Feature Img

bidisha-f111আজ যখন এই লেখাটি লিখছি, দেশে তখন হরতাল চলছে। বিএনপি দু’দিনের হরতাল ডেকেছে। সে হিসাবে আগামীকালও হরতাল। কোন দল হরতাল ডাকলে সেটা হলো কি হলো না, তা মাপার কোন বাটখারা নেই। রাস্তায় গাড়ি কতগুলো চললো, দোকানপাট কতগুলো খুললো সে হিসাব রাজনৈতিক দলগুলো করে। সরকারী দল রাস্তা ভর্তি যানবাহন দেখতে পায়, দাবি করে জীবনযাত্রা স্বাভাবিক, হরতাল হয়নি। আর বিরোধীদল রাস্তায় কোনই যানবাহন দেখতে পায় না, তাদের দাবি স্বতঃস্ফূর্ত হরতাল হয়েছে।

কাজেই হরতাল হচ্ছে কি হয়নি, হরতাল মানুষ চায় কি চায় না, হরতাল দেয়া ছাড়া বিরোধীদলের সামনে আর কোন উপায় ছিল কি ছিল না-এসব অন্তহীন বিতর্কে আমি যাবো না। যে কারণে এই হরতাল, অর্থাৎ গায়েব হয়ে যাওয়া ইলিয়াস আলীকে নিয়ে আমি কিছু কথা বলতে চাই।

আজ প্রায় দু’সপ্তাহ হ’তে চললো, ইলিয়াস আলী হারিয়ে গেছেন। গাড়ি নিয়ে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন, বাসায় আর ফিরে আসেন নি। গাড়ি রাস্তায় পড়ে রয়েছে, উধাও হয়ে গেছেন ইলিয়াস আলী আর তার গাড়িচালক। রহস্যজনক এই অন্তর্ধান নিয়ে এ যাবত কথাবার্তা কম হয়নি। বিরোধী দল শুরু থেকেই এ জন্য সরকারকে দায়ী করে আসছে। বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সুস্পষ্টভাবে বলেছেন, র‌্যাব দিয়ে সরকার তাকে উঠিয়ে নিয়ে গুম করে দিয়েছে। আর এর বিপরীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দলীয় নেত্রীর পরামর্শেই আন্দোলনের পরিবেশ তৈরি করে দিতে ইলিয়াস আলী লুকিয়ে আছেন।

এর বাইরেও কিছু কথাবার্তা আছে। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, এ ঘটনায় সরকার নাকি খুবই বিব্রত। এই ভদ্রলোকের সঙ্গে আমার কখনো দেখা হয়নি, তাকে যতটুকু দেখেছি টেলিভিশনের পর্দাতেই। টেলিভিশন আর পত্রপত্রিকায় তার যেসব কথাবার্তা শুনি, তার আলোকে আমার মনে একটা সন্দেহ তৈরি হয়েছে। এই যে ‘সরকার বিব্রত’- এ কথাটি তিনি ঠিক বুঝে বলেছেন তো? মানুষ কখন বিব্রত হয়? যখন কিছু অপকর্ম করে ধরা পড়ে যায়, তখনই তো, নাকি?

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তারা প্রাণান্তকর চেষ্টা করছেন ইলিয়াস আলীকে খুঁজে পেতে। তবে সাগর-রুনি’র হত্যাকারীদের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে খুঁজে বের করার হুঙ্কারের শেষ পরিণতি দেখার পর এই ভদ্রমহিলার কথার আর কোন গুরুত্ব সাধারণ মানুষের কাছে আছে কিনা আমার জানা নেই।

আর সরকারের সবচেয়ে সরব মন্ত্রী হিসাবে পরিচিত আইন প্রতিমন্ত্রী নিজেই আবার পাল্টা প্রশ্ন করে বসলেন, ইলিয়াস আলীকে সরকার কেন গুম করবে? আচ্ছা ভদ্রলোক এই প্রশ্নটি কাকে করলেন? জনগনকে, বিরোধীদলকে, নাকি নিজেদেরকেই?

সরকারী দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে আমার কাছে তুলনামূলকভাবে সংযত ও ধীরস্থির টাইপের মানুষ মনে হয়। তিনি বললেন, তিনি নাকি বিশ্বাস করেন যে ইলিয়াস আলী জীবিত আছেন, এবং সুস্থভাবেই ফিরে আসবেন।

আসলে সৈয়দ আশরাফ উচ্চারিত এই সম্ভাবনার যৌক্তিকতা নিয়েই আমার আজকের এই লেখা। ধরে নিলাম, ইলিয়াস আলী সুস্থ আছেন, এবং তিনি সুস্থভাবেই ফিরে আসবেন। কিন্তু তিনি কিভাবে আসবেন? বোবা হয়ে আসবেন, নাকি এসে সরব হবেন? স্মৃতিভ্রষ্ট হয়ে আসবেন, নাকি ফিরে এসে মাঝের এই দিনগুলোর প্রতিটি মুহূর্তের পুঙ্খানুপুঙ্খ বর্ণনা দিতে পারবেন? নাকি যা ঘটেনি, তারও বিশ্বাসযোগ্য বর্ণনা দিতে শুরু করবেন?

এতসব প্রশ্নের মধ্যে, সবচেয়ে জরুরি কিন্তু প্রথমটি। কিভাবে ফিরে আসবেন তিনি? তার গায়েব হয়ে যাওয়ার পেছনে যে কারণ অথবা সম্ভাবনাগুলো থাকতে পারে, সেগুলোর দিকে বরং একবার তাকানো যাক।

গায়েবের সম্ভাব্য কারণ, এক: ইলিয়াস আলী তার নেত্রীর পরামর্শ অনুযায়ী আন্দোলনের ইস্যু তৈরির জন্য নিজে থেকেই লুকিয়ে আছেন। দেশের প্রধানমন্ত্রী নিজেই এই কারণটিকে বিশ্বাস করেন। ধরে নিলাম এটাই সত্য। তাহলে, লুকিয়ে থাকা ইলিয়াস আলী এখন কী করবেন? তিনি কি তার নেত্রীর পরবর্তী পরামর্শের অপেক্ষায় আছেন? বেগম খালেদা জিয়া যখনই বলবেন, বের হয়ে আসবেন তিনি? কিন্তু সেটা কিভাবে সম্ভব? বের হয়ে এসে কী বলবেন তিনি? বলবেন, নেত্রীর নির্দেশেই গা-ঢাকা দিয়ে ছিলেন এতদিন? তাহলে কি বিএনপি’র আর কোন রাজনীতি থাকে?

গায়েবের সম্ভাব্য কারণ, দুই: র‌্যাব অথবা অন্য কোন বাহিনী দিয়ে ইলিয়াস আলীকে সরকার তুলে নিয়ে গেছে। বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপি’র নেতারা বলেছেন এই কথা। এটি যদি সত্য হয়, তাহলে ইলিয়াস আলী ফিরে আসবেন কিভাবে? যারা তুলে নিয়ে গেছে তারা যদি তাকে ছেড়ে দেয়, কেবল তাহলেই তার ফিরে আসা সম্ভব। কিন্তু তা কি তারা করবেন? কোন ভরসায় করবেন? মুক্ত ইলিয়াস যখন মুখ খুলবেন, তখন কোথায় যেয়ে নামবে সরকারের ভাবমূর্তি? সরকার কি সেই ঝুঁকি নেবে?

গায়েবের সম্ভাব্য কারণ, তিন: নেত্রীর পরামর্শে নয়, সরকারের বিশেষ বাহিনীর মাধ্যমেও নয়, ইলিয়াস আলী নিজ দায়িত্বেই লুকিয়ে আছেন। শুরুতে হয়তো ভেবেছিলেন, হারিয়ে যাওয়া নিয়ে তার এলাকায় হৈচৈ হবে, তার জনপ্রিয়তা বাড়বে, তারপর একসময় সুবিধামত সময়ে বের হয়ে আসবেন। তর্কের খাতিরে এটাকে যদি সত্য বলে ধরে নিই, তাহলেও কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে, কিভাবে নিজের লুকানো জায়গা থেকে বের হয়ে আসবেন তিনি? বের হয়ে এসে কি ব্যাখ্যা দেবেন নিজের এ কয়দিনের অবস্থান সম্পর্কে? সরকারের উপর দায় চাপাবেন? কিন্তু সেটা কি প্রমাণ করা সম্ভব হবে? যদি প্রমাণ করতে না পারেন, তাহলে নিজের রাজনীতির আর কি কিছু অবশিষ্ট থাকবে?

গায়েবের সম্ভাব্য কারণ, চার: তার কোন ব্যক্তিগত প্রতিদ্বন্দ্বীর কাজ এটা, তারা-ই অপহরণ করিয়েছে ইলিয়াস আলীকে? সেক্ষেত্রে একটা প্রশ্ন কিন্তু থাকছেই, সেরকম কিছু হলে গাড়িচালকসহ অপহরণ করা হবে কেন? তারপরও যদি ধরে নেয়া যায়, এরকমই কিছু একটা হয়েছে, সে ক্ষেত্রেও কিন্তু ইলিয়াসের ফিরে আসা যথেষ্ট জটিল। পরিস্থিতি ইতোমধ্যে এতটা জট পাকিয়ে গেছে, অপহারণকারীরা এখন যদি চায়ও যে তারা ইলিয়াসকে ছেড়ে দেবে, সেটাও সম্ভব হবে না। তখন তাদের নিজেদের জীবন নিয়েই টানাটানি শুরু হয়ে যাবে।

গায়েবের সম্ভাব্য আরও বেশ কিছু কারণের কথা হয়তো বলা যেতে পারে। কিন্তু প্রতিটা ক্ষেত্রে সমস্যা ওই একটাই, সমাধানের কোন সহজ কোন পথ নেই। শুরুতে হয়তো কোন পথ ছিল, কিন্তু দিন যতই যাচ্ছে সে পথ ততই জটিল হতে হতে অসম্ভবের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

ইলিয়াস আলী’র এই হারিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনীতির মাঠেও হয়তো নানা সমীকরণ এখন চলছে। হচ্ছে লাভ-ক্ষতির হিসাব। এক পক্ষের লাভ হবে, আর এক পক্ষের ক্ষতি, কারও জন্য হয়তো আবির্ভূত হবে বুমেরাং হিসাবে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা হয়তো চুলচেরা হিসাব করে লাভ-ক্ষতির সে পরিমাণ বেরও করে ফেলতে পারবেন। কিন্তু আমি ভাবছি অন্য কথা, কী চলছে এখন ইলিয়াস আলী’র স্ত্রী-সন্তান-পরিবারের জীবনে?

রাজনৈতিক বিচারে ইলিয়াস আলী একজন পরিচিত লোক। কিন্তু তাকে আমি চিনতাম না, এমনকি তার সম্পর্কে তেমন কোন ধারণাও আমার ছিল না। গত কয়েকদিনে তাকে নিয়ে যখন হৈচৈ শুরু হলো, তখন তার সম্পর্কে জানতে চেষ্টা করলাম। বিভিন্ন লেখালেখি থেকে যে চিত্র পেলাম, তাতে জাতীয় রাজনীতিতে তাকে খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ কোন ব্যক্তিত্ব বলেও মনে হয়নি। তার অতীত রাজনৈতিক পথ পরিক্রমাও যে খুব একটা নিষ্কলঙ্ক ছিল, সেটাও হয়তো বলা যাবে না।

কিন্তু তারপরও স্ত্রী’র কাছে, সন্তানের কাছে তার অবস্থান সকল প্রশ্নের উর্ধ্বে। স্বামীর অনিশ্চিত এই অবস্থান নিয়ে লুনা’র মনে এখন কী চলছে, তা কি আমরা কখনো বুঝতে পারবো? এই ভদ্রমহিলাকে এখন যদি তার স্বামীর মুক্তির জন্য অনেকগুলো শর্ত দেয়া হয়, আমি নিশ্চিত চোখ বুজে তার সবগুলোই তিনি মেনে নেবেন। রাজনীতির চেয়েও তার কাছে কয়েক হাজার গুণ বড় তার সংসার, তার স্বামীর জীবন। এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?

বিদিশা: ফ্যাশন ডিজাইনার ও লেখক।

১৭৭ প্রতিক্রিয়া -- “ইলিয়াস আলী কিভাবে ফিরে আসবেন?”

  1. বিধান পাল

    আজ আড়াই বছর পরও ফিরে আসেননি ইলিয়াছ আলী। এই ব্যাপারে সরকারের মাথাব্যথা আছে বলে মনে হয় না। রাজনীতিবিদদের যদি এই অবস্থা হয়, সাধারণ জনগণের কী হবে ভেবে দেখুন তো।

    রাজনীতিবিদরা বুঝাতে চান রাজনীতিতে আসুন বাড়ি, গাড়ি, আধিপত্য– সব হবে। এমনকি খুন, গুমের জন্যও আন্দোলন, হরতাল হবে। রাজনীতি না করলে কোনো বিচার পাবেন না। এমনকি রাষ্ট্রও কোনোা সহযোগিতা করবে না।

    সাধারণ জনগণ কোনো বিচার পায় না, তবু তারা তেমন এগিয়েও আসে না।

    জবাব
  2. ferdous

    বিদিশাকে অনেক ধন্যবাদ গবেষণাভিত্তিক লেখাটির জন্য।

    জবাব
  3. Raj Kisku

    সাগর-রুনি মানুষ না। শুধু ইলিয়াস আলী হচ্চেন মানুষ। তাই ইলিয়াস আলীকে নিয়েই শুধু তোলপাড়। সাগর-রুনির জন্য কিছুই করা হল না। আমরা যে দেশের জনগন আছি, আসলে আমরাই বোকা। যখন দেখবেন আপনি গুম হয়েছেন বা আমি গুম হয়েছি বা কেউ হত্যা করছে তখন কিন্তু কেউ আগাবে না। তবুও আমরা তাদেরকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছি। তবে হ্যাঁ আপনি যদি রাজনীতি করেন তাহলে অন্য কথা। আপনি দ্রুত সেলিব্রেটি হয়ে যাবেন। তাই আপনি যদি সেলিব্রেটি হতে চান, রাজনীতি করুন। সাধারন জনগনের জন্য এই দেশ না (মনে হয়)।

    জবাব
  4. আবদুস সোবহান বাচ্চু

    ‘ঈশ্বর’ ছবিটা দেখার আগে অনিল কাপুরকে খুব সাধারণ একজন মারদাঙ্গা অভিনেতা মনে করেছিলাম। কিন্তু ‘ঈশ্বর’ ছবিটা আমার সে ভুল শুধরে দেয়। আজ বিদিশার এ লেখাটি পড়েও আমার একটি ভুল শুধরে গেল। ধন্যবাদ বিদিশা আপনাকে।

    জবাব
  5. তৌহিদ

    বিদিশা….

    শুভেচ্ছা রইল।
    আপনার লেখার অর্থ অত্যন্ত সুস্পষ্ট।
    একজন মানুষের বিয়োগ মোটেই আনন্দদায়ক নয়। তবে প্রকৃতিগতভাবে সকল বিয়োগ মানুষের সহ্য ক্ষমতার মধ্যে। কিন্তু মানুষ যেখানে মানুষের জীবনের শত্রু, সেখানে আপনার এই মূল্যবান লেখা অনেকের সময় কাটানোর টপিক মাত্র। আপনার লেখা আজকের সারাদিনের ক্লান্তি দূর করেছে, মস্তিস্ক নতুন করে খাটুনি শুরু করে দিয়েছে। আপনার লেখার জন্য শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি।

    জবাব
  6. Golam Rahman

    আপনার গভীর পর্যবেক্ষণ আর সাবলীল লেখার জন্য ধন্যবাদ।

    জবাব
  7. Desh Premic

    যাক, বুঝতে পারলাম আপনি খুব ভালো লেখক। এমন একটা থিসিসধর্মী লেখার জন্য ধন্যবাদ। চালিয়ে যান।

    জবাব
  8. md abdul momin akanda

    বিদিশা আপা. আপনার মন্তব্য বিশ্লেষণ পড়লাম। আপনি ইলিযাস আলীর নিখাঁজ প্রসঙ্গে জনাব সৈয়দ আশরাফ আলী সাহেবের মন্তব্য নিয়ে অনেক প্রশ্ন করেছেন । আমার বক্তব্য, জনাব আশরাফ আলী বলেছেন তিনি বিশ্বাস করেন যে ইলিয়াস আলী জীবত আছেন। তিনি ফিরে আসবেন এই প্রত্যাশাও তিনি ব্যক্ত করেছেন। কেননা কোন বিবেকবান রাজনীতিবিদ চাইবেন না যে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের একজন নেতা গুম হন বা তার জীবন বিপন্ন হোক। আমি মনে করি তার মন্তব্য এবং আশা অত্যন্ত যৌক্তিক। তিনি, তার দল তথা সরকার চান যে কোন মূল্যে ইলিযাস আলীকে জীবত ফিরিয়ে এনে তার পরিবার এবং তার স্ত্রী লুনার হাতে তাকে ফেরত দেওয়া। এর চেয়ে মানবিক মূল্যবোধের আর কী পরিচয় দেবেন আশরাফ সাহেব? ইলিযাস আলীকে জীবিত ফিরিয়ে আনার জন্য সহযোগিতাও চেয়েছেন তিনি বিরোধী দলের কাছে। কিন্ত সে সহযোগিতা আদৌ দেবার ইচ্ছা বিএনপির আছে কি?
    দেশবাসী এটা স্পষ্ট বুঝতে পেরেছে যে বর্তমান বিএনপির বড় প্রয়োজন সরকারকে রাজৗনতিকভাবে বিপদে ফেলা। পরপর পাঁচদিন হরতাল দিয়ে দেশ অচল করে দিয়েছে যা মোটেই কাম্য ছিল না। আমার প্রশ্ন, বিএনপি যেভাবে হরতাল দিয়ে সরকারকে তটস্থ রেখেছে, এ অবস্থায় পুলিশ বা সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা বাহিনী হরতালের ষড়যন্ত্র রুখবে নাকি যে কোন মূল্যে ইলিয়াস আলীকে উদ্ধার করবে? সে সুযোগ তো সরকারকে দিতে হবে। আমাদের প্রশ্ব বিএনপি আদৌ কী চায় তা বোঝা মুসকিল। ইলিয়াস আলীকে উদ্ধারই কি মূল বিষয় নাকি এটা সরকারকে হেয় প্রতিপন্ন করার একটা কৌশল মাত্র। জনগণ চায় ইলিয়াস আলী আমাদের মাঝে জীবিত ফিরে আসুন। কারণ শুধু তাকে কেন্দ্র করে যেভাবে এ ক’দিন হরতাল দিয়ে দেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করা হচ্ছে, সম্পদ ধংস করা হচ্ছে, ব্যবসা-বাণিজ্যের পথ রুদ্ধ করা হচ্ছে, তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। প্রতিবাদের আরও পথ আছে। বিএনপি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দেশের চলমান গতিকে দিকভ্রান্ত করে ফেলেছে।
    তাতে মনে হয় ইলিয়াসকে তারা ফেরত চান না, তাদের মূল উদ্দেশ্য হারানো ক্ষমতা ফিরে পাওয়া এবং তাদের প্রিয় দোসর ‘৭১র যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পথ রুদ্ধ করা। মানুষ এখন উন্নয়নমুখী। তাছাড়া বর্তমান সরকার দেশের সার্বিক উন্নয়নে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। বিশেষ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সবসময় দেশ এবং মানুষের উন্নয়নের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন। ইলিয়াস আলীর স্ত্রী সাংবাদিকদের সামনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের প্রত্যাশা ব্যক্ত করলে তিনি তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই আন্তরিকতার জন্য তাকে অশেষ ধন্যবাদ।
    বিদিশা আপা, আপনার মন্তব্যের সূত্র ধরে অনেক সত্য বলার চেষ্টা করেছি নিরপেক্ষভাবে। আপনাকে ধন্যবাদ ।

    জবাব
  9. ATAULLAH.SAMRAT

    রাজনীতির চেয়েও তার কাছে কয়েক হাজার গুণ বড় তার সংসার, তার স্বামীর জীবন। এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?

    জবাব
  10. Md Abu Nayem Bhuiyan

    ‌আমার মনে হয় যে, ইলিয়াস আলীকে আর পাওয়া যাবে না। তবে এইে লেথাটির জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

    জবাব
  11. tasnim

    ইলিয়াস বলে হয়ত এত কথা হচ্ছে। এ পর্যন্ত স্বাধীন বাংলাদেশে কত হাজার মানুষ যে গুম, গুপ্ত হত্যা,ক্রসফায়ার আরো কত নামে বেনামে অপমৃত্যুর শিকার হল…….. যে কোন সময় আমরা যে কেউ গুম হয়ে যেতে পারি। প্রত্যেক হত্যাকাণ্ডের রং একই, বেদনায় নীল হয়ে যাওয়া প্রতিটা হৃদয়ের মাতম অভিন্ন। যার যার পোনা তার তার সোনা। যার যায় সে জানে। ইলিয়াসকে নিয়ে কথা বলা হচ্ছে এটা অবশ্যই ভাল দিক । সমস্যা হচ্ছে আমাদের মিড়িয়া এবং পাবলিক কেবল ইলিয়াসদের নিয়ে কথা বলতে জানে।

    জবাব
  12. lina

    খুব বিশ্লেষনাত্বক লেখা– সবার একই প্রশ্ন –কি হবে শেষ র্পযন্ত?
    নাকি সাংবাদিক দম্পতির মতই এক সময় মিলিয়ে যাবে নিরবে?
    অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    জবাব
  13. Mahbub Alam

    বিদিশা মেমের লেখাটি অত্যন্ত যুক্তিযুক্ত ও বিশ্লেষনধর্মী। এখানে ইলিয়াস গুমের অনেকগুলো যুক্তি তুলে ধরা হলেও একটি যু্ক্তি উল্লেখ করা হয়নি। আর তা হচ্ছে, দেশে বর্তমানে যুদ্ধাপরাধের বিচার কার্য চলছে। আর তার রেশ ধরে বিচার কার্য বানচাল করার জন্যও ইলিয়াসকে গুম করতে পারে। তা ভুলে গেলে চলবে না।

    জবাব
  14. AFM Moyeen

    অত্যন্ত সহজ কথার মাধ্যমে খুবই চমত্কার লিখেছেন এবং যা সকলের কাছেই বোধগম্য l আপনার লেখা বজায় রাখবেন আশা করি l

    জবাব
  15. কামরুল আহসান

    ম্যাডাম ভালো লিখেছেন। ইলিয়াস আলী বাংলাদেশের জন্য ইতিহাস হয়ে থাকলেন। যে কোনভাবেই একজন মানুষ গুম হতে পারেন। এটা অস্বাভাবিক কোন বিষয় নয়। তাকে ফিরিয়ে দিতেই হবে- এ দাবিটি একগুয়ে । সরকারী দলের পক্ষ থেকে দেশে অব্যাহত গুম হত্যা বন্ধে দলমত নিবিশেষে সকলের সহযোগিতা চাওয়া এবং আলোচনার ব্যবস্থা করা/ কঠোর আইনগত অবস্থান নেয়ার দৃঢ় অংগীকার করা যেতে পারতো। কিন্তু গণতান্ত্রিক এ দেশিটতে দুই পক্ষ দুই অবস্থানে থেকেই কথা বলছেন যা অপ্রত্যাশিত। ‌‌’গুম’ সমস্যাটি সকলের জন্যই আতঙ্কের। যে কোন মূল্যে এর চর্চা বন্ধ হোক। পরম করুনাময় আল্লাহর কাছে এটিই সর্বশেষ কামনা।

    জবাব
  16. Mamun

    আমার মনের কখা আপনি লিখলেন কিভাবে আপু? ধন্যবাদ আপনাকে
    আমার ধারনা আল্লাহ না করুন তিনি জীবিত নাই। কারন এটা এখন একটা জাতীয় ইস‌্যু হয়ে গেছে। সে যার দ্বারাই অপহ্রত হন না কেন ধরা পড়ার শংকায় তাকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলবে। আর এটাই স্বাভাবিক। সরকার জড়িত থাকলে অনেক আগেই ক্রস ফায়ার হয়ে গেছে।

    জবাব
  17. Mon Majhi

    এ রকম চিন্তা কিন্তু অনেকেরই মাথায় এসেছে,তবে এত সাবলীলভাবে কেউ কিন্তু প্রকাশ করতে পারেনি।
    আসুন সবাই গনতন্ত্রের মজা নিতে থাকি আর চমকের অপেক্খায় থাকি।

    দেশ চলতে থাকুক আপন গতিতে।
    আর আমরা এর করুন পরিণতির অপেক্ষায় থাকি।
    ভাল থাকুক সবাই।
    মন্দের ভাল আর কি।

    জবাব
  18. Fokhrul Islam Khan (Biswanath, Sylhet)

    বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিশ্বনাথ-বালাগঞ্জ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলী নিখোঁজের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলছি-কাল বিলম্ব না করে ইলিয়াস আলীকে খুঁজে বের করে পরিবারের কাছে সুস্থ অবস্থায় ফিরিয়ে দিন। দেশের প্রতিটি নাগরিকের জান-মালের নিরাপত্তা প্রদানের দায়িত্ব সরকারের।

    জবাব
  19. kamrul Islam

    অসাধারণ বিশ্লেষন, পড়লে মনে হয় একজন পরিপক্ক বিশ্লেষক, রাজনিতীবিদরা যদি এইভাবে প্রতিটা বিষয় নিয়ে চিন্তা করত তাহলে হয়তো দেশের সমস্যা অনেকাংশে কমে যেত। ধন্যবাদ আপনাকে এত সুন্দর গুছিয়ে লিখার জন্য।

    জবাব
  20. Lutfi haider Chowdhury

    ধন্যবাদ সবাইকে, ইলিয়াস আলী বিতর্কিত আমরা সবাই জানি কিন্তু দেশের সৎ ও অসৎ সব নাগরিককে নিরাপত্তা দেবার কর্তব্য সরকারের।

    জবাব
  21. dip

    আমরা যারা সাধারন মানুষ আছি তারা কী করব। তবে এটাও ঠিক যে একটা মানুষ এভাবে গুম হতে পারে না।

    জবাব
  22. Azad

    তবে সরকার তাকে থুঁজে বের করতে পারলে তা হত বড় সাফল্য, সরকারের ইমেজের জন্যই এটা জরুরী ছিল,এখন মনে হচ্ছে আমাদের কোন সরকার বা আভিবাবক নেই; যাহোক সহ্জ কথাই বলা হযেছে সহজে,লেখিকাকে ধন্যবাদ।

    জবাব
  23. Mohiuddin Kader

    Mohiuddin Kader , Dhaka.

    বিদিশা আপু, আপনি খুব সাবলীল ভাবে ঘটনাগুলো বিশ্লেষন করেছেন। ধন্যবাদ, আপনার সুন্দর এবং প্রাসঙ্গিক আলোচনার জন্য।

    জবাব
  24. mamun

    এই ধরনের রাজনীতি আমরা আর দেখতে চাই না। উত্তম সমাধান হচ্ছে প্রধান দুই দল মুখোমুখি অস্ত্র নিয়ে যুদ্ধ করুক।

    জবাব
  25. জাহেদুর রহিম লিটন

    ধন্যবাদ,আপনার এই চমৎকার লেখার জন্য।তবে ইলিয়াস আলীকে জীবিত উদ্ধার করতে না পারলে বর্তমান সরকারকে ব্যর্থতার দায়ভার অবশ্যই বহন করতে হবে। এবং যার কুফল ভোগ করবে এদেশের আপামর জনগণ।

    জবাব
  26. শাহজাহান সানু

    ইলিয়াস আলী গুম হয়েছেন বা হারিয়ে গেছেন-এখানে কি রাষ্ট্রের কোন দায়িত্ব আছে? একজন নাগরিকের জীবনের নিরাপত্তা দেয়ার দায়িত্ব অবশ্যই রাষ্ট্রের। কিন্তু রাষ্ট্র যদি এই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয় তাহলে তার অস্তিত্বের সংকট দেখা দিবে। ব্যক্তি স্বার্থের রাজনীতি একটি রাষ্ট্রের উন্নতি ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে কি রকম প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে তা বাংলাদেশের দিকে তাকালে স্পষ্ট হয়ে ওঠে। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এই দেশের স্বাধীনতাকে বিপন্ন করে তোলার দায়িত্ব কে দিয়েছে এই সকল তথাকথিত দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদদের? আমরা শান্তি চাই, স্বস্তি চাই, নিরাপত্তা চাই- এটা দিতে যদি রাষ্ট্র ব্যর্থ হয় তাহলে রাষ্ট্রের ক্ষমতা ও সম্পদ ভোগকারীদের দায়িত্ব কী?

    জবাব
    • saima

      আসলে আমি লেখিকার সাথে একমত পোষণ করে বলতে চাই ”রাজনীতির চেয়েও লুনা’র কাছে কয়েক হাজার গুণ বড় তার সংসার, তার স্বামীর জীবন। এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?

      জবাব
  27. রেজা

    অনেক গোছানো একটা লেখা। ধন্যবাদ আপনাকে দিতেই হবে এত সুন্দর বিশ্লেষনের জন্য। আ্শা করছি এই ধরনের লেখা চালিয়ে যাবেন নিয়মিত।

    জবাব
    • feroz

      আমি মনে করি দেশ এখন ক্রান্তিলগ্নে তাই দেশের স্বার্থে অতি শিঘ্রই এর সমাধান দরকার।

      জবাব
  28. Rajab Ali

    খুব প্রাসঙ্গীক এবং যুক্তিপূর্ন লেখা। নেতারা এটা বুঝতে পারলে দেশের এবং জনগনের উপকার হতো। লেখিকাকে ধন্যবাদ।

    জবাব
    • আলী আহমেদ সরকার

      আসলে আমাদের দেশের বর্তমান যে সংঘাতময় রাজনীতি তাতে কি জনগণ কোন উপকার পাচ্ছে?আসুন আমরা সংঘাতময় রাজনীতি পরিহার করি দেশ ও জনগণকে রক্ষা করি আর এক হয়ে কাজ করি।

      জবাব
  29. Arshaduzzaman

    ধন্যবাদ ম্যাডাম, আপনার চিন্তা-চেতনা যৌক্তিক ও সহজে বোধগম্য। আশা করবো আপনার অমূল্য গুরুত্বপূর্ণ লেখা আমরা দেশবাসী প্রতিদিন পাবো।

    জবাব
  30. sayed

    ধন্যবাদ বিদিশা আপু, আপনার সুন্দর এবং প্রাসঙ্গিক আলোচনার জন্য। আমিও ঠিক আপনার মত এ ভেবে চিন্তা করেছি। আপনি খুব সাবলীল ভাবে গত ১০ /১১ দিনের ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলো বিশ্লেষন করেছেন।

    Sayed

    জবাব
  31. Md. Nizam Uddin

    নীতির রাজ। রাজনীতি, রাজার নীতি।
    যে রাজনীতি সংসার বিনষ্ট করে দেয় সেই রাজনীতি আমরা চাই না ।

    জবাব
  32. raghu nath paul

    ধন্যবাদ বিদিশা আপু, আপনার গঠনমূলক সমালাচনার জন্য । আমরা সবাই চাই এ সংকট থেকে উত্তরনের উপায়। আপনি যদি উত্তরনের জন্য কিছু পরামর্শ দিতেন তাহলে তা হতো দেশের জন্য খুবই কল্যানকর । আশা করি আপনি বিষয়টি বিবেচনা করবেন ।

    জবাব
  33. salim chowdhury

    আপনার কলমে ধার আছে, জাতির ক্রান্তি লগ্নে লিখবেন,বলবেন অন্তরালের চালচিত্র কেন এমন হয়। বিবেকের তাড়নায় কলম ধরায় ধন্যবাদ।

    জবাব
  34. 7 samurai

    কারন ১, ২, এবং ৩। খুবই দুর্বল মোটিভ।
    কারন ৪ – ব্যক্তিগত রাজনীতিক, ব্যবসায়িক, প্রতিশোধমূলক (বর্তমান এবং পুর্ব শত্রুতার জেড় ধরে)। অনেক মোটিভ আছে। অনেক সম্ভাবনা। ইলিয়াস আলীর পূর্ব ইতিহাস ভালো নয় বলেই জানি।
    আরো কারন: জামাত-শিবিরের সংশ্লিষ্টতা, যেটা বলা হয়নি। জোড়দার মোটিভ। উড়িয়ে দেওয়া যায়না। জামাত বিএনপিকে আন্দোলনের জন্য মাঠে নামাতে পারছিলো না। জামাত একটা ইসু বানিয়ে দিলো। এটা হলে জামাত এক ঢিলে ৪ পাখী মারলো।

    ইলিয়াস আলীর চেয়ে বড় মাপের অনেক নেতা এবং ভালো লোক হারিয়ে গেছেন অথবা খুন হয়েছেন। আরো হবে, বিভিন্ন কারনে।

    জবাব
  35. জয়

    বিদিশা, আপনি শুধু ইলিয়াস আলীর স্ত্রী এবং তার পরিবারের কথা বললেন, কিন্তু ইলিয়াস আলীকে কেন্দ্র করে হরতালের সময় যে ৫টি প্রান গেল তাদের কথা বললেন না। তাছাড়া উনার ড্রাইভারের কথা এখনও কেউ বলে নাই। আমি যতটুকু জানি ইলিয়াস আলী সাহেবের পরিবার অনেক সচ্ছল, উনার অনুপস্তিতিতে উনার পরিবারের সদস্যদের কোন আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে পড়তে হবেনা। দেখা যাচ্ছে ম্যাডাম খালেদা জিয়া উনার পরিবারকে মোটা অঙ্কের টাকা দান করবেন। কিন্তু যে ৫টি লোক মারা গেল তাদের পরিবারের কী হবে? কেন এক ইলিয়াস আলীর জন্য ৫ লোককে মরতে হবে? সাধারণ মানুষের জীবনের কি কোন দাম নাই? কেন BNP বার বার হরতাল ডেকে দেশের মানুষকে কষ্টের মধ্যে ফেলবে? অতীতে কি হরতাল দেওয়ার মত কোন ইস্যু তৈরি হয় নাই? উনারা কি ইচ্ছা করলে শেয়ার মার্কেট কেলেঙ্কারির জন্য হরতাল দিতে পারত না? উনারা কি সাগর রুনির হত্যার জন্য হরতাল দিতে পারত না? উত্তরঃ পারত, কিন্তু দিবে না। কারণ এসব ইস্যুতে উনাদের কোন স্বার্থ নাই অথবা উনারা ক্ষমতায় আসলেও এরকম হতে পারে অথবা এটা সাধারণ মানুষের স্বার্থ। ছি……আওয়ামী লীগকে,ছি…… বিএনপিকে।

    জবাব
  36. Rokib

    আপনাকে ধন্যবাদ সুন্দুর একটি মতামতের জন্য। আমরা সাধারণ জনগণ যেমন চাইনা ইলিয়াসের মত এরকম কেউ গুম হয়ে যাক আবার এও চাইনা দেশের চরম ক্ষতি করে এরকম হরতালের নামে গাড়ী ভাংচুর,গাড়িতে আগুন ও সাধারণ মানুষের চরম ভোগান্তি। ইলিয়াসের পরিবারের কাছে যেমন ইলিয়াস গুরুত্বপূর্ণ ঠিক সেরকমই গুরুত্বপূর্ণ সেই ড্রাইভারের পরিবারের কাছে সে যাকে ঘুমন্ত অবস্থায় পুড়িয়ে মারা হলো । এক জনের জীবনের জন্য আমারা আরেক জনের জীবন নিতে পারিনা। কারণ সকল জীবনের মূল্যই সমান। আমরা সাধারণ জনগণ চাই এরকম রাজনীতির একটি সুষ্ঠু সমাধান। আর কোন ইলিয়াস যাতে গুম হয়ে না যায়, আর কোন ড্রাইভারকে যাতে ঘুমন্ত অবস্থায় পুড়ে মরতে না হয় এর গ্যারান্টি আমরা দুই দলের কাছেই চাই। একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকার জন্য একটি গণতান্ত্রিক দেশের রাজনৈতিক দলের কাছে খুব বেশি কি চেয়ে ফেললাম?

    জবাব
  37. Taskina

    আমরা এখন এক অদ্ভূত গ্যাঁড়াকলে পড়ে গেছি। এর থেকে বেরোবার উপায় নিয়ে লেখক, বুদ্ধিজীবীদের ভাবতে হবে। তা না হলে আবার স্যার নিনিয়ানের মতো বিদেশী প্রভুরা মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে। আমাদের এখন এক সঙ্গে অনেকগুলো সমস্যার সমাধান দরকার। এর মধ্যে ইলিয়াসকে খুঁজে বের করা সবচেয়ে প্রথম দরকার।

    জবাব
  38. জইফ জাহান

    লেখাটাতে মানবিকতার ছোঁয়া আছে। যুক্তিগুলো নিয়া ভাবা যায়। অনেক মন্তব্য দেখলাম, অনেকে দেশের কথা বললেন। আমি বলি দেশ কোথায় ? ওকেতো আমাদের নেতারা গনিকা বানিয়ে ছেডেছে। আই এস আই, র, ভারত, যখন তখন করিডর, ট্রান্সিট আরো কত নামে লুটে চলেছে। ভোগ করছে। ইইউ,আমেরিকা এমন কি চীন জাপান । নিজেদেরকে মনে হয় দেশের নাজায়েজ সন্তান। আর কতদিন? আমরা কি জাগবো না ?

    জবাব
  39. Abdul Mannan

    ধন্যবাদ বিদিশা আপু, আপনার সুন্দর এবং প্রাসঙ্গিক আলোচনার জন্য। আমিও ঠিক আপনার মত এ ভেবে চিন্তা করেছি। আপনি খুব সাবলীল ভাবে গত ১০ /১১ দিনের ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলো বিশ্লেষন করেছেন।

    জবাব
  40. Bivas Biswas

    এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?

    but নারীরাই এই রাজনীতির কেন্দ্র বিন্দুতে অধিষ্ঠিতা ।। আর নারীরাই ……….

    জবাব
  41. ফাহিম

    ধন্যবাদ, বিদিশা আপুকে ধন্যবাদ এই আর্টিকেল লেখার জন্য। আসলে যদি লিখতে যাই তো এ বিষয় নিয়ে অনেক কিছু লেখা যায়। আজকাল ইন্টারনেট বদলতে অনেক তথ্য জানা যায় খবর আসে যার ৮৫-৯০% সঠিক হয়। যা হোক ইলিয়াসের ব্যপারে একটা কথা কে নাটক করল কে কি করল বলল বড় কথা নয় কথা হল- রেব, পুলিশ, আনসার, বিজিবি, সেনা, নৌ, বিমান বাহিনী সহ সব গোয়েন্দা সংস্থা সরকারের। সরকার কেন ইলিয়াসকে জীবিত/মৃত খুঁজে বিষয়টির কেন সুরহা করছেন না।

    জবাব
  42. মাহমুদুল হাসান

    আরো কিছু কারণ আপনি হয়ত বলতে চেয়েও বললেন না তবে কারণ যাই হোক এটি সরকারের চরম ব্যার্থতার উদাহরণ। সরকারের প্রতি জনগনের আশা সরকার ভাল কাজ করুক আর ভাল কাজ করলে এই সরকারই সবসময় ক্ষমতায় থাকতে পারবে।

    আপনার সাথে আমিও একমত, এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?

    জবাব
  43. nazorul

    লেখিকা যা লিখলেন তাতে আমার মনে হল তিনি স্বজন হারানোর বেদনা কত তা তিনি জানেন । আমাদেরো একই অনুভূতি । কখনোই এমনটা চাই না যেমনটা ঘটেছে ইলিয়াস আলীর ক্ষেত্রে । আমরা চাই শান্তি । কিন্তু সরকার এবং বিরোধীদলের কারণে আজ এত অশান্তি। আসুন আগামী নির্বাচনে আমরা দু’দলকেই বর্জন করি । সকলে মিলে ছোট ছোট দলকে ভোট দেই।

    জবাব
  44. Arif Rahman

    ইলিয়াস আলীকে নিয়ে বিদিশির লেখাটি পড়া শেষ করতেই, চোখ পড়লো এই অনলাইন পত্রিকার শীর্ষ শিরোনামে-‌ ‘প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান ইলিয়াসের স্ত্রী’। এ যেন,বিদিশার লেখাটি যেখান থেকে শেষ, ঠিক সেখান থেকেই শুরু হলো এই খবর। সোমবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ইলিয়াসের স্ত্রী লুনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে মিনতি করে বলেছেন,’দয়া করে আপনার সঙ্গে দেখা করার জন্য একটু সময় ও সুযোগ দেন। যেকোনো মূল্যে ইলিয়াস আলীকে উদ্ধার করে দিন।’ তিনি আরও বলেছেন,’আমার সন্তানেরা অনিশ্চয়তা ও নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। তাদের স্কুলেও পাঠানো যাচ্ছে না। যে কোনো মূল্যে আমি আমার স্বামীকে ফেরত চাই’। ইলিয়াসের স্ত্রী লুনা আরো বলেছেন, তাঁর পরিবার শুধু অনিশ্চয়তাই নয়, অনিরাপত্তা ও আতঙ্কের মধ্যে বাস করছে। তাঁর এসব কথা আর বিদিশার উদ্বেগের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। একজন নারী বলেই, লুনার মনের ভেতরের অবস্থা তিনি অনুধাবন করতে পেরেছেন। সবচেয়ে আশ্চর্য লাগে যখন গত একুশ বছর ধরে সরকার-প্রধানের পদে থাকা দেশের শীর্ষ দুই নেতা শেখ হাসিনা এবং বেগম খালেদা জিয়ার ভেতরে অনুরণিত হয় না লুনার অন্তরের আর্তনাদ! আরও অবাক হই, যখন দেখি ইলিয়াসের নিখোঁজ নিয়ে রাজনৈতিক ফয়দা আদায়ের প্রতিযোগিতা চলছে। হারিয়ে যাচ্ছে এই ধরনের ঘটনার মানবিক দিকগুলো। আর এভাবেই কি আমরা এগিয়ে যেতে থাকবো? তাতে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ বাংলাদেশ রেখে যেতে পারবো। বিদিশার মতো আমারো অনেক প্রশ্ন,কিন্তু সমাধান নেই। থাকার কথাও নয়, আমরা আম-জনতার তো কোন সমাধান দেয়ার কথা নয়,আমাদের সব প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্যই তো সরকার। যাদের আমরাই তো ভোট দিয়ে নির্বাচন করি। সরকার কি পারছে, সব প্রশ্নের সমাধান দিতে?

    জবাব
  45. বিন্দু : (বির্সগ)

    ধন্যবাদ বিদিশাকে। ক’য়েকদিন আগে বিষয়টি নিয়ে আমার এক বন্ধুর সাথে কথা হচ্ছিল। যদিও আমি রাজনীতি করি না। সে আমার কাছে জানতে চেয়েছিল ইলিয়াস আলী সাহেব জীবিত আছেন কি না? আমি ঠিক বিদিশার মত করেই প্রতিটি পয়েন্ট বললাম এবং এটাও বললাম ঘটনা যারাই ঘটাক উনার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুবই কম। আমি চাই ইলিয়াস আলী ফিরে আসুক। উনমোচিত হোক সব অপরাজনীতির। আবারও ধন্যবাদ বিদিশাকে।

    জবাব
  46. Khandaker Ahashanuzzaman

    আপনার লেখাতে আমি এক মত। এদেশের মানুষদের মধ্য মানবিকতা, হিতাহিত ঙ্জান সব বিলুপ্ত হতে চলেছে। জোর যার মুল্লুক তার এই নীতিতে চলছে সবাই। এটা এখনই প্রতিহত করা দরকার।

    জবাব
  47. নাছিম

    এই যে ‘সরকার বিব্রত’- এ কথাটি তিনি ঠিক বুঝে বলেছেন তো? মানুষ কখন বিব্রত হয়? যখন কিছু অপকর্ম করে ধরা পড়ে যায়, তখনই তো, নাকি?

    গত ৪ দলীয় জোট সরকারের আমলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকারীদের বিচার কার্যের দায়িত্ব পাওয়া হাই কোর্টের একটি বেঞ্ছ বিচার কার্‍্য পরিচালনা করতে “বিব্রত” বোধ করেছিলেন, কেন বিচারপতিদের কি অপকর্ম ধরা পড়েছিল?

    জবাব
  48. Mostahid Azad

    প্রথমে আপনাকে ধন্যবাদ জানাই। সরকারের ব্যাপারে আমি হতাশ। সরকার কেন এর কোন কুলকিনারা করতে পারছে না?

    জবাব
  49. mesbah aajad

    রাজনীতির এই নোংরা খেলা আর কতদিন চলবে ? ইলিয়াছ আলী একজন রাজনীতিবিদ নন শুধু… তিনি একজন বাবা, একজন স্বামী, এদেশের একজন নাগরিক। যে দলই করুক না কেনো বা অপরাধীও যদি হয়ে থাকেন- তাহলে তাকে আইনের আওতায় আনা হোক। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রচলিত আইনে তার শাস্তি হোক। তাই বলে বলা নেই, কওয়া নেই- একজন মানুষ এভাবে গুম হয়ে যাবে ? এদেশে কার জীবনের নিরাপত্তা আছে ? আমরা কিভাবে- কোন ভরসায় ঘর থেকে বেরুবো ? কে আমাদের ঘরে ফেরার নিশ্চয়তা দেবে ? কত অসহায় দেশের প্রতিটি সাধারণ নাগরিক…
    অনেক ধন্যবাদ বিদিশা, এরকম একটি লেখার জন্য।

    জবাব
  50. SOHANA

    জিনিসগুলো সত্যি আমাদের ভাবা উচিৎ । দেশটা কোথায় গিয়ে ঠেকবে কে জানে , কিন্তু দেশের সাথে দেশের জনগনকেও সেখানে গিয়েই ঠেকতে হবে। তাই আমাদের আরও একবার ভাবা উচিৎ দেশকে যেখানে নিয়ে যাচ্ছি সবাই মিলে, সেখানে আমরা দাঁড়াতে পারব তো ?

    জবাব
  51. solaiman

    লেখাটি পড়ে খুব ভাল লেগেছে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল আমি পাঠক হিসাবে যখন লিখাটি পড়লাম মনে হল আমিওতো এভাবেই বলতে চেয়েছি। কিন্তু পারি নি। না পারার কারণ আমাদের লেখার বা বলার কুশলতা নেই। গুন্টার গ্রাস ইসরাইল ও তার মিত্র পশ্চিমাদেশগুলোর সাথে ইরানের পারমানবিক ইসু্ নিয়ে যে টানাপোড়ন চলছে তার পেক্ষাপট নিয়ে যে কবিতা লিখেছেন” যে কথা বলতেই হবে” এই কবিতার মাধ্যমেই তিনি তার প্রতিবাদ করেছেন। আমরাও আশা করবো আমাদের দেশের গুনী মানুষগুলো দেশের রাজনৈতিক এই টানাপোড়ন থেকে দেশকে রক্ষা করার জন্য প্রতিবাদী হবেন।

    জবাব
  52. মাহবুবা

    আপনার গঠনমুলক সমালোচনার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। অনেক বছর পর আপনার সুন্দর ছবি ও মন্তব্য দেখে আমি অভিভুত হলাম।

    জবাব
  53. ফেরদৌস মোল্লা

    ঘটনার বিশ্লেষণ ঠিক আছে, কিন্তু মূল বিষয়ের সমাধানের কোন কিছু পাওয়া গেল না। সার্বিকভাবে সমাধান কি হবে, সেটা পরিষ্কার করে বলতে চেষ্টা করুন। ধন্যবাদ!

    জবাব
  54. দক্ষিন মিত্র মজুমদার

    লেখিকাকে একটা কথা বলতে চাই,
    “আপনার লেখা চালু রাখুন”।
    নতুন কোন লেখার অপেক্ষায় থাকলাম, কারন লেখাটা ভাল লেগেছে।

    জবাব
  55. Riad

    বিদিশা আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। লেখাটি অনেক সুন্দর ও চলমান সংকট এর প্রেক্ষিতে লেখা। সরকারী ও বিরোধী দলের নেতারা যে যাই বলুক না কেন, ইলিয়াস আলী ফিরে আসা অনেকটা অনিশ্চিত বলে মনে হচ্ছে।

    জবাব
  56. Apon

    ইলিয়াস আলী কি আর ফিরে আসতে পারবে? কিভাবে সম্ভব?
    তবে আমরা এই ইলিয়াস আলীর মতো আর কোন রাজনীতি নেতা কর্মী হাড়াতে চাইনা।
    হরতাল চলছে চলতেই থাকবে। যতক্ষন পর্যন্ত না ইলিয়াস আলীর কোন সন্ধান না পাব।

    জবাব
  57. Shahidul Islam

    এমন নেষ্টি রাজনীতি কাম্য নয় যে বিরোধী নেতা-নেত্রীকে গুম/অপহরণ করে/
    মিথ‌‌‌্যা হয়রানী করে দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করবে।
    এটি সরকারেরই ইচ্ছায় নিজের ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে।
    এ ব্যর্থতার বোঝা থেকে আমাদেরকে আল্লাহ রক্ষা করুন।

    জবাব
  58. Russel

    অনেক দিন হল ইলিয়াস আলী হারিয়ে গেছেন…। লেখিকা এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে তার যুক্তিমূলক মনোভাব ব্যাক্ত করেছেন যা আমার ভালো লেগেছে । তার মত আমাদের মনেও অনেক প্রশ্ন জাগে দেশে এখন কী হচ্ছে …এই প্রশ্নের উত্তর কি আমরা পাবো ?

    জবাব
  59. Fahmida

    খুব ভালো লাগলো লেখাটা পড়ে। তবে এটা নিশ্চিত যে জনাব ইলিয়াস আলীর ফিরে আসার সম্ভাবনা এখন পুরোপুরি অনিশ্চিত। কারন যে দল ,ব্যাক্তি,বা গোষ্ঠী এ কাজটা করে থাকুক না কেন ইলিয়াস আলী যদি ফিরে আসে তবে সে পক্ষের জন্য ক্ষতির পাল্লাটা একটু বেশি ভারি হয়ে যাবে। যার ঝুকি কেউ নিতে চাইবে না। বলতে হয় যে কোন একটি নির্দিষ্ট দল ,ব্যাক্তি বা গোষ্ঠীর স্বার্থের জন্য একটা মানুষকে তার সবচেয়ে প্রিয় জিনিসটি উৎসর্গ করতে হলো। সাথে সাথে তছনছ হয়ে গেলো পুরো একটি পরিবার। হয়তো তার পরিবার একটা সময় সব কিছু সামলে উঠতে পারবে কিন্তু সবচেয়ে ভয়াবহ যে বিষয়টি তাহলো স্বামী, বাবা অথবা পুত্রের ফিরে আসার অপেক্ষা বা আশা কখনো শেষ হবে না।

    জবাব
  60. Mostaq

    ”এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?” আপনার এ্ই উক্তিটি প্রত্যেক বিবেকবান মানুষ কে নাড়া দেবে। বাংলাদেশে রাজনীতিতে ইলিয়াস আলীর অবস্থান চঞ্চলা হরিণের মত । অজগর সাপটির লোলুপ দৃষ্টি গিয়ে পড়ে এই হরিণটির উপর । জানিনা এখনও হরিণটি বেঁচে আছে কিনা?

    জবাব
  61. জামান

    ইলিয়াস আলী চোর, বাটপার, সন্ত্রাসী ইত্যাদি ইত্যাদি সব-ই মানলাম কিন্তু তাকে ফেরত না দিলে বা ফেরত না পেলে দেশের যে ক্ষতি হচ্ছে তার জবাব কে দেবে?? সরকার যা বলছে তা শোভন তো নয়ই বরং অবমাননাকর, আর যদি বলেন সরকার কিছু করছে তবে তো বলতেই হয় “কি কচুটা যে করছে তা তো নিজ চোখেই দেখতে পাচ্ছি।”

    জবাব
  62. হাবীব

    বুমেরাং কথাটাই প্রযোজ্য হতে যাচ্ছে প্রতিটি পক্ষের জন্যঃ
    যারা গুম করেছেন তাদের জন্য
    যারা ফায়দা লুটছেন তাদের জন্য, ও সর্বোপরি
    দেশ ও জনগনের জন্য -এই একটি ঘটনাই বুমেরাং হয়ে যাচ্ছে।

    জবাব
  63. ফাহমিদ

    বিদিশাকে ধন্যবাদ তার এই লিখাটার জন্য। লেখকের সং্গে আমি একমত। গত কয়েকদিন আমি আমার বন্ধুমহলে এটাই বুঝানোর চেষ্টা করছিলাম যে যত দিন যাবে, ইলিয়াছের বের হয়ে আসাটা তত কঠিন হবে (তিনি জীবিত খাকলেো)। এর জন্য দায়ী আমাদের রাজনীতিক সংস্কৃতি। সব শেষে বিদিশাকে আরো বেশি বেশি লিখার অনুরোধ জানাচ্ছি কারন উনার লিখা আমি পূর্বে পড়েছি এবং আমার তা ভালো লেগেছে। ধন্যবাদ।

    জবাব
  64. S. M. Sayadat Amin

    আমরা সাধারণ মানুষ। আমরা রাজনীতি বুঝিনা।সরকার ও বিরোধী দল তারা তাদের নিজের লাভ-ক্ষতির জন্য সাধারণ মানুষকে হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার না করার জন্য অনুরোধ করছি।

    জবাব
  65. আনোয়ার পারভেজ

    অনেক সুন্দর লিখেছেন ধন্যবাদ আপনাকে। তবে আমার মনে হয় না ইলিয়াস আলী আর ফিরে আসবে। যুক্তিযুক্ত কথা খুব সহজ ভাবে বলেছেন,”এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?” কি দরকার এমন রাজনীতি, আমরা চাই না এমন রাজনীতি। আমরা সবাই কোন রকম খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকার স্বস্ব দেখি এবং দেখতে চাই। আমরা কি এই ভারসাম্যহীন দু দলের রাজনীতির কারনে পিষ্ট হয়ে শেষ হয়ে যাব ? আনোয়ার পারভেজ

    জবাব
  66. Famappy

    বিদিশা আপনার লেখার সাথে আমি একমত এবং সুন্দর লেখা। কিন্তু আমার প্রশ্ন হচ্ছে যদি বিরোধীদল তাকে লুকিয়ে রেখে থাকে তাহলে তাকে বের করার দায়িত্বও সরকারের, কিন্তু তারা তা করতে পারছেনা কেন?

    জবাব
  67. কন্ঠমুক্ত

    ভবিষ্যতের ইতিহাস(সম্ভাব্য):তৎকালে বাংলাদেশে বিচ্ছিন্নভাবে অনেক রাজনীতিকগণ গুম হতে থাকেন, ফলে মেধাবীদের পরিবর্তে পেশীশক্তি সম্পন্ন সন্ত্রাসীরা রাজনীতিতে বেশী জড়িত হন। তবে ২০১২ সালে সিলেটের ইলিয়াস আলীকে গুপ্ত হত্যার মাধ্যমে বাংলার রাজনীতিতে পাক হানাদারদের বুদ্ধিজীবীদের মতই গুপ্ত হত্যার শুরু। তখন্ই এর পরিণতি নিয়ে শংকিত হন বিজ্ঞজনেরা। কিন্তু তৎকালীন আওয়ামী সরকার ক্রসেডার ১০০ নামক গুপ্ত বাহিনীর মাধ্যমে ক্রমশঃ এ ধারা অব্যহত রাথেন। এ সময় ভারতের গোয়েন্দার প্রত্যক্ষ মদদে এসব গুপ্ত হত্যা হচ্ছে বলে ব্যাপক গুঞ্জন শোনা যায় এবং একই সময় ভারতের বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পক্ষ থেকেও ভারতীয় সেনাবাহিনীকে বাংলাদেশের অর্ধাংশ দথলের আহবান জানানো হয়। যাহোক, দেশের ক্ষমতায় পাল্টাপাল্টিভাবে আসা পরবর্তী সরকারগুলিও প্রতিশোধপরায়ন হয়ে ওঠেন।

    জবাব
  68. Tanvir Hossain

    বিদিশা, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। এর আগে আপনাকে প্রেসিডেন্ট এরশাদ এর সাবেক স্ত্রী হিসেবেই জানতাম। কিন্ত আপনি যে ভাল লেখিকাও সেটা জানতাম না। আপনার সাথে আমিও একমত। বিশেষ করে সরকারের বিব্রত হবার ব্যাপারে। খুবই সুন্দর লেখা। অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    জবাব
  69. ফারুক ওয়াহিদ

    বিদিশাকে আমি শুধু ফ্যাশন ডিজাইনার হিসাবে জানতাম-যদিও আগেও তার লেখা পড়েছি, কিন্তু আজকের লেখাটা পড়ে এখন থেকে তাকে ফ্যাশন ডিজাইনার না বলে লেখক হিসেবে পরিচয় দেওয়াটা উত্তম মনে করি।
    আমার মনে হয় তিনি যদি এভাবে কলাম লেখার চর্চা অব্যাহত রাখেন- তাহলে তার লেখার জন্য পাঠকগণ উন্মুখ হয়ে অপেক্ষায় থাকবেন। পরবর্তী লেখার জন্য অপেক্ষায় থেকে একজন শুভাকাঙ্ক্ষী হিসেবে তার সাফল্য কামনা করছি।
    -মুক্তিযোদ্ধা ফারুক ওয়াহিদ; ম্যানচেস্টার, ক্যানেটিকাট, যুক্তরাষ্ট্র।

    জবাব
  70. rocky

    এই যে ‘সরকার বিব্রত’- এ কথাটি তিনি ঠিক বুঝে বলেছেন তো? মানুষ কখন বিব্রত হয়? যখন কিছু অপকর্ম করে ধরা পড়ে যায়, তখনই তো, নাকি?

    জবাব
  71. সালাহ উদ্দিন আহমেদ

    আমরা চাই ইলিয়াস আলী সুস্থভাবে ফিরে আসুক, পর্দার পিছনে যত অন্ধকার ঘটনাই ঘটুক না কেন।
    আমরা একজন জীবিত ইলিয়াস আলীকে দেখতে চাই। আমাদের দেশের অসুস্থ রাজনীতি বন্ধ হোক।

    জবাব
  72. Ahmed

    বিরোধী দলের ডাকা হরতালের ফলে এখন র‌‌্যাব অথবা পুলিশ ইলিয়াস আলীকে খুঁজে পেলে ও ফেরত দেবে না নিজেরা ফেঁসে যা্ওয়ার ভয়ে।

    জবাব
  73. Rakib hasan sholok

    লেখকের সাথে আমি একমত।আপনি সত্যই তুলে ধরেছেন। আমরা সবাই এই চরম সত্যগুলো অনুধাবন করি কিন্তু সরব হয়ে চেচাঁতে পারি না।আপনাদের সরব ভুমিকা আমাদের নিরবতাকে নাড়া দিয়ে যায়।

    জবাব
  74. আব্দুল জালিল

    আমার মনে হয় বি এন পি নিজেই এই নাটক সাজিয়েছেন। আপনার ছিন্তা ভাবনাও টিক আছে। ধন্যবাদ আপনাকে। তবে আপনাকে নিয়ে আমাদের মনের খত এখন্ও শুকায়নি মেডাম ।

    জবাব
  75. আ: হালিম

    রপ্তানি করা মাল পুনারায় কখনো আমাদানি করা হবেনা সুতরাং হযতোবা তার আর ফিরে আসার সম্ভবানা নাই।

    জবাব
  76. অতন্দ্রিলা

    রাজনীতি না করলে হয়ত বিরোধী দলের সবাই আপনার আমার মত এই বিষয়গুলো বুঝতে পারতেন। জানি না ইলিয়াস আলী এখন কোথায় আছেন, কী অবস্থায় আছেন। মনে প্রাণে চাই তিনি যেখানেই থাকুন না কেন, জীবিত থাকুন। রাজনীতি সম্পর্কে আমার কোন ধারণা নেই, তবুও আমার স্বল্প জ্ঞান দিয়ে বুঝতে পারছি, এখন বিএনপি হরতাল করছে তার ফিরে আসার দাবিতে, তিনি ফিরে এলে হরতাল করবে তার অপহরণকারীদের (যদি তিনি সত্যি অপহৃত হয়ে থাকেন)বিচারের দাবিতে। শ্রদ্ধেয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (আজ পর্যন্ত তিনি কোন অপরাধের তদন্তে সফল হয়েছেন বলে মনে করতে পারি না), যিনি আজ পর্যন্ত(৮০ দিন বোধহয়) আমাদের মত সাধারণ মানুষ সাগর-রুনির হত্যাকারীদের খুঁজে বের করতে পারলেন না, তিনি হয়ত ইলিয়াস আলীর মত সম্মানিত ব্যক্তির অপহরণকারীদের ৪৮ ঘন্টায় খুঁজে বের করে তাঁর কথা সার্থক করবেন। বিরোধী দলীধ নেতা দেশ ও দশের নানা রকম সূক্ষাতিসূক্ষ অসুবিধা ঠিকই বুঝতে পারেন, পারেন না শুধু আমার মত অসংখ্য ছাত্রর ডেইলি ভোর পাঁচটা পর্যন্ত পড়ে পরীক্ষার আগের দিন বিকেলে পরীক্ষা বাতিল শুনতে কী পরিমাণ রাগ-অভিমান-বিতৃষ্ণা-অসহায় লাগে-ঐটা বুঝতে।

    কারো মতাদর্শকে আহত করা আমার উদ্দেশ্য না। একের পর এক পরীক্ষা বাতিল হলে কেমন লাগে, এটাতো বিরোধী দলীয় নেতাকে বলতে পারব না, তাই মনে হল এখানে বললে কেউ না কেউ তো জানবে!

    জবাব
  77. অনলাইনের দাদা (ইপ্পি )

    বিদাশার লেখাটি পরে সত্যি বলতে হবে এমন রাজনীতি কি প্রয়োজন ? এই রাজনীতি আর যাই হোক জনগনের শান্তি আনবে না।

    জবাব
    • salahuddin

      ইলিয়াস আলি হয়ত আর কোনদিন ফিরে আসবেন না । কিন্ত কিছু প্রশ্ন থেকে যাবে তার গায়েব হওয়ার পিছনে । ১.যারা এস ম কিবব্রিয়া সাহেবকে হত্যা, ২. সেন বাবুকে সাজানো মামলা্য, ৩. হারিছ সাহেবকে রাজনীতি থেকে অনেক দূরে, ৪.হয়তবা সাইফুর রহমান সাহেবকে সড়ক দুর্ঘটনা সাজিয়ে পুণ্যভূমি সিলেটকে নেতা বিহীন করার ষড়যন্ত্র করছে কি না তা খতিয়ে দেখা দরকার।

      জবাব
  78. rubayat rahman

    যুক্তিযুক্ত কথা খুব সহজ ভাবে বলেছেন,”এমন রাজনীতি আমরা কেন করবো, যা মানুষের সংসারকে তছনছ করে দেয়, যা একজন নারীর, তার অবুঝ সন্তানদের রাতের ঘুম কেড়ে নেয়?”

    জবাব
  79. মোঃ হাসিবুল ইসলাম

    বিদিশাকে এতদিন চিনতাম এরশাদের কারনে,তার লেখা পড়ে তাকে শুধু নতুন করে তাকে চিনলামই না উনার প্রতি আমার অন্য রকম শ্রদ্ধা বোধের জন্ম হল।অসাধারন লেখার জন্য আপনাকে অসাধারন ধন্যবাদ।অনেক সুন্দর ও সত্য কথা বলেছেন।আপনি নিরপেক্ষ দৃষ্টি কোন থেকে যা বলেছেন তা বোঝার জন্য সরকার এবং বিরোধী দলের উপর আল্লাহ হেদায়েত দান করুক।আমীন।

    জবাব
  80. Faisal Chowdury

    আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, দারুন ভাবে একটা যুক্তি তুলে ধরার জন্য। আসলে একজন দেশের নাগরিক যে হোক না কেন এভাবে গুম হয়ে যাওয়া মোটেও আমাদের কাম্য নয়। সরকার ইচ্ছা করলে উদ্ধার করতে পারে, কিন্তু তারা মনে হয় একটু দুর্বলের মতো এগুচ্ছে। যাক তারপরেও আপনার যুক্তিগুলো একেবারে উপযুক্ত মনে হয়। আবারও ধন্যবাদ আপনাকে।

    জবাব
  81. Jasim Uddin

    আপনাকে ধন্যবাদ জানাই এই লেখার জন্য।
    যাই হোক না কেন সবকিছু বর্তায় সরকারের ঘাড়ে। সবকিছু খোলাসা করতে হবে সরকারকেই। আমরা ইলিয়াস আলী ভাইকে জীবিত তার পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দেবার দাবি জানাই।

    ধন্যবাদ
    জসিম উদ্দিন,
    আল খোবার, দাম্মাম, সৌদি আরব।

    জবাব
  82. Hasan Jabed

    সরকার খুবই বিব্রত! এটি সত্য,

    তবে এ কথা দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই আমরা সবাই তার ফিরে আসা দেথতে চাই।

    জবাব
  83. Hafizur Rahaman

    লেখকের লেখা পড়ে মনে হল ইলিয়াস আলী যেখানে আছেন ভাল আছেন। এপার না হয় ওপার। যদি ইলিয়াস আলী বেরিয়ে আসে তবে কারোর না কারোর সমস্যা হবে। এজন্য উনার ওপারে থাকার সম্ভাবনা বেশি। কারণ জেনে শুনে কেউ নিজের বিপদ ডেকে আনবেনা। বিএনপি, আওয়ামী লীগ অথবা সন্ত্রাসী। যদিও আসে তবে অনেক বছর পর। হয়ত শালিক,শঙ্খ না হয় পাগলের বেশে।

    জবাব
  84. Abdul kahhar ibne Khalil

    বি, এন, পির বিশ্বাস ইলিয়াস আলীকে সরকার লুকিয়ে রেখেছে, তাহলে একজন ইলিয়াস আলীর জন্য সতের কোটি মানুষকে হরতাল দিয়ে কষ্ট না দিয়ে বরং সরকার ও তার তাবেদার বাহিনীকে পাকরাও করুন| প্লিজ, প্লিজ, দয়া করুন|

    জবাব
  85. মোহাম্মাদ মহিউদ্দিন

    লেখিকার ব্যাপারে আমার খুব একটা ভালো ধারণা নেই কিন্তু হারিয়ে যাওয়া ইলিয়াস আলীকে নিয়ে লেখা তাঁর কথাগুলো পড়ে আমি অত্যন্ত আবেগাপ্লুত হয়েছি। আসলে বাংলাদেশে গণতন্ত্রের নামে যা হচ্ছে তা অকল্পনীয়। মনে হচ্ছে এদেশে এখন আর কেউ নিরাপদ নয়। এমন দূর্বিসহ অবস্থায় যেখানে বাঘা বাঘা জ্ঞানী গুণিরা প্রায় নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছেন সেখানে লেখিকা সমস্যার গভীরে দৃষ্টিপাতের চেষ্টা করেছেন; সেজন্য লেখিকাকে ধন্যবাদ। হে আল্লাহ্, আমাদের সকলকে সুমতি দাও এবং হেফাজত কর্।

    জবাব
  86. Dip

    প্রবাসী লেখকদের এক কলাম থেকে জানা গেল,ইলিয়াস আলীকে নাকি মেরে ফেলা হয়েছে। এক্ষেত্রে বিদেশী অপহরণকারী সংস্থার জড়িত থাকার কথাও শোনা যাচ্ছে।

    লেখিকা অনেক গঠনমূলক কথা বলেছেন, সন্দেহ নেই । কিন্তু খুব স্বাভাবিকভাবেই তিনিও আর দশজন সাধারণ মানুষের মত কোন সমাধানে আসতে পারেন নি।
    তবে যাই ঘটুক না কেন, আমি একটা সিদ্ধান্তে আসতে পারি তা হল, আগামী দিনগুলো আমাদের জন্য খুব ভাল কিছু নিয়ে আসছে না…… সে ইলিয়াস আলীকে পাওয়া যাক বা না পাওয়া যাক।

    জবাব
  87. INK

    এটাই ঠিক।এখন সবই জটিল হয়ে গেছে।টার পরেও আশা করি ইলিয়াস সাহেব ফেরে আসুন ভালোভাবে।

    জবাব
  88. Deep

    চমৎকার একটি লেখা । যে রাজনীতি সংসার বিনষ্ট করে দেয় সেই রাজনীতি আমরা চাই না । ধন্যবাদ আপনাকে ।

    জবাব
  89. নিউটন সরকার

    আপনার লিখা অনুধাবন করে নিশ্চিত হতে পারি নি আপনি কী বলতে চেয়েছেন। তবে আপনার বর্ণনায় বেশ ধারাবাহিকতা আছে। তবে এই ঘটনা যেভাবেই ঘটুক তা অনাকাঙ্খিত.

    জবাব
    • আব্দুল্লাহ আল মামুন

      বর্ণনায় ধারাবাহিকতা আছে সেটা বুঝতে পেরেছেন কিন্তু লেখিকা কি বলতে চেয়েছেন তা বুঝতে পারেননি।আপনি আসলে কি বলছেন সেটাই বুঝতে পারছিনা।

      জবাব
      • Engr Ashraf

        ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন , আপনার কি হয়েছে? ভালো কিছুর প্রশংসা করতে শিখুন, নতুবা “পাবনা” আপনার জন্য খোলা আছে….

        লেখিকাকে অভিনন্দন……

  90. Ashik

    আপনি সত্যই তুলে ধরেছেন। আমরা সবাই এই চরম সত্যগুলো অনুধাবন করি কিন্তু সরব হয়ে চেচাঁতে পারি না। আপনাদের সরব ভুমিকা আমাদের নিরবতাকে নাড়া দিয়ে যায়।

    জবাব
  91. জামসেদ সুমন

    ”অপহরণের পর হতে একটি বদ্ধ ঘরে চোখ বাধাঁ অবস্থায় আটক ছিলাম। একদিন রাতে অপহরণকারীরা রাস্তায় ফেলে চলে যায়। তবে আমি বলতে পারব না এরা কারা ছিলো।”– সাংবাদিক সম্মেলনে বলবেন ইলিয়াছ আলী। তবে এ কথা দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই আমরা সবাই তার ফিরে আসা দেথতে চাই, রাজনীতি যাই হোক।

    জবাব
    • সিহাব বিন মোকছেদ

      অনেক দিন হল ইলিয়াস আলী হারিয়ে গেছেন…। লেখিকা এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে তার যুক্তিমূলক মনোভাব ব্যাক্ত করেছেন যা আমার ভালো লেগেছে । তার মত আমাদের মনেও অনেক প্রশ্ন জাগে দেশে এখন কী হচ্ছে …এই প্রশ্নের উত্তর কি আমরা পাবো ?

      জবাব

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল অ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন--

  • ১. স্বনামে বাংলায় প্রতিক্রিয়া লিখুন।
  • ২. ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
  • ৩. প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্তিগত আক্রমণ গৃহীত হবে না।

দরকারি ঘর গুলো চিহ্নিত করা হয়েছে—