Feature Img

anu_mohammad-23বাংলাদেশ ব্যাংক গ্রামীণ ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর থেকে মুহম্মদ ইউনূসকে অপসারণের যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তা নিয়ে অনেক প্রশ্ন এবং উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মুহম্মদ ইউনূস ও বোর্ডের ৯ পরিচালকের দায়ের করা দুটো রীট আবেদন গত ৮ মার্চ হাইকোর্ট খারিজ করে দেওয়ায় সরকারের সিদ্ধান্ত এখনও বহাল আছে। অপসারণের কারণ হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক মুহম্মদ ইউনূসের ‘বয়স অতিক্রান্ত’ বলে যুক্তি দিয়েছেন, মার্কিন-ইউরোপীয় দূত ও সংস্থার প্রতিনিধিদের কাছে জবাবদিহিতে অর্থমন্ত্রীও একই ব্যাখ্যা দিয়েছেন। যেহেতু গ্রামীণ ব্যাংক বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান, যেহেতু বিশেষায়িত ব্যাংক হলেও এই প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্তৃত্বের মধ্যেই কাজ করতে আইনত বাধ্য (Grameen Bank Ordinance, No. XLVI of 1983), এবং যেহেতু এই ব্যাংকে বাংলাদেশ সরকারেরও অংশীদারিত্ব আছে, সেহেতু বয়স বা অন্য যেকোন বিষয়ে বিদ্যমান আইন বা বিধির কোন ব্যত্যয় ঘটলে আইনানুগ যে কোন ব্যবস্থা গ্রহণের আইনগত কর্তৃত্ব বাংলাদেশ ব্যাংকের থাকবে এটাই যুক্তিসঙ্গত।

কিন্তু সরকারের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তের পেছনে এটাই কি আসল কারণ হতে পারে? কাগজের নীতি বা আইনরক্ষার জন্য এই সরকার কি এতটাই সজাগ এবং সক্রিয়? তার অন্ধ অনুসারীও কি তা দাবি করতে পারবেন? খুনের মামলার আসামী ছেড়ে দেয়া, দুর্নীতির প্রাতিষ্ঠানিকীকরণে পথপ্রদর্শক এরশাদকে একের পর এক দুর্নীতির মামলা থেকে অব্যাহতিদান, পাড়ায় প্রতিষ্ঠানে সরকারি দলের লোকজনের সন্ত্রাস, হামলা, টেন্ডারবাজি, দখল ইত্যাদির পৃষ্ঠপোষকতা এগুলো এই সরকারের সাম্প্রতিক সক্রিয়তার কিছু নমুনা। প্রথমে সিদ্ধান্ত আর পরে তার সঙ্গে আইনকে খাপ খাওয়ানো এটাই হল বাংলাদেশের ক্ষমতাবানদের কাজের পদ্ধতি। আগের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রেখে বর্তমান সরকারও তাই করছে। সুতরাং নিছক আইন বা নীতি রক্ষার জন্য যে সরকার ইউনূস বিষয়ে এই সিদ্ধান্ত নেননি সেটি নিশ্চিতভাবেই বলা যায়। তাহলে কেন?

ইউনূসের পেছনে যে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদী নানাশক্তির সমর্থন ও পৃষ্ঠপোষকতা আছে এটা তো এই সরকারের ভালভাবেই জানা। বস্তুত উভয়পক্ষের প্রভু অভিন্ন, উন্নয়ন নীতি ও দর্শনও অভিন্ন। এই দর্শন অনুযায়ী দারিদ্র বিমোচনের জন্য ক্ষুদ্রঋণ মডেল, উন্নয়নের জন্য বহুজাতিক পুঁজি, জনগণের অধিকার শুধু ক্রয় ও বিক্রয়। উইকিলিকসের ফাঁস করা তথ্য অনুযায়ী, জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক সব অপতৎপরতার পেছনে আছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস মরিয়ার্টি, সেই একই রাষ্ট্রদূত ইউনূসকে নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্তে এখন মর্মাহত, তার সরকার বিচলিত। তাহলে কী কারণে সরকার এধরনের সিদ্ধান্ত নেবার ঝুঁকি গ্রহণ করলো? সরকার ইউনূসকে নিয়ে তাঁর সিদ্ধান্ত বহাল রাখবার জন্য অন্যান্য ক্ষেত্রে মার্কিনীদের, বা বৃহত্তর অর্থে সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোকে আরও ছাড় দেবার পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে কি না এটাও এখন এক বড় উদ্বেগের বিষয়।

গত কয়েক মাসে গ্রামীণ ব্যাংক ও ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে বাংলাদেশের প্রচার মাধ্যমে যতটুকু কথাবার্তা হয়েছে এতটুকু আগে কখনোই হয়নি। বছরের পর বছর একধরনের নীরবতা ও ভক্তি দিয়ে মূলধারার প্রচার মাধ্যম ইউনূস, আবেদ, ক্ষুদ্রঋণ ও এনজিও মডেলকে রক্ষা করেছে চাপা অনেক ক্ষোভ ও অভিযোগ থেকে। নরওয়ের টিভিতে ডেনমার্কের একজন তথ্যচিত্র নির্মাতার বানানো তথ্যচিত্র প্রচারের পর পরিস্থিতির দ্রুত পরিবর্তন হয়েছে। ইউনূসকে সমালোচনা করা যেখানে প্রায় ধর্মদ্রোহিতার সমান অপরাধ বলে বিবেচিত হচ্ছিল সেখানে ইউনূস অর্থ আত্মসাৎ করেছেন কিনা সেসব প্রশ্নও আসতে থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই তখন তাঁর ‘সুশীল সমাজ’ সমর্থকদের স্থম্ভিত করে দিয়ে ইউনূসকে ‘রক্তচোষা’ হিসেবে অভিহিত করেন। তাঁর অভিযোগ কিংবা গ্রামীণ ব্যাংক ও ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে বহুবছর ধরেই উত্থাপিত প্রশ্নগুলো নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোন বিস্তৃত তদন্ত বা অনুসন্ধান এখনও হয়নি। বাংলাদেশ ব্যাংকের অডিট রিপোর্টগুলো এতদিন গোপন রাখা হয়েছে। এখনও তা দুষ্প্রাপ্যই আছে।

ডক্টর ইউনূস বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্তে মার্কিনী ও সহযোগীদের পাশাপাশি দেশীয় অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিও, যারা ‘সুশীল সমাজ’ হিসেবে পরিচিত, মর্মাহত হয়েছেন, ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করেছেন। তাঁদের বক্তব্যের মূল কথা হল, ইউনূস সাহেবের ক্ষুদ্রঋণের মডেল ‘দারিদ্র বিমোচন’ ও ‘নারীর ক্ষমতায়ন’-এর একটি সফল মডেল। এই মডেলের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ নারী নতুন জীবনের সন্ধান পেয়েছেন, এটা তাঁদের বদ্ধমূল বিশ্বাস। এই বিশ্বাসের প্রমাণ হিসাবে তাঁরা যে তথ্যের উপর ভর করেন তা হল, তিনি বহু আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হযেছেন এবং পেয়েছেন নোবেল শান্তি পুরষ্কার। তাঁদের মতে, বাংলাদেশকে ইউনূস সাহেব এসব পুরস্কারের মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে অনেক উঁচুতে নিয়ে গেছেন। তাই তাঁর বিরুদ্ধে এরকম আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ বাংলাদেশের জন্য সবদিক থেকেই ক্ষতির কারণ হবে।

এটা অবশ্যই ঠিক যে, গ্রামীণ ব্যাংককে একটি বিশাল প্রতিষ্ঠানে পরিণত করবার ক্ষেত্রে ইউনূস সাহেবকে অবশ্যই কৃতিত্ব দিতে হবে। তিনি গরীবদেরকে ব্যাংকের আওতায় এনে বিশ্বব্যাপী ব্যাংক পুঁজির সামনে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেছেন। এটি ব্যবসায়িকভাবে খুবই সফল। শুধু এটাই নয়, গ্রামীণ ব্র্যান্ডে অনেক প্রতিষ্ঠানই এখন খুবই ব্যবসা সফল। গ্রামীণ ফোন এসব সফল ব্যবসার প্রধান দৃষ্টান্ত। এগুলো সবই হয়েছে গরীব নারীদেরই নামে, এই কারণে অনেক বাড়তি সুবিধাও তারা রাষ্ট্র থেকে নিয়েছে। ক্ষুদ্রঋণসহ নানা বাণিজ্যিক তৎপরতায় লিপ্ত অন্যান্য এনজিওর ক্ষেত্রেও এই একই কথা প্রযোজ্য।

কিন্তু এগুলোর মাধ্যমে ‘দারিদ্র বিমোচন’ ও ‘নারীর ক্ষমতায়ন’ সংক্রান্ত প্রথম বিশ্বাস বা সিদ্ধান্তটি কি ঠিক? প্রথম সিদ্ধান্তটি প্রমাণের জন্য কি দ্বিতীয় যুক্তিটি যথার্থ? বাংলাদেশে যারা বাস করেন, কিন্তু তথ্য প্রমাণ খুঁজে দেখার যাদের ধৈর্য নাই, তাঁরা কি সাদাচোখে দেশের দারিদ্র পরিস্থিতি দেখেন না? প্রায় তিন দশক এনজিও মডেল আর ক্ষুদ্রঋণ দিয়ে দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচির হট্টগোলের পর যে দেশে এখনও শতকরা ৫০ জন বা প্রায় ৮ কোটি মানুষ দারিদ্রসীমার নীচে বসবাস করেন, সেটা এই শিক্ষিত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ তাঁদের মনোযোগ থেকে বাইরে রাখেন কীভাবে? যদি খাদ্য ও কাজের নিরাপত্তা, চিকিৎসা ইত্যাদি বিবেচনা করা হয় তাহলে এই সংখ্যা ১২ কোটি দাঁড়াবে। এগুলো সরকারি এবং জাতিসংঘেরই হিসাব, যারা বরাবর ক্ষুদ্রঋণ ও এনজিও মডেলকেই দারিদ্র বিমোচনের পথ বলে স্তুতি করে থাকেন। আর বাংলাদেশের যেসব অঞ্চলে দারিদ্র পরিস্থিতি ক্ষেত্রে কিংবা নারীর সচলতা বা অবস্থানের মধ্যে কিছুটা উন্নতি দেখা যায় তা কি ক্ষুদ্রঋণের জন্যই? সেখানে গ্রামীণ ব্যাংক বা ক্ষুদ্রঋণ ছাড়া আর কোন উপাদান ক্রিয়াশীল নয়? যেমন প্রবাসী আয়? গার্মেন্টস কিংবা অন্য শিল্পকারখানা? কৃষি মৎস্য বা হাঁসমুরগী খামারে নতুন কাজের সুযোগ? যোগাযোগ ব্যবস্থা? গ্রাম শহরের নিকটবর্তী হওয়া? বিদ্যুৎ? পরিসেবা খাতের সম্প্রসারণ?

গ্রামীণ ব্যাংকের কিছু বৈশিষ্ট্য অন্যান্য বৃহৎ এনজিওগুলোর জন্যও প্রযোজ্য। তার মধ্যে এক-ব্যক্তি-কেন্দ্রিকতা অন্যতম। কোন প্রতিষ্ঠান যদি এক-ব্যক্তি-কেন্দ্রিক হয়, যদি কোন প্রতিষ্ঠানের কর্মতৎপরতার যথাযথ জবাবদিহিতা না থাকে, যদি স্বচ্ছতার অভাব থাকে তাহলে সেখানে বিভিন্ন পর্যায়ে অনিয়ম, দুর্নীতি তৈরি হবে; এগুলো নিয়ে প্রশ্ন ও অভিযোগও তৈরি হবে। খ্যাতি ও প্রচারণা দিয়ে সবকিছুকে আড়াল করে রাখা কর্পোরেট জগতের একটা বৈশিষ্ট। কিন্তু তারও সীমা থাকে। গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে উত্থাপিত প্রশ্ন আসলে ক্ষুদ্রঋণ মডেল নিয়েই। ভুল গৌরব দিয়ে কোন দেশ তার নিজের মৌলিক সমস্যা দীর্ঘদিন আড়াল করে রাখতে পারে না। লক্ষ লক্ষ মানুষের দারিদ্রের জাল, ঋনগ্রস্ততার বোঝা, আর নিপীড়নের নানা ঘটনা কি কেবল পুরস্কারের স্তুতি দিয়ে ঢেকে রাখা যাবে? দারিদ্র বিমোচনের গল্প সত্য হলে ৭০/৮০ লাখ গরীব মানুষই এখন ঢাকা ঘেরাও করতো, কোন সাড়াশব্দ তাঁদের দিক থেকে নেই। সাড়াশব্দ সব দূতাবাস আর বহুজাতিক পুঁজির নানা ঘাঁটিতে, কিংবা ‘সুশীল সমাজে’।

দাবী করা হয়, গ্রামীণ ব্যাংকের মালিক হলেন তার সকল গরীব, বিশেষত নারী ঋণগ্রহীতা। এই প্রচারণার উপর বিশ্বাস করে অনেক মুগ্ধতার বিস্তার ঘটেছে দেশে বিদেশে। কিন্তু এই প্রশ্নের উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি যে, এই কথিত মালিকেরা কীভাবে তাঁদের মালিকানা প্রয়োগ করেন। তাঁদের কাছ থেকে জমা নেয়া আগাম টাকার হিসাব কই? গ্রামীণ ব্যাংক ও সম্পর্কিত অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের লভ্যাংশ তাঁদের হাতে যায় না কেন? এসব প্রতিষ্ঠানের সব তৎপরতা সম্পর্কে সকল তথ্য তাঁদের কাছে যায় না কেন? বলা হয় পরিচালনা পর্ষদের ১২ জন সদস্যের মধ্যে ৯ জনই গরীব নারী ক্ষুদ্র্ঋণ গ্রহীতাদের প্রতিনিধি। কীভাবে তাঁরা এই প্রতিনিধি ঠিক করেন? কোথায় হয় এই নির্বাচন? আসলে কারা এই প্রতিনিধি ঠিক করেন? আসলে কে ঠিক করেন এই প্রতিনিধিদের? আর তাঁরা গ্রামীণ ব্যাংকের সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় কী ভূমিকা পালন করেন? গ্রামীণ ব্যাংকের পুঞ্জিভূত পুঁজির গন্তব্য কে নির্ধারণ করেন? কেন গ্রামীণ ব্যাংক, ব্র্যাক, আশার মতো প্রতিষ্ঠানে এক ব্যক্তির কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠানে ব্যক্তি মালিকানার নতুন ধরন তৈরি করে?

মুহাম্মদ ইউনূস দীর্ঘদিন বলেছেন, ক্ষুদ্রঋণ পাওয়া মানুষের মৌলিক অধিকার। কিন্তু আর কোন মৌলিক অধিকার সম্পর্কে তাঁর কোন আগ্রহ দেখা যায় নাই। গত তিন দশকে জনগণের আর কোন অধিকার নিয়ে তাঁর কোন কথা কোথাও শুনিনি। ক্ষুদ্রঋণ শুরুর পর ক্ষুদ্রঋণ মানবাধিকার, মোবাইল ব্যবসা শুরুর পর মোবাইল দিয়ে ক্ষমতায়ন, আইটি ব্যবসা শুরুর পর ইন্টারনেটের মাহাত্ম্য শুনেছি তাঁর মুখে, দইয়ের ব্যবসা শুরুর পর দইয়ের দারিদ্র বিমোচন ক্ষমতা নিয়ে শুনছি। তাঁর ক্ষুদ্রঋণ দিয়ে দারিদ্রকে জাদুঘরে পাঠানোর কথা আন্তর্জাতিকভাবে খুব চমক সৃষ্টি করেছিল। দারিদ্র পরিস্থিতি নিয়ে নানা গবেষণায় এর উল্টো চেহারা সামনে আসার পর তাঁর মুখে ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে কথাবার্তা এখন কম শোনা যায়। এখন তার নতুন মনোযোগ সামাজিক ব্যবসা।

সামরিক বাহিনী সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় সদ্য নোবেল পুরষ্কার বিজয়ী মুহম্মদ ইউনূস রাজনীতিতে নামার জন্য খোলা চিঠি দিয়ে জনগণের মতামত চেয়েছিলেন। দেশে তখন জরুরী অবস্থা ছিল। অনেক কথা বলা তখন নিষেধ। কিন্তু ইউনূস সাহেব মতপ্রকাশের এই বাধা দূর করবার জন্য জরুরী অবস্থা তুলে দেবার পক্ষে কোন বক্তব্য দেননি। রাজনীতি নিয়ে বলেন কিন্তু যুদ্ধাপরাধী বিরোধী আন্দোলনে তিনি বিরক্তি প্রকাশ করেন, বলেন এগুলো অতীতের বিষয়। সামরিক শাসন বিরোধী কোন বক্তব্য তাঁর থেকে কেউ শোনেনি। বিনাবিচারে অবিরাম হত্যাকান্ডে তাঁকে কখনো বিচলিত দেখা যায়নি। সৎ ও যোগ্য প্রার্থী নিয়ে তিনিই কথা বলেন যিনি এরশাদের স্বৈরতন্ত্র এবং অভূতপূর্ব দুর্নীতিকাল নিয়ে নীরব থাকেন। দুর্নীতি নিয়ে কথা বলেন কিন্তু দেশের তেল গ্যাস কয়লা নিয়ে লুন্ঠনের যে বিশ্বজোট গঠিত হয়েছে, দুর্নীতির এতবড় লেনদেন তাঁর দৃষ্টিতে পড়ে না। বাংলাদেশের তরুণদের মেধার অনেক প্রশংসা করেন তিনি কিন্তু তাদের হাতে দেশের সম্পদ রাখার কথা ভাবতে পারেন না। উন্নয়নের নামে দেশের শিল্প কারখানা, বিদ্যুৎ, তেল-গ্যাস-কয়লাখনি, পানি, শিক্ষা ,স্বাস্থ্য সবকিছু বাজারের অর্থাৎ দেশি বিদেশি দখলদারদের হাতে ছেড়ে দেয়ার আয়োজনে তিনি বরাবর সরব ও সক্রিয় সহযোগী। তাঁর সব কথার সারসংক্ষেপ হলো বাংলাদেশকে টুকরো টুকরো করে বিভিন্ন কোম্পানির হাতে ছেড়ে দাও, তাহলেই উন্নতি নিশ্চিত। সেজন্য এরকম একটি খুঁটির প্রভাব ও ক্ষমতার যেকোন ক্ষয় নিয়ে মার্কিনীসহ আন্তর্জাতিক পুঁজির প্রতিনিধিদের হয়রান হবারই কথা।

কিন্তু ইউনূস সাহেবের এসব চিন্তা ও তৎপরতার সঙ্গে বর্তমান সরকারের তফাৎ কোথায়? অভিন্ন নীতি, অভিন্ন প্রভুই যদি অব্যাহত থাকে, যদি ক্ষুদ্রঋণ মডেল ও গ্রামীণ ব্যাংক সংক্রান্ত যাবতীয় অনিয়ম যথাযথভাবে উন্মোচিত না হয়, তাহলে ইউনূস বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত চিহ্নিত হবে ব্যক্তিগত সংঘাত কিংবা দখল পাল্টা দখলের একটি প্রকল্প হিসেবে। সরকারের সিদ্ধান্তের পেছনে যদি ব্যক্তিগত সংঘাত কিংবা দখল প্রকল্পই থাকে তাহলে মুহম্মদ ইউনুসের পক্ষে তাঁর ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার খুব সহজ হবে। গ্রামীণ ব্যাংক কয়েক দশকে ক্ষুদ্রঋণের মধ্যে দিয়ে বিপুল মূলধনের মালিক হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানের বিপুল সম্পদ ও অনিয়ম সবকিছুর দায় ও দায়িত্ব এখন সরকারের।
৯ মার্চ ২০১১

আনু মুহাম্মদ: শিক্ষক, অর্থনীতিবিদ ও গবেষক।

৯৮ Responses -- “ক্ষুদ্রঋণ মডেল হ্যাঁ, ইউনূস না– কেন?”

  1. million hits secret bonus

    It truly is rare to find a professional person in whom you will surely have some trust. In the world at present, nobody truly cares about showing others the way out in this subject matter. How fortunate I am to have actually found a real wonderful web page as this. It really is people like you who make a real difference nowadays through the suggestions they reveal.

    Reply
  2. pobierz

    আমি এই বিষয়ে জানতে আগ্রহী ছিলাম, কিন্তু কোথা থেকে তথ্য পাব জানতাম না …. এই ওয়েবসাইটে সত্যিকারভাবে সব তথ্যই পাওয়া যায় দেখছি…

    Reply
  3. Salim

    আমাদের সামনে সব তথ্যই রয়েছে অথচ এই একটি ব্যাপারে সবাই একমত হতে পারছি না। আমাদের ১০ জন লোকের ১০ মত। এদেশের উন্নয়ণ এই আমাদের দিয়ে হবে? এদেশের শত্রুরা অতি সহজেই আমাদের বিভ্রান্ত করে তাদের স্বার্থ হাসিল করে নিয়ে যাবে। তাই সবাইকে বলতে চাই শুধু তর্কের খাতিরে তর্ক না করে সত্যকে গ্রহন করতে শিখি। বিতর্ক এড়িয়ে দেশের স্বার্থটাই আগে দেখি।

    Reply
  4. Zaman

    I do not know why Mr Yunus got this kind of punishment but I have a observation over this issue. I have found two thing …..
    1) AL head Sk. Hasina have a wrong notion over Yunus that he(Yunus) is much more popular than Sk Mujib in the outer world & it is beyond tolerable by her.
    2) Mr Yunus is accused of money laundering case & there is a authentic proof of this issue. He has laundered a big amount through telenor & govt is in under pressure from America that if they publish this issue than America will take revenge.

    I don’t know what is right but I want to know the exact thing.

    Reply
  5. Zaman

    Mr Anu Mohammad & his followers always find fault with America and other capitalist nations. Their voice upholds severe error but what they’re saying have no ground. If there’s any ground then there may be a platform where we can put our head. All these are one kind of BAM PROPAGANDA.

    Reply
  6. হাটুরে

    যারা নোবেল বিষয়টাকে অতীব গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন, যারা শান্তিতে নোবেলকে মাথায় তুলে রাখতে চাচ্ছেন, যারা স্বীকার করতে চাচ্ছেন না যে, নোবেল একটা পলিটিক্যাল পুরষ্কারের মতো, তাদের বলছি। শিমন পেরেজের মতো লোকেরা শান্তিতে নোবেল পদক ধারী। আইজ্যাক রবিনের মতো লোকেরা বিশ্বের শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য নোবেল পেয়েছেন। বিশেষ করে শান্তিতে নোবেল নিয়া এতো লাফালাফির কিছু নাই। আসলেই কিছু নাই। আমাকে কেউ একজন বলেন, ইউনুস সাহেব অর্থনীতিতে নোবেল না পেয়ে কেন শান্তিতে পেলেন?? প্লিজ কেউ একজন বলেন। আবার বলবেন না,সেটাতো নোবেল কমিটি জানে! কখন একজন ব্যক্তি একটা রাষ্ট্রের চাইতে বড় হয়ে যায়, তাও আবার এমন রাষ্ট্রের কাছে যারা বিশ্বের খনিজ সম্পদশালী দেশগুলোতে একের পর এক শান্তি প্রতিষ্ঠায় রত। শান্তির রঙ অথবা রক্ত ছড়িয়ে দিচ্ছে চারপাশে। আমি সচেতনভাবেই ইউনুস সাহেবকে তার নোবেল প্রাপ্তির ক্যাটেগরিতে ইয়াসির আরাফাতের সাথেও তুলনা করছি, একই সাথে শিমন পেরেজ, আইজ্যাক রবিনের সাথে এক কাতারে দেখছি!

    Reply
  7. Hasan

    Ekta bepaar amake khub vabaay…!!! Govt. shobshomoy kannakati kore bideshi biniyog akrishto korte hobe, deshe bideshi biniyoger poribesh toiri kore orthoneeti ke changa korte hobe, bla bla bla.

    Kintu Yunus er haat dhore GP, Danon, Addidus er moto company ashle uni hoye jan pujibaader dalaal. R shompurno oshochcho upaaye tax na diye shorkari modode AIRTEL bajare ashle Anu Muhammad der mukh theke kono kotha ber hoy na, Etogulo deshiyo biniyog er PSTN bondho kore dilo, tateo take kisu bolte dekhlaam na.!!!
    Tini bolte paren, tini tel, gas etc niye kaaj korchen. Tahole Yunus er gharei shob moulik odhikaarer daay chapachchen keno?? !!!!

    Deshe ki amra bideshi biniyog chai, naki chai na eitai ami ekhono bujhte parlaam na. GP shoho onno company gulo shudhumatro govt. er policy-goto durbolota r durniti er jonnoi ei deshke shushe khachche!!! Eikhane biniyog niye ashake dosharop korar jukti chaichi. Bideshi biniyog na ele telecom sector er ei infrastructure toiri ki amader pokkhe shomvob chilo? Kintu tara chore boshe ache shudhumatro govt. er policy er weakness r corruption er joono. Sheishob issue te haat den na keno??

    Reply
  8. Witness

    লেখাটার জন্য আনু মোহাম্মাদকে অনেক ধন্যবাদ। ডঃ ইউনূস চ্যারিটি করেন নি -তিনি ব্যবসা করেছেন। পৃথিবীর সব চাইতে উচ্চহার সূদের ব্যবসা। তত্বাবধায়ক সরকারের সময় যখন মানবাধিকারের চরম লংঘন ঘটছিলো, হাইকোর্ট পর্যন্ত জামিনের শুনানি করতে পারতো না -শান্তিতে নোবেল পাওয়া এই ব্যক্তি কার স্বার্থে নিশ্চুপ ছিলেন?

    Reply
  9. Asad Z. Karim

    All are politics against the Bangladesh and Bangladeshi people. before 1971 all political leaders worked for making a country with freedom.After 1971 all leaders forgot their comitment and tried to earn personal benefit. that result make them dishonered to all.
    Mr.Yunus was not a political leader but a good teacher as the light of society he felt 2nd time the poverty how explores over the country and how much exploitation is created by the political system. He knows well that it is impossible to him to change the system and stop the exploitation. Because the british and pakistan has gone and till exploitation happen and raises day to day due to the political system. Mr. Yunus thought a new thing that is empowerment to release the people from the system of exploitation. And that is why he works for women who is the exploited. If the most exploit could free first all will can free time to time. This was his philosophy and he proved this but 100% achievement will take time and usualy it takes 3-4 generation social changes.
    My personal thinking is if any body favoure Bangladesh he must be punished and hanged. Mr. Yunus as same case.
    Why he got noble before HASINA, HASINA needs all rewards first and no one should.

    Reply
  10. Suzaal, UK

    Dear Readers, Don’t forget that the notorious killer former US foreign secretary Henry Kissenger was also awarded Noble Peace Prize. Mr Kissenger named Bangladesh as the Bottomless busket. So never surprise if even late Khondoker Mushtaq get noble prize for peace in Bangladesh. These are all American propaganda over the world. So I don’t believe Mr Yunus is a friend of Bangladesh, and don’t forget that he sells a powerful product called MICRO CREDIT which is a very loving word in Western countries. Thanks

    Reply
  11. gazi anower

    ড. মুহাম্মদ ইউনূস গরীবদের নিয়ে ব্যবসা করে এ কথা বলা খুবই সহজ। পারলে আপনি করে দেখানতো? ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ বর্তমানে মাইকোক্রো ক্রেডিট রেগুলেটরি বডিতে কাজ করছে। তাই ক্ষুদ্র ঋন নিয়ে আর যাই হোক মানুষ গ্রাম্য মহাজনি ব্যবসার কবল থেকে মুক্তি পেয়েছে।

    Reply
  12. Sayeed

    Well written article, no doubt about that, but he just did what many other writers did. He took a side and it is against Dr. Younus. I have no objection about that but the problem is that he is not an ordinary person who can make shallow comments. He is himself a researcher, an economist. We expect writings which are based on information, based on statistics and research findings. that was absent in this writing. Therefore, it has become another subjective partisan writing rather than objective neutral writing. We did not expect it from an economics professor, it could be done by a professor of physics or Law.

    Reply
  13. জাহিদ সোহাগ

    এ ব্যাপারে লেখাজোথা মনোযোগ দিয়ে পড়ার চেষ্টা করছি। পক্ষে-বিপক্ষে নানা মত রয়েছে। একটা কথা দেশে আগে থেকেই প্রতিষ্টিত যে, ইউনুস সাহেবের সারেঙ্গী বাদেকরা ভদ্রলোক গোছের। তারা আর যাই হোক টাকার ক্ষমতায় পিছিয়ে নেই। মরিচের কেজি ১০০ টাকা হলেও তারা টের পান না। এই `ইউনূস সাহেবা আর আ’লীগ-বিএনপি’ একই চরিত্রের তাও সবার জানা। এবং এরা সবাই আমেরিকার দালাল। তাহলে ইউনূস সাহেবের সঙ্গে আ’লীগের বিরোধ কী নিয়ে–এ কাহিনী জানতে চাইছি। কিন্তু লেখকরা তা অনুসন্ধান করছেন না কেন বুঝতে পারছি না। ব্যক্তিগত আক্রোশ বলে মনে হচ্ছে না।

    আমার ধারণা: আ’লীগ প্রধানত শেখ হাসিনাকে বোঝানো হয়েছে বিএনপি-জামাতের মাজা টান করে দাঁড়াবার ক্ষমতা নাই। ২০২৫ সাল পর্যন্ত একটানা ক্ষমতায় থাকতে তারা কোন বাধা নয়। বাধা হলো ইউনূস। তাই তাকে হটাও। এতে অন্য কোন লুটেরা গোষ্ঠীর অভিসন্ধি থাকেত পারে। আর সঙ্গত কারণেই আ’লীগ ক্ষমতায় থাকলে খোন্দকার মোশতাকরাই প্রিয়ভাজন হয়ে ওঠেন।

    Reply
  14. তায়েফ আহমাদ

    লেখা এবং মন্তব্য মিলে অনেক চিন্তার খোরাক যোগালো।
    আসলেই তো! তথাকথিত ‘ক্ষুদ্র ঋন’কে সুযোগ দান করে এর প্রবক্তাকে ‘না’ বলার পেছনের কাহিনীটা কী?

    Reply
  15. mukta Sarawar

    এই শান্তিতে নোবেল প্রাইজ যে পৃথীবির সবচেয়ে বড় ক্রিমিন্যাল “হেনরি কিসিঞ্চার” পেয়েছিলো, আমরা তা ভূলে গেছি।
    কিছু করার আগেই ওবামা-ও পেয়ে গেছে !!তাও আমাদের মনে নেই !!

    Reply
  16. Chowdhury

    We might have difference in opinion regarding how GB is running or how much interest it is charging etc etc and constructive criticism of these facts will help every one including GB to go forward but I am sorry to say that when we write it is not the focus of many of us. Here in Australia we can go to a bank to get a Credit Card or Loan. In Bangladesh only the privileged class has that opportunity. GB has given that option of easy loan to many poor Bangladeshis. Whether that option will be taken by a poor Bangladeshi is entirely up to him no one is forcing him. May be as privileged class we are jealous to see why this lower class poor of Bangladesh will have the choice of getting loan from any where. More over in Australia without any mortgage/income it is impossible to get any loan but the poor of Bangladesh is getting that for GB. I also don’t understand why Dr. Yunus has been implicated in this debate also. Is he corrupt? Is he doing another pyramid scheme like “Jubok” ? Is he forcing the poor to get into the circle of loan? Is he claiming that GB is a totally charitable organisation? In Australia we never ask the question why we pay 28 to 30% interest to get GE type loan to buy some thing from Harvey Norman type many shops. Similar like them GB also needs to survive to continue its functions. In doing so like GE it might similarly charges its customers? I am not an economist or a Banker but I have not seen any constructive research or article on these facts. At the end of the day if we consider GB is a business if it is charging too much like any other bank it would not survive. Other banks are not seating back they would love to come into competition to get the share of this lucrative profit. Did any one of them come into that competition? How many years is it since GB started this lucrative profit making blood sucking business. I am not sure why no other Bank is interested. I am also not sure who can answer these questions.

    So can I conclude that dishonouring a person who brought so much of honour for our country is what we are trying to achieve? Or did I understood wrong, we are trying to do the noble thing of helping our poor by getting rid of this blood sucking GB. We must congratulate ourselves that at least we are doing something for the poor of our country.

    Yesterday in my head office at Canberra, during a presentation on leadership by an Australian renowned organisation, among many leaders of the world when Dr. Yunus’s picture and thoughts were shown to us, as Bangladeshi I did feel proud in front of my Aussi friends. But we the self-destructive nation might love to see that destroyed.

    Reply
    • atiq

      vai… bojlam apne australia thake porasona..kore head based job kore ..Desh,nijike,overall friend circle ke donno koresen..
      bujar try koren.. Anu mahmud ki lekhse..!!!

      Sada chamra presntation-a Dr. yunus-er joy gan korse…r apne ahladito hoye..buker chati fullaya disen.!!!

      leadership..management er presentation apnake keno koracce… bujsen to!! jate valo kore…leader hote paren… mane business leader.noble prize ta dise… sahntir jonno..business er jonno na..desk based job…the economist r finincial times porle e sob buja jodi jeto..ta hole ato boro comment na lekhe ata ke aro sota kora jeto…

      Reply
  17. M Haque

    Anu Muhammad is a social reformer, as his activities go. But I always remain skeptic, as he claims, what impact he has created in his own field – tel Gas rakhya committee. Often it appears as dubious in its agenda and policies. Couldn’t he produce an institution that would have challenged energy ministry. Look at his website, how many articles are their. To me that is an evidence that he himself want to create a noise only, not educating the public and creating power of an institution. I read few of his books nothing comprehensive on his main subject, not much research. Yet I appreciate his effort, ni mamar theke kana mama amader deshe.
    When Hasina gets all her support from America, goes door to door of EU members to complain against BD while in opposition and beg their support, all the secular or shadhinotar pokhyer lok ba shushils do not get irritated, why the same for Yunus?
    If they have built with the support of WEST cant’ you rely on your own people to build something for them?

    Reply
  18. Kamal

    There are a lot of people in the society who provoke others…try to find faults of others but they are so impotent that they can’t contribute anything through their work except destructive criticism. Their writing is convincing but useless for the nation. Do you think we will ever get an educated and honest politician like Sher-E-Bangla? Today Dr. Yunus has done and shown something to the nation. He has reached to a position that filthy people is trying to pull him down. Off course he is not above criticism but should be in constructive manner. I hope we will stop cutting our own feet with axe.

    Reply
    • সৈয়দ আলি

      কামাল আরেকজন বিগম্যান কমপ্লেক্সে আক্রান্ত মানুষ। জয়ন্ত রায় এবং মুনতাসির মামুনের “প্রশাসনের সদরে অন্দরে” পড়ুন।”শের-ই-বাংলা”র সততার খবর পাবেন। খালি ধুপ দুনা দিয়ে পুজা দিলে হবে? এখন শুরু করেছেন ড. ইউনূসকে নিয়ে। গ্রামীণ ব্যাঙ্কের বিভিন্ন খাতের নামে আসা অর্থ নিজের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানে জমা দিয়ে সেখান থেকে সুদে গ্রামীণ ব্যাঙ্ককে ঋণ নিতে বাধ্য করেছেন। তারপরেও তিনি আপনার ভাষায় “..He has reached to a position” কী করে হলো তাতো আনু মুহম্মদ বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তা পড়ে যদি বুঝে থাকেন তবে বেহুদা অশুদ্ধ ইংরেজিতে হেদায়েত করছেন কেন?

      Reply
      • Kamal

        Mr. Sayed, it is always welcome to refute opinion but not attacking personally. At least people from good family background never do that. It is again proved wrong that “NAME BONGSHER PORICHOI”…

      • Quazi Abdus Sobhan

        ডাঃ মোহাম্মদ ইউনুছ সাহেব যে ভাসুর !! উনার নাম মুখে উচ্চারন করা যে পাপ।
        ইউনুছ সাহেব গরিবের গলিত লাশের উপর দাড়িয়ে আকাশছোঁয়া উঁচুতে উঠেছেন তাকে কীভাবে সামান্য চুরির জন্য দোষারোপ করা যায় ?

      • Taleb

        Mr. Syed Ali, what are you commenting, did you ever read any article on Dr. Yunus and his khudro rin theory? Do you think all the other worlds people, like China, South Africa are fool? Try to create at least 1% what created by Dr. Yunus.

  19. Rony

    ইউনুস সাহেব একটা জিনিসই ভাল পারেন – ব্যাবসা। He is a capitalist from the very beginning and in his whole life. গ্রামীণ ব্যাংক ও তার একটা ব্যাবসায়িক চিন্তা ভাবনারই অংশ।

    BTW, গ্রামীণ ব্যাংকের এখন যে মুলধন তা ইউনুস সাহেব নিজের পকেট থেকে দেন নাই। জনগনকে শু‌ষেই তা হয়েছে।

    Reply
  20. musharrof

    প্রথমে আনু মোহাম্মদকে ধন্যবাদ। অবাক হই, যখন দেখি আমাদের দেশের মানুষ ব্যক্তির কাজের চাইতে নোবেল পুরষ্কারকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। আমি তাদের কাছে জানতে চাই,নোবেল পুরুষ্কার কি ভালো মানুষের সার্টিফিকেট? জেনে রাখুন,যারা এই নোবেল পুরষ্কার দিচ্ছে তাদের একটি উদ্দেশ্য রয়েছে বিশ্ব জুড়ে। এজন্য তারা প্রায় প্রতিটি দেশেই তাদের প্রতিনিধি নিয়োগ করে। বাংলাদেশে ইউনূস হলো তাদের সেই প্রতিনিধি। যার কারণে ইউনূসের এই রকম পরিণতিতে আমেরিকার এত উদ্বিগ্ন। ইউনূসের কখন্ও গরিব মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা ছিলো না। যে গরিব মানুষের জন্য কিছু করতে চায়, সে কখন্ও গরিব মানুষের উপর ৩০% সুদ চাপিয়ে দিতে পারে না। এটা একমাত্র ঐ রকম ব্যাবসায়ীরাই পারে যাদের কাছে মুনাফাই একমাত্র লক্ষ।

    Reply
    • শহীদুল ইসলাম

      ডঃ ইউনুস অর্থনীতির মানুষ হিসেবে খুব ভাল করে জানতেন বা জানেন শোষন দরিদ্র,অভাবী মানুষদেরকে করাই সহজ।
      তাই অশিক্ষিত দরিদ্র ও মহিলাদের বেছে নিয়েছেন ।
      আর নোবেল সেতো প্রভূদের তুষ্টির প্রসাদ।
      এদেশেও দেখা যায় বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে; আওয়ামীদের সময় তাদের বুদ্ধিজীবিরা এবং জাতিয়তাবাদীদের সময় তাদের ঘরানার লোক নানা রকম সাটি’ফিকেটে পুরস্কৃত হয়।
      বিগত পুরস্কারগুলোর দিকে তাকালেই বোঝা যায় ।
      ধন্যবাদ mushrrof…….

      Reply
  21. Mahin Hasan

    It is very easy to criticize, extremely difficult to build an institution. Dr Yunus has worked with the poor for 30 years. Nobody has doubted about his personal honesty. He lives a modest life, more modest than many leftist intellectuals who draw monthly salaries from powerful blocks. `leftist’ intellectuals, have done nothing for the poor. They can only discuss issues, debate and raise a storm over tea-cups. That’s all! Do something if you can and then you earn a right to criticize others.

    The government is playing a very dirty and obnoxious game against a Nobel Laureate! This is shameful!

    Reply
    • সৈয়দ আলি

      ড. ইউনূস ত্রিশ বছর “গরীবদের নিয়ে কাজ করেছেন” বটে কিন্তু এই ত্রিশ বছর পরেও একটি পরিসংখ্যান দিয়ে আমাদের জানালেন না, কতজন গরীব মানুষ তাঁর “কাজ”-এর সাফল্যে ঘি-ভাত খায়। গ্রামীণ ব্যাঙ্কের হাউজ ম্যাগাজিনে প্রথম গ্রাহক সুফিয়ার ছবি-টবি ছাপিয়ে, অন্যের দালান-কোঠা সুফিয়ার সাফল্যের ফসল হিসেবে দেখিয়ে বেশ প্রচার চালিয়েছিলেন। ধরা পড়ে এখন আর মুখে স্পিকটি নট। দেশে তার কিছু অসুবিধা হলেই উড়ে চলে যান পৃথিবীর সবচেয়ে ঘৃনিত সাম্রাজ্যবাদীদের দেশে সাহায্য চাইতে। এবারও যেতেন, কিন্তু তার কাছে খবর ছিল তাকে এয়ারপোর্ট থেকে পত্রপাঠ ফেরৎ পাঠানো হবে, তাই মামলার দোহাই দিয়ে আর এয়ারপোর্টমুখী হননি।

      Reply
  22. প্র্রজন্ম ৭১

    There is a company ” grameen America” is set up in America.
    Why does he need to set it at America? The people are more poorer than SUDAN or Somalia? Is It finish in BD? He is a Business man, Nothing else….
    He think about his policy and self development. As a figure ( Made by US) we expected more from him, But it was our wrong concept.Now he wants peaceful ending ….otherwise he will lose all his business that is created by cheating with poor people.

    Reply
  23. Mohammed Shafikur Rahman

    I did not expect that your views about Dr. Yunus would be such. Please make clear your opinion about Govt. and Dr. Yunus, because lots of ambiguity in your comments.

    Reply
    • Noman

      I think the writer is very clear about his opinion…he spokes that blood sucker Yunus and current government, both are following directions from one point and for such reason they both are same…
      But he clearly speaks about blood sucker of poor, fraud Yunus, who is collaborator of corporate group…

      Reply
    • সৈয়দ আলি

      কোনই ambiguity নাই। ডিগ্রীধারী কিন্তু মাথামোটা মানুষদের জন্যও এই নিবন্ধ আনু মুহম্মদ রচনা করেন নি।

      Reply
  24. ashan

    in this world of bought, sold intelletuals, Anu Muhammod is unique.
    He has courgae to say spade a spade.
    wonderful sir. i consider Dr.Yunus as another Hamid Karzai.

    Reply
    • Mahmood

      1. Did Anu say what percentage of the bank Dr Yunus owns?
      2. Did Anu say that Grameen Bank is a for profit organization ?
      3. Did Anu disclose that the Bank lends money without any collateral ?
      4. Did Anu suggest how should the bank get its money from the borrower when there is no collateral?

      Anu did not say lot of things. Why ?

      Reply
  25. Liton

    Dear Mr. Anu Mohammad

    Writing is very easy for everyone but always difficult to do in real world. We always love to pock to others but we don’t do anything.

    The complain you are making against Mr. Yunus, did you ever do something for our nation, If you people know everything then why don’t you talk early and why later.

    Do you love your nation? I don’t think so. All are so called big figure and always love to eat, write, talk, sleep & POKE but not agree to do something good for the nation.

    Reply
      • Liton

        Nothing is beyond criticism except “Religion” but there is a decent way to do it and not talk like a stupid and specially to support blindly the AL works what they are doing now against Dr. Younus.

        AL took this as their prestige issue as Dr. Younus become more popular figure then her father.

      • yousef

        i am not sure what good things he has done for poor people. go to the areas covered under microcredit and judge yourself. we are very much influenced by media. please think deeply why US and other rich countries will help us. All these countries have vested interest to promote NGOs. Dr. Younus is another Hamid karzi and just wating for righ time.
        don’t be fooled by media.

      • Liton

        I am not in favor of Mr. Younus or anybody else. only the thing what’s going on in our country is not right. AL took him on ground of political view and it happen from AL jealous only, nothing else.

        I can challenge this in any way, if our government is so much aware on all of this then why not before why after so many year ???

        Can AL answers the question ? I know they can’t because we all know what they are ….

    • mahabub

      আনু মুহম্মদরা যা করছেন তা ডঃ ইউনুসদের তুলনায় ১০০ গুন বেশী কার্যকর। নাহলে গ্যাস তেল আর বন্দর নিয়ে ইউএস,ইউনুস গংরা লুটে পুটেই খেত।

      Reply
      • azmal

        আনু মুহাম্মদদের সমস্যা হলো সব কিছুতে ষড়যন্ত্র খুঁজে বেড়ানো। আসল ব্যাপার এরা খুব কম লক্ষ্য করেন। মজার ব্যাপার হল, এই ষড়যন্ত্র তত্ত্বের প্রবক্তরা নিলর্জ্জভাবে ওইসব ষড়যন্ত্রকারীদের সাথে সখ্য পাতায়।

      • শহীদুল ইসলাম

        আনু মুহাম্মদের এ কাজ প্রশংসার যোগ্য তেল গ্যাস বিষয়ে……

    • Noman

      Dear Mr Liton…
      Do u know anything about Mr Anu Mohammad? How can you make the comments? Very funny you are! Shame man…You should know what he is doing…he is not like blood sucker of poor peoples, Yunus…
      Mr Anu loves peoples, loves nations…that is why he is working to save our natural assets…such as oil, gas…

      At first try to know some one then made a comments…

      Reply
      • Hossain

        Would you mind to list down the achievements by respected Anu Muhammad for those who might be unaware of? I can’t remember this person did anything except going to street to protest. I agree he loves the nation, and faces the turmoil by going against the govt. Before pointing out your finger at others success, we should FIRST ask “what I’am doing good to my country, to which scale etc”.

        To clear it out: I’m not a “Yunus fan”. But, what I can say, Dr. Yunus (being a blood sucker – from other’s perspective) brought a good recognition for BD. His idea of Micro-credit is taught in topnotch schools around the world. Who could bring more recognition for BD? Just tell me.

      • সৈয়দ আলি

        নোমান, তারও আগে Liton জাতীয়দের ইংরেজী ভাষাকে ধর্ষণ বন্ধ করতে বলুন প্লিজ। তাছাড়া বেচারার জ্ঞানের দৌড় হলো “নোবেল বিজয়ী” ইউনূস পর্যন্ত। নোবেল একটি খুব বড় প্রাইজ এইটুকুই জানেন মাত্র।

      • Liton

        Dear Mr. Noman

        My question is if Mr. Anu Mohammad has so much feeling about our nation and then when he clearly knows that Mr. Younus is such kind of person then why he didn’t bring this matter in front of us before. Why after passing so much water.

        If you think from a neutral point then you can understand. By supporting the present AL dirty politics against Dr. Younus we are not respecting ourselves.

        If you don’t respect others then you can’t expect respect from others too.

      • হাটুরে

        উনি এবং আরো অনেকেই অনেক আগে থেকেই এ বিষয় নিয়া কথা বলছেন, লেখা লেখি করছেন, রাস্তায় দাঁড়াচ্ছেন, প্রতিবাদ করছেন। কিন্তু মিডিয়া’র কাছে আনু’র মতো লোকেরা কখনোই জনপ্রিয় হয় না। মিডিয়া চায় মশলা, আনুদের কাছে আছে সত্য। সত্য বেশিরভাগ সময়েই মশলা হয় না। এর আগেও তিনি অনেকবার এ বিষয় নিয়ে বলেছেন। রাস্তার লোক বলে হয়তো আপনি শুনেন নি, কিংবা পাত্তা দেননি। খুঁজে দেখুন, ক্ষুদ্রঋণের স্বরূপ নিয়ে তাঁর স্পষ্টবাদিতা খুঁজে পাবেন। কিন্তু সমাজের নিচতলায় খুজতে হবে। এসি রুমে খুঁজে পাবেন না।

      • Liton

        Dear Mr. Noman

        You asked me a question whether do I know Mr. Anu Mohammad or not? Yes I know that he is a man like me but only difference is on thinking and working.

        I think from a point of neutral situation but he think from a position where Kill the snake but don’t break the stick.

      • Liton

        Mr. Mamun

        How can you ask such a question if you are not an Indian ?

        I don’t need to follow the media & Allah gave us a small brain and just utilize that.

        Don’t be a photocopy only.

  26. জাফর ইদ্রিস

    ক্ষুদ্র ঋণ ও ডঃ ইউনূস
    বাংলার নিঃস্ব শ্রমজীবী মানুষগুলো যখন অর্থাভাবে থালাবাসনটা পর্যন্ত বন্দক রেখে স্থানীয় মহাজনের চক্রবৃদ্ধি সুদের যাতা কলে নিষ্পেশিত হচ্ছিল, মহিলাতো দূরের কথা পুরুষেরা পর্যন্ত জামানতবিহীন লোন পেতনা। সেখানে ডঃ ইউনূস আমেরিকার ভোগী জীবন ছেড়ে ছুটে এসেছিলেন বাংলার দুঃখি মানুষের পাশে এবং তুলে দিয়েছিলেন মহিলাদের জামানতবিহীন অর্থ। কতটা সফল হয়েছিলেন সেটা আলোচনার দাবী রাখে। হঠাৎ হাতে নগদ টাকা পেয়ে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহনকারী মানুষেরা কতটা সদব্যাবহার করতে পেরেছে বা কাজে এসেছে সেটা আলোচনা হতে পারে। আজ বাংলাদেশের গ্রামীন জীবন যে কতটা উন্নত হয়েছে তা রাজধানীতে থেকে বুঝার কথা নয়। মাঝে মাঝে গ্রামে যাই তখন আর ফিরে আসতে ইচ্ছা হয় না। তবে হ্যাঁ এই উন্নায়নের পিছনে বিদেশী দানের ক্ষূদ্র ঋণই বেশি অবদান রেখেছ। এখানে রাজনৈতিক দলের কোন অবদান আছে বলে আমার মনে হয় না। এখন বলতে হবে তবে ডঃ ইউনূসই কি সব করেছেন ? না, তা বলব না,তবে তিনিই এর উদ্ভাবক, প্রথম শুরু করেছিলেন এবং যারা প্রথম শুরু করেন তাদের পদ্ধতিগত কিছু ভুল থাকতে পারে ।আজ তার পদানুসরন করে ক্ষূদ্র ঋনদাতায় দেশ ভরে গেছে। যার ফলশ্রুতিতে দেশ লাভবান হচ্ছে। সুতরাং আর কিছু না হোক উদ্ভাবক হিসেবে তাকে সম্মান করা উচিৎ। তা নাহলে আমরা অকৃতজ্ঞ জাতি হিসেবে বেঁচে থাকবো। ধন্যবাদ।

    Reply
    • Noman

      আহারে!!!
      ইউনূস এদেশের মানুষকে বোকা বানানোর জন্য ফিরে এসেছে…কারণ আমেরিকায় সে কাউরে বোকা বানাতে পারত না…আমেরিকায় এত গরীবও ছিল না তখন…গরীব নিয়া ব্যবসা…কোন ঝামেলা নাই…ঋণ নিয়া গরীব মানুষ কতটা লাভবান হয়েছে সেটা আলোচনার দাবী রাখে, আমি মনে করি গরীব নিয়া ব্যবসা করে ইউনুস কতটা লাভবান হলেন…গরীবের টাকা মেরে তিনি কী কী করলেন সেটা আলোচনার দাবী রাখে।…শুধু তাই নয়, দেশের তেল-গ্যাস, সমুদ্রবন্দর বিদেশীদের হাতে তুলে দেয়ার জন্য ইউনুস কী কী করল, এগুলো তদন্ত করা দরকার…গ্রামীণ ফোন কীভাবে ব্যবসা শুরু করে ইউনূসের ইমেজ ব্যবহার করে-এটা জানেন? বাংলাদেশ রেলওয়ের যে নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে গ্রামীণ, ইউনূস কীভাবে দেশ ও দেশের মানুষকে প্রতারিত করেছে, সেটা জানেন?
      হাসিনা, খালেদা দু’জন মিলে দেশের যত ক্ষতি করেছে, এক ইউনূস তার চেয়ে বেশি করেছে…হাসিনা আর খালেদা তো রাজনীতি করে…কম হোক, বেশি হোক দেশপ্রেম কিছুটা হলেও আছে, দায়বদ্ধতা আছে…তার কারণে দেশে কত বিদেশী কোম্পানী দেশে এসেছে সেটা জানেন?

      Reply
    • সৈয়দ আলি

      বিগম্যান কমপ্লেক্সে আক্রান্তদের পক্ষে ইউনূসের বন্দনা করা সহজ, তাকে সব কৃতিত্বও দিয়ে দেয়া হয়। বাংলাদেশের গ্রামীন জীবনের মান উন্ন্নত হয়েছে কৃষি মন্ত্রনালয়, শাইক সিরাজ এবং কিছু সরকারী পদক্ষেপের কারনে। ইউনূসের ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে সুফিয়া বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করেছে, ঝিনাইদহের ঋষিপাড়া উজাড় হয়েছে। আপনার গ্রামে গেলে উন্নত জীবনের মান দেখলে ভালো লাগে, আমারও। জিজ্ঞেস করে দেখবেন এই উন্নত মানুষদের কতজন গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণ নিয়ে জীবনের মান উন্নত করেছে।

      Reply
  27. kasem,

    What is the truth about Grameen Bank? The bank is really owned by poor people of Bangladesh? Dr Younus Or Clinton?
    But we know, many of our poor women committed suicide because of loan from Grameen Bank. That’s solid true.

    Reply
    • Iftheker Mohammad

      হাস্যকর বটে! এই লেখক এই সরকারের সময় হরতাল ডেকেছে, রাস্তায় পুলিশ কর্তৃক নির্যাতিত হয়েছে ।
      বেগম খালেদা খানম তাঁকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছে, সমব্যথি হয়েছে ।
      সেই লোক হয়ে গেলো আওয়ামী লেখক বাহিনীর সদস্য!!!

      বিচিত্র এদেশে কিছু অন্ধ মানুষ!

      Reply
  28. সৈয়দ আলি

    এই রচনাটিকে আমি নির্দ্বিধায় গ্রামীণ ব্যাংক সম্পর্কে সকল রচনার উর্ধ্বে স্থান দিচ্ছি! ধন্যবাদ অধ্যাপক আনু মুহম্মদ। বিগ ম্যান কম্প্লেক্সে আক্রান্ত ডিগ্রীধারী কিন্তু অশিক্ষিত মানুষদের নয় বরং হঠাৎ বদলে যাওয়া ফরহাদ মজহারের মতো মানুষদের প্রতিক্রিয়া জানার জন্য কৌতুহলের সাথে অপেক্ষায় রইলাম।

    Reply
  29. আহসান হাবীব

    Excellent analysis! I think So far Dr.Yunus issue is discussed. this one is the best article. Thank you very much sir.
    “তাহলে কী কারণে সরকার এধরনের সিদ্ধান্ত নেবার ঝুঁকি গ্রহণ করলো? সরকার ইউনূসকে নিয়ে তাঁর সিদ্ধান্ত বহাল রাখবার জন্য অন্যান্য ক্ষেত্রে মার্কিনীদের, বা বৃহত্তর অর্থে সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোকে আরও ছাড় দেবার পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে কি না এটাও এখন এক বড় উদ্বেগের বিষয়।”
    আমি আপনার সাথে একমত। ইউনূস সাহেবকে লাইমলাইটে আনার এ একটা ‌CIA কেন্দ্রীক গেইম হতে পারে। Norwagian টিভি ডকুমেনটারী এবং বাংলাদেশী সরকারি আমলা সংশ্লীস্টতা হয়তবা CIA গেমের কুশিলবের ভূমিকায় আছেন। নতুবা ইউনূস সাহেব গত ১০-১১ বছর MD থাকতে পারলে এখনও পারতেন। মৌচাকে ঢিল দেবার মত সরকারকে উসকে দেওয়া হয়েছে, এতে হাসিনা সরকারের সব দিক থেকেই লোকসান মনে হচ্ছে, অন্যদিকে নোভেল সাহেবের পোয়াবারো হবার সম্ভাবনা খুবই প্রকট!

    Reply
  30. Saiful Islam

    পুরো লিখাটা আসলে ইউনুসকে আক্রমন করে। চেষ্টা করা হয়েছে সরকারের একটু লোকদেখানো সমালোচনা করে নিজেকে নিরপেক্ষ দেখানো। আমরা বুঝি।

    Reply
      • Hossain

        There goes a proverb “It is easy to say, but difficult to do”.

        Mr. Anu Mohammad has NO courage to be in place like Dr. Yunus by establishing an institution. He at best can DO only protest on streets .

        What a nation we have, where there are so many people to criticize others’ achievement, yet they CAN’T give anything to the country!

      • হাটুরে

        এই যুক্তিতে আমার আপনার বাংলাদেশের রাষ্ট্রক্ষমতা নেয়া উচিত। তা নাহলে বর্তমানে এবং অতীতে যারা চালিয়েছে তাদের নিয়ে প্রশ্ন করা উচিত নয়। দারিদ্র কি আদৌ এক পাক্ষিক বা প্রজেক্ট হিসেবে নিয়ে দুরীকরণ সম্ভব, যদি পুরো সমাজ ব্যবস্থা পরিবর্তন না হয়? ভেবে দেখবেন।

    • Mahmood

      Babu, Are you insulting a Professor and a Researcher ?
      Good. I can’t blame you since Prof Anu failed to mention facts and present evidence. Tom, Dick and Harry can raise questions. But Anu intentionally raises questions with the intention to plant doubts in people’s mind about Dr. Yunus. As an educated man, can a Researcher tell us to what extent Grameen Babk is supposed to disclose the operations of the bank to the general public ? Is the bank a publicly traded company, Professor ? Or will you pretend to not know what publicly traded means?

      Reply
      • হাটুরে

        আসলেই…আমাদের চারপাশে প্রমাণের এতো অভাব! প্রমাণ থাকলেও আমরা মনপছন্দ না হলে এড়িয়ে যাই। এ বিষয়ের অনেকগুলোই এখন প্রমাণাতীত। আগে ছোট্ট হলেও পত্রিকায় আসতো। এখন আর আসে না। এর কারণ কিন্তু বিষয়টা দূর হয়ে গেছে তা না। এর কারণ বিষয়টা মিডিয়া সামনে আনে না। আপনি মিডিয়ার কথায় বিশ্বাস করেন তো খুব? তাইলে নরওয়েজিয়ান মিডিয়া যে প্রশ্ন করছে তার জবাব দেন? নাকি ঐটা বানানো!!! পরস্পরবিরোধী হৈয়েন না।

  31. Biplab

    ইফতেখার ভাই,আপনিতো স্যারের বক্তব্যের মন্তব্য দিলেন! স্যারের কথায় অন্তত জাতীয় স্বার্থ রক্ষার কথা প্রকাশ পেয়েছে। স্যার দুদুকে গেলে আপনি সাথে থাকবেনতো??

    Reply
    • Iftheker Mohammad

      নিঃসন্দেহে। তবে তার আগে অভিযোগের শক্ত প্রমাণ স্যারের কাছে আছে কিনা তা নিশ্চিত হতে হবে।

      Reply
    • হাটুরে

      ইউনুস ক্যাপিটালিস্ট। যেমন ক্যাপিটালিস্ট বুশ, ব্লেয়ার কিংবা আমেরিকা আর তার দোস্তরা। ওনারা মহান। বিশ্বের শান্তি প্রতিষ্ঠায় ক্লান্তহীন কাজ করে যান। তাদের পক্ষেই থাকুন। ব্যর্থ মতের পক্ষে আসার দরকার নাই। শক্তিমানের পক্ষে থাকাটা নিরাপদ বটে।

      Reply
  32. Shahid

    আপনার লেখা পরে মনে হচ্ছে ইউনূসের বাংলাদেশের সব মৌলিক সমস্যার সমাধান করা উচিত। তাহলে তো সরকারের দায়িত্বটাও উনার হাতে ছেড়ে দেয়া উচিত!

    Reply
      • হাটুরে

        হাহা..কেউ যখন প্রাথমিক মৌলিক সমস্যা সমাধানের চেষ্টা না করে নতুন মৌলিক সমস্যা নিয়ে আসে, তখন সন্দেহ হওয়াটা অযৌক্তিক বটে।

  33. 1971

    Sir, very well-written article.

    Dr. Yunus got Nobel Peace Prize; unfortunately he did not say anything about unpleasing events in Bangladesh – violence, terrorism, cross-firing, war criminals and many more. In this regard, I think your second last paragraph is absolutely right.

    He has been advancing capitalistic agenda where financial capitalism are not possible- in rurl Bangladesh. He has been trying to do business in the name of social business!

    Many of our civil society members (I beleive they are agents of the USA) have been supporting Dr. Yunus blindly. Why are they so interested in rescuing Dr. Yunus?

    Thank you sir for this article.

    Reply
  34. Rizwan-ul Huq Anando

    হাসিনা বনাম ইউনূস ! এটা আসলে কোনো আদর্শগত বিরোধ নয় I এমন নয় যে আমাদের সেকুলার সরকার খোল-নলচে বদলে ধর্মাশ্রয়ী সরকারে রুপান্তরিত হলো I সরকারের ভাষা খুব বিভ্রান্তিমূলক I স্যার, হাসিনা একবার বলছেন ইউনূস রক্তচোষা, আবার তার অর্থমন্ত্রী বলছেন আইনের কাছে তাদের হাত পা নাকি বাধা I সরকার আসলে জনগনকে কী বুঝাতে চাচ্ছে ? যে ইউনূসের বয়স অতিক্রান্ত ! বাংলাদেশের হাজারও সরকারী পদে এরকম অসংখ্য নিয়োগ আছে যা শুধু এরকম অবৈধই নই, বরং রাজনৈতিক দোষে দুষ্ট I সরকারের যত চিন্তা শুধু ইউনূসকে নিয়ে I সরকার কি গ্রামীণ বাংকের মত সব ক্ষুদ্র-ঋণ এন.জি.ও বন্ধ করতে চায় I মনে হয় না I

    ব্যক্তি ইউনূসকে নিয়ে অসংখ্য প্রশ্ন আছে I তার ‘ঋণ মানুষের মৌলিক অধিকার’ এই সব চটকদার কথার সমালোচনা আছে, এবং পরেও থাকবে I কিন্তু সরকার যে পন্থায় এবং যে সুদূরপ্রসারী রাজনৈতিক মোটিভ নিয়ে এটা করলো সেটা কোনো সভ্য কাজ না I একটা প্রতিষ্ঠান গড়া যত কঠিন, তাকে ধ্বংস করে দেওয়া সে তুলনায় অনেক সহজ I সরকার এই সহজ পথটাই বেছে নিয়েছে I সর্বোপরি, এই চুলোচুলির ফল কোনোদিক থেকেই আমাদের দেশের জন্য ভালো না I যদি সরকার জেতে তাহলে গ্রামীণ বাংকের মতো প্রতিষ্ঠানের জন্য অশনি-সংকেত আর সেই সাথে ক্ষতিগ্রস্ত হবে বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশের ইমেজ I আর ইউনূস যদি এই বেলা পার পেয়ে যান তাহলে বাংলাদেশের ক্ষুদ্র-ঋণের ভবিষ্যত আন্তর্জাতিক বানিজ্য আরো প্রসার I মাঝখানে আমাদের আট কোটি দুস্থ জনগনের প্রানান্ত অবস্থা I

    Reply
  35. Quazi Abdus Sobhan

    আনু মোহাম্মদ সাহেবকে আন্তরিক ধন্যবাদ তার এই লেখাটির জন্য।

    Reply
  36. Md. Ziaul Monsur

    If Dr. Yunus has to leave Grameen Bank for exceeding the age limit then why many public servants and politicians of Bangladesh should not leave their jobs and politics for disqualification?
    In public/govt. institutions of Bangladesh, a lot number of servants including high officials are seen have no or little qualification to the posts. And in Bangladeshi politics, most of the politicians know nothing about it. So, they must leave their position for the well being of the country. If Dr. Yunus has to leave then our dull public servants and politicians has no any right to keep their positions from now.
    I want all the legislatures of Bangladesh to pass laws and necessary acts to refrain the politicians to extend and exercise their political hands with all the political posts no longer available in exceeding 60 years of age. This would be a reverse treatment of Dr. Yunus and it will prevent minister like A. M Muhith continue in his office who is in 75 years old.

    Reply
  37. Md. Ziaul Monsur

    Well. OK. Professor Yunus has exceeded 60 years and it is stand for his only disqualification for the post of MD of Grameen Bank.
    The question seeking a logical answer to all concerns is that how Mr. A. M Muhith, Finance Minister of Bangladesh is still in the post of Finance Ministry. Is he a younger man? So far we know he is older than Dr. Yunus.
    If finance minister is supposed to be capable of carrying out the whole financial system of the country then why Dr. Yunus could not be able to carry out the post of MD in the tinny Grameen Bank?

    Reply
  38. Iftheker Mohammad

    জনাব আনু মুহাম্মদ শুধু কঠোর সমালোচনা করে যান। ইউনূসের কথিত অনিয়মের দায়িত্ব কিংবা তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ লুন্ঠনের খবর দিয়েই তিনি খালাস, কারণ দায় তো সরকারের!! স্যার, দুর্নীতি দমন কমিশন রয়েছে আপনার জন্য। অনুগ্রহ করে কি আপনি সেখানে ইউনূসের এসব অনিয়ম নিয়ে অভিযোগ দায়ের করবেন?? সরকার নাকি দুর্নীতি দমন কমিশনকে অক্ষম করে রেখেছেন। দেখে আসলেই হয় দুদক অক্ষম কিনা !! জাতীয় স্বার্থে এহেন অনিয়মের বিরুদ্ধে আনু মুহাম্মদ স্যার নির্লিপ্তই থেকে যাবেন কিনা এটাই এখন প্রশ্ন।

    Reply
    • shamir

      অন্ধ হলে কি প্রলয় বন্ধ হয়ে যায়! সুদের সাগরে ভেসে ভেসে সুদি মহাজনদের অনুকম্পায় ক্ষমতায় বসে ইউনুসকে রক্তচোষা বলাটি হিপোক্রেসি বটে।

      Reply
  39. robin ahsan

    ইউরোপে একসময় যারা ক্ষুদ্রঋণের জয়গান গাইতো আজ তারাই শুরু করেছে ক্ষুদ্রঋণ বিষয়ে উল্টো গান। মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিগুলো খুঁজছিল একজন ইউনূসকে। এমন একটি লোকও কোথাও খুঁজে পাওয়া যাবে না যে, গরিব মানুষকে ঋণ দেওয়ার নামে কোটি কোটি টাকা ব্যবসা করতে পারে। গ্রামীণ ব্যাংক নেটওয়ার্ক গড়ে তুলে একই ব্যাংকের গ্রাহকদের কাছে বিশ্বের নামি-দামি ব্র্যান্ডের পণ্য বিক্রয় করেও লাভ করছে। একজন নামি-দামি ব্যক্তি নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত ও একমাত্র বাংলাদেশি যিনি দই বিক্রেতাও। তাঁর কোম্পানির ‘শক্তি দই’, শিশুদের জন্য পুষ্টিকর তো নয়ই বরং অস্বাস্থ্যকর। ফ্রান্সের সেই শক্তি দই বাংলাদেশে ফেরি করতে নিয়ে এসেছেন এই নোবেল লরিয়েট দইওয়ালা। আর দশটা প্রতিষ্ঠানের মতো ‘শক্তি দই’তে ভেজাল থাকায় সরকারি আইন অনুযায়ী তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

    Reply
  40. জাফর ইদ্রিস

    আনু মুহাম্মদের লেখাটি পড়ে নুতনভাবে বিষয়টি ভাবনার অবকাশ সৃষ্টি হল। বিষয়টি এতদিনের আবেগের অন্তরায় সৃষ্টির উপকরণ আছে বলে মনে হচ্ছে। আনু মুহাম্মদকে তার সুচিন্তিত মতামতের জন্য ধন্যবাদ।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন--

  • ১. স্বনামে বাংলায় প্রতিক্রিয়া লিখুন।
  • ২. ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
  • ৩. প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্তিগত আক্রমণ গৃহীত হবে না।

দরকারি ঘর গুলো চিহ্নিত করা হয়েছে—