

“তানজিম আহমদ সোহেল তাজ”-
একটি নাম, একটি আদর্শ, একটি অনুপ্রেরণা।

#২৭ Comment By Bongo Raj On আগস্ট ১৫, ২০১৮ @ ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ

Mr Sohel Taj is very honest and sincere man no doubt, unfortunately, he is equally a good Chicken too.
Nowhere in the world he can be fitted as a politician, nor as a leader, rather he can be a good excuser.]
My apology goes for, to utter such words to the son of my most beloved leader Jonab Tajuddin.

#২৮ Comment By Imtiaz On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ১:৫৮ পূর্বাহ্ণ

কোন বিবেকবান এবং সুশিক্ষিত মানুষ এটাতে দ্বিমত পোষণ করবেন না যে- জনাব সোহেল তাজ এর দেয়া স্বৈরাচারের ৮টি বৈশিষ্ট্যই বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারে বিদ্যমান। দেশের সাধারণ জনগণের বা কোন বিশিষ্ট ব্যক্তি/ব্যক্তিবর্গের কোন মন্তব্যের তীর যদি সরকারের বিরুদ্ধে যায় তখন সেই সাধারণ জনগণ বা সেই বিশিষ্ট ব্যক্তি/ব্যক্তিবর্গ সরকারের বিরাগভাজন হয়ে যান।

দেশের প্রধান দুই দলনেত্রীর একজন মনে করেন এই দেশটা তাঁর বাবার, অন্যজন মনে করেন দেশটা তাঁর স্বামীর। দেশটা আসলে কার? বিগত দু’দুটো ছাত্র আন্দোলনে যে জামাত এবং বিএনপি এর অনুপ্রবেশ হয়েছে এবং সেই ছাত্র আন্দোলনগুলোকে ব্যাহত করেছে, করেছে প্রশ্নবিদ্ধ তাতে আমরা সবাই একমত। শুধু জামাত বিএনপি নয়, আসলে সরকারদলীয় ক্যাডাররাও অনেকখানি কলুষিত করেছে।

কথাটা সত্যি যে আওয়ামী লীগই এখন আমাদের বিকল্প পছন্দ কিন্তু কেনো আমাদেরকে বিকল্প পছন্দ নিয়ে সামনে এগুতে হবে? তারা কি পারে না নিজেদের পরিবর্তন করে সামনে থেকে আমাদের নের্তৃত্ব দিয়ে দেশকে আরো এগিয়ে নিতে? ক্ষমতাশীন দলের কোন সমালোচনা করলে তারা বিএনপি এবং জামাতের সব কুকীর্তির উদাহরণ টানেন এবং একটা তুলনামূলক দৃশ্য অংকন করেন যেখানে আপনাদের তুলনায় তাদেরকে কিছুটা উন্নতমানের অত্যাচারী হিসেবে প্রমাণ করার অপপ্রয়াস করেন। আপনারা যদি উদাহরণ টানতেই চান তাহলে আপনাদের চেয়েও ভালো কিছুর সাথে নিজেদের তুলনা করে তার সাথে একটা তুলনামূলক দৃশ্য অংকন করুন। কোন সমালোচনাকারী বা কোন সংগঠন আন্দোলনে নামলে তাদের এখন একটাই বুলি- ” সেই সমালোচনাকারী এবং আন্দোলনকারী বিএনপি/জামাত শিবিরপন্থী এবং এটা বিএনপি/জামাত শিবিরের ষড়যন্ত্র। ঠিক যেন আর্জেন্টিনা আর ব্রাজিলের সমর্থকদের তর্ক বিতর্কের মত। ব্রাজিলের যত কৃতিত্বের কথাই বলা হোক না কেনো, আর্জেন্টিনা সমর্থকদের একটাই কথা- জার্মানির কাছে ব্রাজিল ৭ গোলে হেরেছে। (আমি ব্রাজিল/আর্জেন্টিনা কোনটারই সমর্থক নই)
নিঃসন্দেহে শেখ হাসিনা একজন সৎ এবং বিচক্ষণ ব্যক্তিত্ব। তাঁকে বিশেষিত করতে গেলে অনেক বিশেষণ ব্যবহার করতে হবে কিন্তু সবকিছুর পর তিনি একজন মানুষ। তিনি হয়তো ভুলে গেছেন পৃথিবীতে কোনকিছুই চিরস্থায়ী নয়। যার উত্থান আছে তার পতনও আছে। যার সৃষ্টি আছে তার বিনাশ আছে। নিজেকে খোদা দাবি করা ফেরাউনও ধ্বংস হয়েছে। এডলফ হিটলারকেতো খুঁজেই পাওয়া যায়নি। সাদ্দাম হুসেন, মুয়ামার গাদ্দাফি তাদের পরিনামও আমরা কম বেশি জানি।

#২৯ Comment By Md. Mahbubul Haque On সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ @ ১১:৫৪ অপরাহ্ণ

সহমত।

#৩০ Comment By Fazlul Haq On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ৭:২৫ পূর্বাহ্ণ

স্বৈরাচারী বৈশিষ্ট্য তো জানা গেল; কিন্তু তা দূর করার পদ্ধতি কি এবং কে বা কারা দূর করবে। এরশাদ সরকার না খালেদা সরকার? তারা তো আর ও বড় স্বৈরাচার। আমাদের অভিজ্ঞতা তো তাই বলে। তা হলে একমাত্র উপায় আওয়ামী লীগ সরকারের সংস্কার করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা। কিন্তু সেজন্য আমরা যারা জনগণের গণতান্ত্রিক সরকার চাই তাদেরকে রাজনীতিতে সক্রিয় অংশ নিতে হবে। নিরাপদ দূরত্ব থেকে শুধু জ্ঞানগর্ভ বক্তব্য দিলে কাজ হবে না।

#৩১ Comment By Confused Citizen On আগস্ট ১২, ২০১৮ @ ২:১৮ অপরাহ্ণ

যারা মুখে স্বাধীনতার কথা বলে কিন্তু নিজেরাই স্বাধীনতা হরণ করে তারা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি হতে পারে না, গনতন্ত্রহীনতার সমর্থক যদি ফ্যাসিবাদ হয়, তাহলে আওয়ামী লীগ একটা অগনতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদি দল। আর যারা তাদের সমর্থন করে তারাও ফ্যাসিস্ট। স্বাধীনতার পক্ষের দল দাবিকারী এই দলের স্বাধীনতা পরবর্তী স্বাধীনতা রক্ষায় কি অবদান আছে? আজ যারা মঞ্চে স্বাধীনতার পক্ষে লম্বা বক্তব্য দেন, তাদের নের্তৃত্বে কতজন মুক্তিযোদ্ধা আছে? কি হিসাবে আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের একক দল হয়??

#৩২ Comment By Abdul Gaffur On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

They can claim what ever they want but how could you support it.

#৩৩ Comment By Bongo Raj On আগস্ট ১৪, ২০১৮ @ ৮:২৫ অপরাহ্ণ

Than where those freedom fighters gone?
Just guesses and whispers if you don’t have enough courage.

#৩৪ Comment By Bongo Raj On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ১১:১২ পূর্বাহ্ণ

If anyone or Sohel Taj himself can give , “A list of members to form a cabinet to rule the Bangladesh with a perfect solution to the points that is being uttered in Sohel Taj FB post”?

I will be sincerely oblized to him for ever.
However , after 5 years if the problm still remains, what responsibility will be taken — Harakhiri?

#৩৫ Comment By kamal On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ৬:১৩ অপরাহ্ণ

Mr Sohel Taz is an honest person no doubt! He is a brave person no doubt! He a patriotic person no doubt! But he isn’t a refined politician! Politics is a science and demands extraordinary dimensions in the quality and behaviour! Mr Sohel Taz lacks these qualities! May be he is still young! I want to see this man to become active in Bangladesh politics! He can’t beat around the bush!

#৩৬ Comment By Islam On আগস্ট ১৪, ২০১৮ @ ১১:৩০ অপরাহ্ণ

“He is not a refined politician”, True! He failed, unlike you, to redefine himself in terms of bootlicking. You said the right thing though. Politics is a science; however, an art of bootlicking to you people.

#৩৭ Comment By kamal On আগস্ট ১৩, ২০১৮ @ ৬:১৯ অপরাহ্ণ

Mr Taz must realise the bigger picture! I can argue against his 8 points. He must understand sometimes “extraordinary circumstances demand extraordinary measures”! His simplistic views not practical!

#৩৮ Comment By Arif On আগস্ট ১৪, ২০১৮ @ ৭:০৬ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ আপনাকে