Feature Img

Mozammel Babuদৈনিক ‘ডেইলি স্টার’ পত্রিকায় ‘দ্য মিনিং অব নিজামীস ভারডিক্ট’ শিরোনামে প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক কমেন্ট্রিতে নিজামীর মতো যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন করায় শেখ হাসিনাকে সাধুবাদ জানিয়ে পত্রিকাটির সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম লিখেছেন:

‘‘হাউএভার, … থ্যাংক ইউ শেখ হাসিনা।’’

সে সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন:

‘‘হোয়াইল উই ডু নট অ্যাগ্রি উইদ মেনি অব হার ক্লেইমস, ইয়েট হোয়েন সী সেইস দ্যাট ওয়ার ক্রাইমস ট্রায়াল কুডন্ট হ্যাভ বিন হেল্ড উইদাউট হার উই আনহেসিটেন্টলি অ্যাগ্রি, সিম্পলি বিকজ সী ইজ রাইট।’’

মাহফুজ আনামের দেওয়া ‘থ্যাংকস’ এখানেই আর ‘সৎ’ থাকতে পারল না। এত বিশাল ঘটনায় শেখ হাসিনাকে খণ্ডিতভাবে সাধুবাদ জানিয়ে বস্তুত তিনি নিজেকেই মহিমাম্বিত করতে চেয়েছেন। শুধু তিনি যখন ‘রাইট’ মনে করবেন, কেবলমাত্র তখনই শেখ হাসিনা সঠিক, এ ধরনের মানসিকতাকে ‘ম্যাগালোম্যানিয়া’ ছাড়া আর কী বলা যায়? এক কথায় উড়িয়ে না দিয়ে শেখ হাসিনার কোন কোন ‘ক্লেইম’ সম্পাদক সাহেবের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়, তার একটা তালিকা প্রদানও এখানে বাঞ্ছনীয় ছিল, তাতে মাহফুজ আনামের রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির একটা নমুনা পাওয়া যেত।

শেখ হাসিনার দেশ ও দল পরিচালনা নিয়ে নিশ্চয়ই অসংখ্য খুঁটিনাটি প্রশ্ন থাকতে পারে, কিন্তু সামগ্রিক বিবেচনায় তাঁকে ভাগ ভাগ করে ‘পুরস্কার’ কিংবা ‘তিরস্কার’ দেওয়ার কোনো উপায় আজ নেই। তাঁকে অভিনন্দিত করতে হলে সব হারিয়ে ১৯৮১ সালে দেশে ফেরার পর থেকে দল পুনর্গঠন, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ১৯৯৬ ও ২০০৬ সালের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রাম, বিরাজনীতিকরণের মহাপরিকল্পনা পরাজিত করে ২০০৯ সালে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন, যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু, দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি নিশ্চিতকরণ, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষার বৈতরণী পার হওয়া, স্বল্পতম সময়ের মধ্যে সারা বিশ্বের সমর্থন অর্জন এবং শত প্রতিকূলতা অতিক্রম করে যুদ্ধাপরাধের বিচারের অসমাপ্ত কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাওয়া– এ পুরো পথপরিক্রমাকেই এক সঙ্গে ‘স্যালিউট’ দিতে হবে।

কেননা ‘১৯৮১ থেকে ২০১৪’– এ পুরো সময়টা নিয়েই তিনি ধাপে ধাপে নিজেকে একজন ‘স্টেটসম্যান’ হিসেবে গড়ে তুলেছেন। এ দীর্ঘ আন্দোলনে, একটা ধাপ ছেড়ে লাফ দিয়ে আরেকটা ধাপে চলে যাওয়ার কোনো সুযোগ কখনও ছিল না।

কিন্ত মাহফুজ আনাম যখন বলেন, ‘‘ইয়েস, ইট ইজ ট্রু দ্যাট ডিউরিং দ্য ক্যাম্পেইন ফর কেয়ারটেকার গভারমেন্ট ইন মিড নাইনটিজ আওয়ামী লীগ ডিড টেক জামায়াত অ্যাজ অ্যান অ্যালাই’– তখন তার যুক্তির পক্ষপাতিত্বই ফুটে ওঠে। তাহলে তো অনেকেই বলবেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নস্যাতের ষড়যন্ত্রে মাহফুজ আনাম নিজেই জামায়াতের ‘অ্যালাই’ ছিলেন; কেননা তারা উভয়ে অভিন্ন লক্ষ্যেই কাজ করেছেন।

নির্বাচনের ঠিক আগে আগে ‘ডেইলি স্টার’ ও ‘প্রথম আলো’তে একযোগে প্রকাশিত মাহফুজ আনামের চরম আকুতিতে ভরা কমেন্ট্রি ‘‘প্লিজ, এ নির্বাচন করবেন না’’ এবং লাগাতারভাবে টেলিভিশনান্তরে চালানো তার নির্বাচনবিরোধী ক্যাম্পেইন ও ২৯ ডিসেম্বরের গোলটেবিল আয়োজনের তো একটাই উদ্দেশ্য ছিল।

মাহফুজ আনামের দিক থেকে অনেক বেশি সততার কাজ হত যদি তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কার্যক্রম এগিয়ে নেওয়ার জন্য শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ না দিয়ে, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বানচালের লক্ষ্যে নেওয়া তার নিজের কর্মকাণ্ডের জন্য জাতির কাছে আগে দুঃখ প্রকাশ করতেন। শুধু তাই নয়, ২০০৭ সালের ‘মাইনাস টু ফর্মুলা’ বাস্তবায়নে তার কী ভূমিকা ছিল সেটার কৈফিয়ৎও দেশবাসীকে দিতে হবে। আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এবং সেনা-সমর্থনে ড. ইউনূসের ‘নাগরিক শক্তি’ নামে রাজনৈতিক দল গঠনের প্রক্রিয়ার সঙ্গে তিনি কতটুকু জড়িত ছিলেন? সে দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তার দায়িত্ব নেওয়ার তথ্য কতখানি সঠিক?

মাহফুজ আনাম রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। শেখ হাসিনার বেশিরভাগ ‘ক্লেইম’ তার কাছে গ্রহণযোগ্য না হওয়া ও ২০০৭ সালে ‘কিংস পার্টি’ গঠনের পেছনে মুজিবতনয়ার বিরুদ্ধে তার কোনো পুরনো স্কোর সেটেলমেন্টের বিষয় আছে কিনা, সেটাও আজ পরিস্কার হওয়া প্রয়োজন।

বস্তুত ২০০৭ সালের ‘মাইনাস টু কন্সপিরেসি’ নস্যাৎ করা না গেলে এবং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষিত না হলে, যুদ্ধাপরাধের বিচার তো দূরে থাক, বাংলাদেশের স্থিতিশীলতাই আজ প্রশ্নের সম্মুখীন হত। ‘হাউএভার’– সীমাবদ্ধ বিবেচনা থেকে শেখ হাসিনাকে অন্তত একটি খণ্ডিত ‘থ্যাংকস’ দেওয়ার জন্য মাহফুজ আনামকেও এক চিলতে ‘ধন্যবাদ’।

মোজাম্মেল বাবু: সাংবাদিক এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক।

মোজাম্মেল বাবুসাংবাদিক এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক

৪৬ Responses -- “হাউএভার, থ্যাংক ইউ মাহফুজ আনাম”

  1. Najib

    মাহফুজ আনামদের বিচার চাই, অবশ্যই চাই কিন্তু সে সঙ্গে বিচার/শাস্তি চাই সামরিক অভ্যূত্থান প্রত্যাশী ‘সামরিক/বেসামরিক কর্তাদের’। সেটা কে করতে সক্ষম, আমি আগামী নির্বাচনে তাদের ভোট দেব…

    Reply
  2. আশিস বড়ুয়া

    মাহফুজ আনাম খ্যাতিমান সাংবাদিক, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তিনি অন্তত আংশিক সাধুবাদ দিতে বাধ্য হয়েছেন নিজের বিবেকের তাড়নায় হলেও। তার মতো আরও কয়েকজন প্রথম সারির সংবাদ ব্যক্তিত্ব, যারা ক্ষমতাসীনদের সবকিছুতেই গোঁজামিল দেখেন, তাদের উপলব্ধি করা উচিত যে, সমালোচনা করা বা জ্ঞান দেওয়া সহজ, কিন্তু আগাগোড়া একটি শংকর এবং দুর্নীতিপরায়ণ জাতিকে উন্নতির পথে নিয়ে যাবার কাজ করতে গেলে ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকতেই পারে।

    এর গঠনমূলক সমালোচনা করুন, কারও আপত্তি থাকবে না। সবকিছুই যে আপনার মতো করে হতে হবে এমনও তো হয় না। প্রত্যেকের দৃষ্টিভঙ্গি, অবস্থান, দায়িত্ববোধ এবং কাজ পরিচালনা্র ধরন ভিন্ন ভিন্ন হবেই।

    তবে ভালো কাজ, তা সে যিনিই করুন না কেন, তাঁকে অন্তত ধন্যবাদ দিয়ে নিজের উদারতাটুকু প্রকাশ করুন এবং এই ভালো কাজটিতে কিছুটা হলেও অংশীদারিত্ব নিন।

    Reply
  3. Riduan

    মোজাম্মেল বাবু,

    অন্যের দিকে আঙুল তোলার আগে নিজের ব্যক্তিত্ব যাচাই করুন। আপনার মতো সরকারের বার্তাবাহকের কাছ থেকে জনগণ গঠনমূলক সমালোচনা আশা করে না।

    Reply
  4. শোভন

    জনাব বাবু সাহেবের নিকট প্রশ্ন:

    ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে যা যা হয়েছে সেটা যদি বিএনপি করত তাহলে কি উনি বিএনপিকে বাহবা দিতেন? আ্ওয়ামী লীগ যদি বিএনপির জায়গায় থাকত?

    জানি উনি উল্টো কথা বলা শুরু করে দিবেন…

    Reply
  5. Fazlul Haq

    বিএনপি-জামাত নির্বাচনে না গেলে বা ভোট না দিলে সেটা স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকারদের সিদ্ধান্ত। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মানুষ উক্ত স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকারদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে স্বাধীনতা অর্জন করেছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনও ১৯৭১ সালের ন্যায় বাংলাদেশ বিরোধীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ।

    তাই মাহফুজ আনাম ও তার সমর্থকদের দুঃখ মোচন হবে না।

    Reply
    • Jafar

      Fazlul,

      মোজাম্মেল বাবু ‘একাত্তর’ টিভির এমডি। এটি ‘বিটিভি’র ভাই! বিএনপি ক্ষমতায় এলে আবার কোনো এমডি পদের জন্য তিনি কী করেন দেখুন।

      ওযেট অ্যান্ড সি…

      Reply
      • আশিক ভদ্র

        না না, এত বাচালতা কিন্তু আপনাদের কাছ থেকে কেউই আশা করে না। চিহ্নিত কিছু সাংবাদিক আছেন যাদের
        দেশের মানুষ চেনেন, তারা রাজাকারের পয়সায় কলম চালান আর মিডিয়ায় জামাত-বিএনপি’র পক্ষে উকালতি করেন, ‘বুদ্ধিজীবী বুদ্ধিজীবী’ ভাব দেখান।

        তারা সাংবাদিক নন, সাংবাদিক নামের কলঙ্ক। সাংঘাতিক মিথ্যাবাদী। নতুন প্রজন্মের কাছে তারা ঘৃণিত ও আগামী দিনে ডাস্টবিনেই তাদের দেখতে চায়।

  6. মোরশেদ

    মোজাম্মেল বাবুর রাজনৈতিক আদর্শ আমরা সংবাদজগতের মানুষরা কম-বেশি ভালোই জানি। সরকারের অন্দর-বাইরে তার সম্পর্কের বিষয়গুলো অপ্রকাশ নয়। সমস্যা হল, তিনি একাত্তর টিভির প্রশ্নবোধক কর্ণধার হয়ে যোজন যোজন দূরের একজন সম্পাদককে তার সমানে নামাতে চান।

    দলীয় আদর্শ থাকা খারাপ নয়, কিন্তু মাহফুজ আনামের মতো ব্যক্তিকে দলীয় ভাবধারার ‘ধন্যবাদের প্রক্রিয়া’ শেখানোর চেষ্টা মোজাম্মেল বাবুর দলবাজ সম্পাদকের পরিচয়ই আবার তুলে ধরল।

    Reply
    • Prodip

      মোরশেদ,

      কেউ কি রাজনৈতিক আদর্শের বাইরে??? আপনি, আমি, এমনকি মাহফুজ আনাম? তিনি চন্দ্রালোকের রাজনীতি করেন? কাউকে দেবতার আসনে তুলে ফেলাটা কি বাঞ্ছনীয়?

      বুঝলাম বাবু ‘নমশূদ্র’ আর মাহফুজ আনাম ‘কুলীন’! তা বলে তাঁর যৌক্তিক সমালোচনা করা যাবে না???

      মাহফুজ আনামকে এ রকম দেবতুল্য তো ভাবিনি, এমনকি ওঁর চেয়ে অনেক অনেক বড় কাউকেও তো ভাবি না।

      Reply
  7. Prodip

    যাই বলেন বা যাই লেখেন, মাহফুজ আনাম তার অর্কেস্ট্রা বন্ধ করবেন না বলেই নিশ্চিত। কারণ এরা যা বুঝেন, তার চেয়ে খাঁটি কেউ বোঝে না, এটাই তার এবং সঙ্গতকারী আর যারা আছেন তাদের মনোভঙ্গি। অভূতপূর্ব সন্ত্রাস করেও ৫ জানুয়ারির নির্বাচন থামানো গেল না, তার মর্মবেদনার একটাই বহিঃপ্রকাশিত ভাষা হল ‘ভোটারবিহীন নির্বাচন’।

    দিন দিন অহেতুক হয়ে যাওয়া এই শব্দটা তাদের ইতিহাসে রয়ে যাবে।

    Reply
  8. Abdur Razzaj Mreedha

    মোজাম্মেল বাবু ঠিকই বলেছেন– যুদ্ধাপরাধের বিচার সম্পন্ন করার মতো সাহসী কাজ করার পরও শেখ হাসিনাকে যে ভঙ্গিতে ‘ধন্যবাদ’ জানাচ্ছেন মাহফুজ আনাম– তার সমালোচনা করে। বাবু জিজ্ঞেস করেছেন, ব্যালান্স কীসের সঙ্গে? কিছু বুদ্ধিজীবীর ভুয়া ইতিহাস উপস্থাপন নাকি আমাদের মুক্তিযুদ্ধের বিকৃত ইতিহাসের সঙ্গে?

    মি. মাহফুজের জন্য এটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে যে, তিনি প্রজন্মের সামনে সত্যটি তুলে ধরেন। মিথ্যার সঙ্গে ব্যালান্স করার কোনো জায়গা নেই। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আমাদের গর্ব। মু্ক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তির আলোচনা ও মতামতের মধ্যেই ওদের সহজে খুঁজে পাওয়া যায়। আমাদের কিছু ইতিহাস-বক্তাও ইতিহাসকে অহেতুক আরও এনিগম্যাটিক করে তুলছেন।

    যাচাই করার সময় এখনই এসছে।

    Reply
  9. মহসিন

    মাহফুজ আনাম কেমন সে তো জানিই। কিন্তু বাবু সাহেবের এই লেখার উদ্দেশ্য কী? কথা ঘুরেফিরে সেই একটাই। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন জায়েজ করা। এইসব লেখার মূল বক্তব্য হল, আমরা তোমাদের যুদ্ধাপরাধীর বিচার দিচ্ছি, তোমরা আমাদের লুটপাট করতে দাও, ক্ষমতায় থাকতে দাও। মুফতে আমাদের কেউ হবে ব্যাংকের ডাইরেক্টর, কেউ চ্যানেলের মালিক!

    ভয় নেই। কিছু বিষয়ে মোজাম্মেল বাবুরা মাহফুজ আনামদের থেকে অনেক এগিয়ে।

    Reply
    • Jafar

      Mohsin,

      মোজাম্মেল বাবুরা আসলেই এগিয়ে। তিনি তো বিটিভির মতো করে একাত্তর টিভি চ্যানেল চালাচ্ছেন। বিএনপি পাওয়ারে এলই এরা আরেক বার রঙ বদল করবেন… আপনার মতো…

      Reply
  10. Mojahid

    জনাব বাবু সাহেবের মতো লোকদের পক্ষে অনেক কিছু বলা সম্ভব। বলা সম্ভর ৫ জানুয়ারির নির্বাচন সঠিক ছিল!

    Reply
  11. Jafar

    বাবু ভাই,

    একাত্তর চ্যানেল ও বিটিভির মধ্যে আমি তো কোনো পার্থক্য দেখি না। তাই পক্ষপাতিত্ব ছাড়তে পারলেন না!

    Reply
  12. ম্যানিলা নিশি

    বাবু সাহেব,

    ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষিত হল নাকি সংখ্যালঘিণ্ঠ তথা একদলীয় শাসন ব্যবস্থা চালু করার ভিত্তি তৈরি হল সেটি তো আমরা এখন দেখতেই পাচ্ছি!

    Reply
    • sheikh abdur rahim

      আপনি যেমন উপলব্ধি করছেন, তেমনি অনেকেই ভাবেন। কিন্তু বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট ওয়াকওভার দেওয়াতেই এই অবস্থা হয়েছে, তা অস্বীকার করবেন কীভাবে?

      Reply
      • ম্যানিলা নিশি

        আওয়ামী লীগ নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনে বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট অংশ নিলে ফলাফল কী হত সেটা বুঝতে কারও কষ্ট হওয়ার কথা নয়।

        বাড়তি পাওনা হিসেবে আজকে সরকার যে বৈধতার সংকটে আছে তখন তার লেশমাত্র চিহ্নও থাকত না,আর সেটার ফলাফল হত আরও ভয়াবহ!

  13. ফয়সল

    মাহফুজ আনাম তথা এক শ্রেণির সুশীল নামক ভিনগ্রহের প্রজাতির নিরপেক্ষতার মুখোশ উন্মোচনের জন্য ধন্যবাদ মোজাম্মেল বাবুকে।

    আওয়ামী লীগের কোনো ভাল কাজ যারা দেখতে পায় না, শুধুমাত্র সমালোচনা এবং সমালোচনাই যাদের কাজ, তাদের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ পেলে তাদের ধন্যবাদই দিতে হয়। মোজাম্মেল বাবু সেটাই দিয়েছেন।

    Reply
      • Prodip

        জাফর, শুধু একটাই জিজ্ঞাসা–

        ‘ভোটারবিহীন’ টা বলার জন্যেই কী এত ধ্বংসযজ্ঞ করা হয়েছিল? তা না করে যদি ভোটার না যেত তাহলে বিএনপির বলাটা সুন্দর দেখাত না?

        আর বেগম খালেদা জিয়া, যদি এ রকম গোঁ ধরেই থাকেন, সামনেও তো একই কথা চলবে। বাংলাদেশ কি তাহলে থেমে আছে বা থাকবে???

      • Jafar

        Prodip,

        পৃথিবীর কোনো দেশে কি ৫ জানুয়ারির মতো ন্যাকেড নির্বাচন হযেছে? অন্ধ আওয়ামী-সমর্থক! হুম!!!

      • Prodip

        Jafar,

        দুনিয়ার কোথাও কি একটি সাংবিধানিক এবং আইনি নিয়মরক্ষার বিরুদ্ধে এমন সর্বনাশা সন্ত্রাস হয়েছে? ভাই, আপানার কী দরকার, দেশের উন্নতি নাকি জামাতের বরপুত্র তারেকের সম্মতি নিয়ে বিএনপির নির্বাচনে আসা??? দেশ কি তাতে ধন্য হবে!!!

        বিশ্বের বড় বড় গণতান্ত্রিক দেশের এবং স্বদেশের সাধারণের মনের ভাষাটা একটু অনুবাদ করুন– বিএনপি, জামাতি বা বামাতির মতো কথা না বলে।

  14. Mohon

    শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন বলে আমরা এখনও মনে সাহস পাই। বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে কথা বলতে পারি। বিএনপি নেতাদের উচিত ইয়াহিয়া ও টিক্কা খানের কবরের জংলা সাফ করা।

    Reply
  15. হাবীব

    মাহফুজ আনাম যদি তার ভুল বুঝে শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ দিতেন তাহলে ওই ৫ জানুয়ারির কথা তুলে আবার খোঁটা দিতেন না। রিয়ালাইজেশন মানুষের কীভাবে আসে? ব্যাপারটা স্ববিরোধী হয়ে গেল না? একে বলে ‘ব্যালেন্সের রাজনীতি’। যখ্ন যেই পাত্রে পড়ে তার আকার ধারণ করে।

    এইটা ভাইবেন না যে, মাহফুজ আনাম তার ভুল বুঝতে পারছেন।

    এখন চারদিকে আওয়ামী লীগের জয়জয়কার, CIAএর কাছে শত শত ইমেইল, ফ্যাক্স, ফোন অ্যাপয়েন্টমেন্টের পরেও যুদ্ধাপরাধীর বিচার বন্ধ তো দূর, খোদ Ban ki moonই বেল পাননি ফোন করে। এখন তাইলে কী হবে!

    এখন তাইলে মাহফুজ আনামদের মক্কা পরিবর্তন করতে হবে। ইতিহাস ফলো করলে এইসব দেখা যায়, উদীয়মান সূর্যের পূজা দেবার জন্যে কারা সিরিয়ালে লাইন ধরে।

    আওয়ামী লীগ বা শেখ হাসিনার মোটেই উচিত হবে না এই ধন্যবাদে কমপ্লাসেন্ট হওয়া। এটা উপলব্ধি নয়, এটা সুবিধাবাদিতার কৌশল।

    Reply
  16. সৌরভ

    পয়সায় মানুষ বিকে জানতাম, কিন্তু মাহফুজ আনামদের হায়ার করা যায় জানতাম না। কোরবানির গরুর মতো সুশীলদেরও ইদানিং দাম জানতে মন চায়। কত-য় বিক্রি হলেন ‘ডেইলি স্টার’ সম্পাদক?

    Reply
  17. মাকসুদ

    অতিচালাক, ধান্ধাবাজ, সর্বকালে সুবিধাবাদীদের মুখোশ উন্মোচন করার জন্য মোজাম্মেল বাবুকে ধন্যবাদ।

    Reply
    • Jafar

      Maksud

      ৫ জানুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচন ছিল একটি নগ্ন ঘটনা। বিশ্বে উদাহরণ তৈরি করেছি আমরা যে, ১৫৩ জন এমপি কোনো ভোট না পেয়ে নির্বাচিত হয়ে এসেছেন!!!

      এখন জনাব বাবুর মতো মানুষজন নিজেদের আসল রঙ চেনাচ্ছেন। কী লজ্জা!

      Reply
  18. From_Toronto

    মাহফুজ আনামদের মতো লোকজন সব জায়গায়। এরা আসলে ‘ইনকামবেন্ট’, যেদিকে ‘পাল্লা’ ভারি সেদিকে ভোট দেয়। আপনাকে তখন্ই সমর্থন দেবে যখন আপনি সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন পাবেন।

    এরা সুবিধাবাদী!

    আমার মনে হয়, শেখ হাসিনাকে ‘‘থ্যাংকস টু শেখ হাসিনা’’ বলে মি. আনাম প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবার প্রথম পদক্সেপটি নিলেন।

    চলুন দেখি কী হয় আগামীতে।

    Reply
  19. Apu Bhowmik

    ভাই রে, পক্ষপাতিত্ব করেন, কিন্তু যেহেতু আপনি একজন প্রকৌশলী, তাই একটু বিবেকের সঙ্গে আলাপ করে বলেন। যাকে-তাকে যা-তা বলবেন না।

    মনে পড়ে কি মাহ্ফুজ আনাম বনাম খালেদা জিয়ার টিভি প্রশ্নাবলী? দেশে কি কোনো নিরপেক্ষ লোক কথা বলতে পারবেন না?

    Politician, govt official নামক দুর্বৃত্ত ও তাদের দালাল ছাড়াও দেশে ১৬ কোটি মানুষের মাঝে ১৫ কোটি সাধারণ মানুষ তৈরি হচ্ছেন এদের ধরার জন্য। তৈরি হন।

    Reply
    • ashraful islam

      ধরতে চান, ধরুন– কিন্তু আপনি বা আপনার মতন লোকেরা কী যে চান, তাই তো বুঝাতে পারছেন না। হ্যাঁ, সঠিকভাবে এগিয়ে যান, বুঝান!

      আপনারা খুনী-ধর্ষক-বদমাইশদের আলটিমেটলি ক করতে চান, ধর্ম-ব্যবসা বন্ধ করতে চান কি না, সুদ-ঘুষ-দুর্নীতির ব্যাপারে কী ফয়সালা দিচ্ছেন– পরিষ্কার করে বলুন। বলুন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ অতীত এবং বর্তমানের সরকারগুলোর আমলে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়ে তোলা আঙুল ফুলে কলাগাছদের বিরুদ্ধে আপনারা কীভাবে আগাবেন!

      কিন্তু এসব কিছু না বলে– “হাওয়া-পাওয়া ভবন” থেকে গড়ে উঠা কুলাঙ্গার ধনী অথবা যেসব লম্পট খুনীরা ’৭১এ খুন করে, লুট করে, টাকার পুঁজি করে পরবর্তীতে সরকারের আনুকুল্যে বিশাল ব্যবসা-সম্পত্তির মালিক বনে যায়, তাদের বিরুদ্ধে একটি কথাও বলার সৎসাহস আপনাদের আছে কি?

      Reply
      • Jafar

        Asruf

        হাওয়া ভবন তো বাংলাদেশে ছিলই। এখন ইউএসএ’র ‘জয়া’ ভবনে প্রত্যেক টেন্ডারের ১০ শতাংশ চলে যায়। জনগণের ভোট ছাড়া সরকার। কী লজ্জা!!!

    • Prodip

      কথা বলতে কেউ কি মানা করেছে? সবাই তো নিঃসংকোচে বলে যাচ্ছে– আবার বিলাপ করছে, বাকশাল এসে গেছে! কেন এই স্ববিরোধিতা? মাহফুজ আনাম কি সমালোচনার উপরে, এত ‘অ্যাবসলুউট’, নির্ভুল এবং নিরপেক্ষ? এ ভাবনা কোথেকে আসে?

      Reply
  20. Sajal

    ব্রাভো! এক্সিলেন্ট! ধন্যবাদ মোজাম্মেল বাবু।

    বুঝতে হবে যে, কখনও কখনও ‘ভালো’ ছেলেরা বজ্রপাতের ভয়ে ভীত থাকেন আর সামনে এগুতে ভয় পান।

    Reply
    • Jafar

      Sajal

      ভোটারবিহীন নির্বাচনের সরকার… তারা এখন ক্ষমতায় … মি. বাবু এদের কাছ থেকে সুবিধাপ্রাপ্ত। আর তাই তাদের ইস্যুতে এডভোকেসি করছেন।

      Reply
      • আতিক বাবুল

        Jafar,

        আপনার কথার মানে দাঁড়াল জাশি বিম্পিকে নির্বাচনে জিতিয়ে আনালেই আম্লীগএর অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হত!! ধিক্কার আপনাদের, সুশীলতার মুখোশ পরে দিবারাত্র যারা জাশি অার বিম্পির পারপাস সার্ভ করে চলেছেন!

      • Promod

        Atik,

        জাতি নির্বাচনটা করল কোথায়!!! নির্বাচন কেন্দ্রে তো গরু-ছাগল ছাড়া আর কিছুই ছিল না। ভোট ছাড়া নির্বাচিত হয়েছেন ১৫৩ জনেরও বেশি এমপি।

        দয়া করে আয়নায় মুখ দেখুন…

  21. আব্দুস সবুর

    জনাব বাবু, আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    ২০১২-২০১৩ জুড়ে সংবাদমাধ্যমে একটা আবহ তৈরি করতে সচেষ্ট ছিলেন জনাব মাহফুজ আনামসহ একদল খ্যাতিমান সাংবাদিক, আর তাতে ছিল:

    ১. শতকরা ৮০ ভাগ লোক নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়;

    ২. খুনী ধর্ষক রাজাকারদের বিচারের কাজটা যতটা জনস্বার্থে দরকারি, তার চেয়ে বেশি জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরাতে শেখ হাসিনা বিচারের ব্যাপারে অতি আগ্রহ দেখিয়েছেন;

    ৩. যেনতেন প্রকারে হরতাল-আন্দোলন চালিয়ে গেলেও তা সরকারের জনভিত্তি দুর্বল করতে পারে,
    আর আজ?

    ১. শতকরা ৮০ ভাগ লোক নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার চাইলেও এখন আর খালেদা জিয়া তত্ত্বাবধায়কের কথা বলছেন না, বলছেন কেবল নতুন নির্বাচনের কথা।

    ২. বিএনপি ওয়াকওভার দেওয়াতেই আওয়ামী লীগ সহজে পার করে ৫ জানুয়ারি, আর এখন তাদের কী ঠেকা ছিল বিচার চালানোর!

    ৩. আমরা ‘৫২, ‘৬৯ বা ’৯০ এর আন্দোলন দেখেছি, আর তাই কেন ২০১৩ এর হঠকারী আন্দোলন ব্যর্থ হয়েছে তা-ও বুঝি, বুঝতে পারেন না কেবল একদল সাংবাদিক।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন--

  • ১. স্বনামে বাংলায় প্রতিক্রিয়া লিখুন।
  • ২. ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
  • ৩. প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্তিগত আক্রমণ গৃহীত হবে না।

দরকারি ঘর গুলো চিহ্নিত করা হয়েছে—