Dhaka University Alumni Association - 1

অনেক পত্রিকায় বিষয়টি না এলেও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে উঠে এসেছে খবরটি। তা নিয়ে স্যোশাল মিডিয়াও ছিল সরব। দিন দুয়েক চলেছে নিন্দা আর সমালোচনার ঝড়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় আর্থিক সহযোগিতা নেওয়া হয়েছে জামায়াত-সংশ্লিষ্ট ইসলামী ব্যাংকের কাছ থেকে।‘হিরন্ময় অ্যালামনাই মেলববন্ধন’ নামের ওই অনুষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিল ইসলামী ব্যাংক। সঙ্গে ছিল শাহকো ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড ও ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড।

প্রশ্ন উঠেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো দেশের সর্বোচ্চা বিদ্যাপীঠের সাবেক ছাত্রছাত্রীদের মিলন মেলায় কেন নেওয়া হল যুদ্ধাপরাধের সঙ্গে জড়িত একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের টাকা? কেনই-বা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে থেকে মাস খানেক আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পাকিস্তানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছিল? তাহলে কাদের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিল? এই ব্যাংক ছাড়া কি অন্য কোনো ব্যাংক ছিল না? শুধু টাকার সহযোগিতা নেওয়াই কি এর উদ্দেশ্য ছিল?

এ রকম অনেক প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে নানা মহলে।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধিতায় ও মানবতাবিরোধী অপরাধের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে জামায়াত নেতাদের অংশগ্রহণের কারণে জামায়াতকে ‘ক্রিমিনাল দল’ হিসেবে অভিহিত করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। আর প্রায় শুরু থেকেই ইসলামী ব্যাংক পরিচালনা করে আসছে জামায়াত-সংশ্লিষ্ট বা মতাদর্শের লোকেরাই।সেখানে কাজও করছে ওই আদর্শে বিশ্বাসী জামায়াত-শিবির কর্মীরা।

ইসলামী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন আবু নাসের মোহাম্মদ আবদুজ জাহের। একাত্তরে চট্টগ্রাম এলাকায় আল বদর বাহিনীর নেতা ছিলেন তিনি।শান্তি কমিটির নির্বাহী পরিষদের সদস্য ছাড়াও তিনি ১৯৭১ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ইসলামী ছাত্র সংঘের সভাপতি ও চট্টগ্রাম বদর বাহিনীর জেলাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া মীর কাসেম আলীও ইসলামী ব্যাংকের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। সহজ অর্থে, ইসলামী ব্যাংকই জামায়াত-নিয়ন্ত্রিত সবচেয়ে লাভজনক প্রতিষ্ঠান।

 

দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের সাবেক শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় কেন নেওয়া হল যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের টাকা

 

এছাড়া ২০১৪ সালে জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে এইচএসবিসি যুক্তরাজ্য, সিটি ব্যাংক এনএ, ব্যাংক অব আমেরিকা ইসলামী ব্যাংকের সঙ্গে লেনদেন বন্ধ করে দেয়। যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট কমিটির এক প্রতিবেদনেও ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে মুদ্রা পাচার ও সন্ত্রাসে অর্থায়নের অভিযোগ ওঠে। আমাদের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিরীক্ষা মতে, এই ব্যাংকে এমন কিছু হিসাবধারী পাওয়া গিয়েছিল যাদের নাম ছিল জাতিসংঘের সন্দেহের তালিকায়।

এত কিছুর পরও যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পক্ষে কিংবা জামায়াত নিষিদ্ধের পক্ষে কথা বলছেন, তাদের অনেকেইে আবার নানা অনুষ্ঠানে ওই ব্যাংকের মোটা দাগের তহবিল গ্রহণ করছেন নানা অজুহাতে, র্নিলজ্জভাবে। একে কোন চেতনার ধারক-বাহক বলা যায় আমাদের জানা নেই!

এর আগে বিভিন্ন সময় ইসলামী ব্যাংকের টাকা গ্রহণ প্রসঙ্গে বির্তকিত ও সমালোচিত হয়েছে সরকার। ২০১৪ সালে ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ আয়োজনে ইসলামী ব্যাংক তিন কোটি টাকা দিলেও তীব্র সমালোচনার মুখে সরকার তা ফিরিয়ে দেয়। তারও আগে, ২০১১ সালে বিশ্বকাপ ক্রিকেট আয়োজনে এবং পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যাংকটির কাছে হাজার কোটি টাকা চেয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন বর্তমান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

অনেক গণমাধ্যমই নানা অনুষ্ঠানে স্পন্সর হিসেবে কিংবা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে নিচ্ছে ইসলামী ব্যাংকের টাকা। এ বিবেচনায় টিভি চ্যানেলের হিসাব কষলে তা নেহায়েত কম হবে না। অথচ এরাই দাবি করেন যে, এদের লক্ষ্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে থাকা। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনের সময়ও আমরা দেখেছি একজন জনপ্রিয় উপস্থাপককে, যিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও তাদের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বর্জনে গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনের সঙ্গে প্রকাশ্যে সুর মিলিয়েছিলেন, অথচ কয়েক দিন পরেই গোপনে ইসলামী ব্যাংকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে মোটা দাগের টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিয়েছিলেন নিজের বিবেক ও কন্ঠ।

দুঃখ লাগে তখন যখন এ ধরনের ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের কাজের পক্ষে পক্ষে ইনিয়ে বিনিয়ে, একে অন্যকে দেখিয়ে তা জায়েজ করার চেষ্টা করে। প্রশ্ন হচ্ছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করা আর ঘৃণ্য রাজাকারদের পরিচালিত ব্যাংকের টাকা নেওয়া– এই দুটি কাজ কি একসঙ্গে চলতে পারে? তাহলে যারা এই কাজ করছেন তারা কি এক অর্থে জামায়াতের আদর্শ বাঁচিয়ে রাখছেন না?

বিজ্ঞাপনের প্রতিযোগিতার বাজারে এখন ইসলামী ব্যাংকের বিজ্ঞাপন পাওয়া খুব সহজ। কারণ ব্যাংকটি প্রবলভাবে ইমেজ সংকটে পড়েছে। তারা তাই বিজ্ঞাপন ও নানা সহযোগিতা প্রদান করছে ইমেজ ফেরানোর কৌশল হিসেবে। এ ক্ষেত্রে এরা বেছে নিয়েছে সরকারি অনুষ্ঠান, মিডিয়া আর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাইদের অনুষ্ঠানের মতো জায়গাগুলো। আর আমরাও তাদের কৌশলগুলো যত্ন সহকারে বাস্তবায়ন করছি শুধুমাত্র টাকার লোভে। কিন্তু যতটা প্রবল আকারে এটি চলছে তাতে সন্দেহ থাকছে এটি শুধুই অর্থের কারণে ঘটছে কি না তা নিয়ে।

তাই এ বিষয়ে স্বচ্ছতা আনতে হবে সরকারকেই। কোনো সরকারি অনুষ্ঠানে এ ধরনের ব্যাংকের আর্থিক সহযোগিতা কোনোভাবেই গ্রহণ করা হবে না এ বিষয়ে সর্বপ্রথম মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকারকেই পরিষ্কারভাবে ঘোষণা দিতে হবে, দেওয়াও উচিত।তাহলে হয়তো সরকারের অজুহাত দেখিয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ইসলামী ব্যাংকের টাকা গ্রহণ থেকে অনেকটাই পিছিয়ে আসবে।

দিন দুয়েক আগে কথা হচ্ছিল প্রথম সারির দৈনিকে কর্মরত এক সাংবাদিক বন্ধুর সঙ্গে। তার মতে, ইসলামী ব্যাংক এখন খাজা বাবার দরগা। সেখান থেকে কেউ ফিরে না খালি হাতে। যে যা চায় সে তাই পায়।

স্বাধীন এই দেশে ইসলামি ব্যাংকের দরগায় কে যাবেন, আর কে যাবেন না, সেটি একান্তই তার ব্যক্তিগত আদর্শ আর রুচি-অভিরুচির ব্যাপার। কিন্তু রাজাকারদের ব্যাংকের টাকা খেয়ে একইসঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ঢেঁকুরটি কি না তুললেই নয়!

সালেক খোকনলেখক, গবেষক।

৩২ প্রতিক্রিয়া -- “ইসলামী ব্যাংকের টাকা ও সামষ্টিক নির্লিপ্ততার ব্যবচ্ছেদ”

  1. সাইফ

    লেখক আবালের মত ইসলামী ব্যাংকের বিষাদগার করলেন ইসলামী ব্যাংক তো পায়ে ধরে সাধে নাই আসো টাকা নিয়ে যাও যদি পারেন আপনার মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দিয়ে একটা ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করে ইসলামী ব্যাংককে হারিয়ে দেন তারপর বুঝবো কতটা আপনি দেশপ্রেমিক

    জবাব
  2. আলমগীর হোসেন

    কেউ যদি অনেক ধর্ম-কর্ম এবং সৎ কাজ করার পাশাপাশি জঘন্য কিছু কাজ করে ফেলে (যেমন মা-বোনকে ধর্ষণ বা বাপ-ভাইকে নিরস্ত্র অবস্থায় হত্যা), তাহলে তাকে কে কীভাবে রেহাই দেবে?

    পাকিস্তানিরা এবং তাদের এদেশীয় দালালরা তাই তো করেছে!

    আর ইসলামী ব্যাংক?

    ব্যাংকিংএর নৈমিত্তিক কাজ ভালোভাবে করার পাশাপাশি ইহুদি-মার্কিন চক্রান্তে সারা পৃথিবীর নিরীহ মুসলমানদের মসজিদে ঢুকে হত্যাসহ ইসলামের ভাবমূর্তি বিনষ্টকারী চক্রান্তের প্রধান এজেন্টের কাজটি করছে এই ‘ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড’ নামক প্রতিষ্ঠান!

    কে না জানে যে, সারা বিশ্বে যত মৌলবাদী সন্ত্রাসী বা তাদের অস্ত্র ধরা পড়ছে সব ইহুদি-মার্কিনদের তৈরি!

    জবাব
    • ময়েনুল ইসলাম

      কি লিখেন আপনি জানেন কিনা আমি সংশয় থাকলাম । ইসলামী ব্যাংক আর পাকিস্তান কি এক , না , ইসলামী ব্যাংক এর ৬২% শেয়ার আছে সৌদি আরব দের এবং দুবাই । তাহলে পাকিস্তান সাথে এর সম্পর্ক কি , হ্যাঁ এটা ঠিক যে এদের বেশির ভাগ বাংলাদেশী শেয়ার মালিক যারা , তারা জামাতি রাজনীতির সাথে জড়িত । তাই বলে কি পাকিস্তানের সব দোষ কি ইসলামী ব্যাংকের হবে । যারা দোষ করছে তাদের সরকার শাস্থি দিতেছে । এ ব্যাংক তো পাকিস্তান আমলে হইনি । পাকিস্তানের দোষ পাকিস্তান নিবে , যারা অপরাধ করছে তারা নিবে । বাংলাদেশী ব্যাংক চলবে বাংলাদেশ ব্যাংক এর নিয়ম অনুযায়ী ।

      জবাব
  3. ঝুমা খান

    ইসলামী ব্যাঙ্কের মতো একটি রাজাকারী প্রতিষ্টানকে বাংলাদেশের মাটিতে প্রতিষ্টিত হতে দেয়া মানেই রাজাকারদের প্রতিষ্টিত করা, তা ব্যাঙ্কটি যত ভালোই হউক না কেনো। বুঝলাম লেখক ইসলামী ব্যাঙ্কের টাকা নিতে পারেনি বলে এর বিরুদ্ধে লিখছে……তা জানতে চাই, ইসলামী ব্যাঙ্কের রাজাকারদের টাকা নেয়ার বিপক্ষে কথা বলাতে কিছু লোকের এতো গাত্রদাহ হচ্ছে কেনো? রাজাকারদের দোঁসর বলে?

    জবাব
  4. On Looker

    ইসলামী ব্যাংক একটি সমৃদ্ধ ও সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছে। বন্টনমূলক সুবিচার প্রতিষ্ঠার ল্েয প্রতিষ্ঠিত এ ব্যাংক আর্থিক সেবার মাধ্যমে সকল মানুষের কল্যাণ নিশ্চিত করতে চায়। এ ব্যাংকের সেবা সার্বজনীন। ইসলামী ব্যাংক সারা বিশ্বে ইসলামী ব্যাংকিংয়ের বাস্তব মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে যা দেশের জন্য একটি গর্বের বিষয়। শতভাগ পরিপালন ও পেশাদারিত্বের সাথে ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে। ইসলামী ব্যাংক শরী‘আহর উদ্দেশ্যের আলোকে এসএমই খাতকে অগ্রাধিকার দিয়ে শিল্পায়ন, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি, ব্যবসা-বাণিজ্য, অবকাঠামো, আবাসন, যোগাযোগ, শিা, স্বাস্থ্য, নারীর মতায়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করছে। ইসলামী ব্যাংক ২০১৫ সালে আমানত, বিনিয়োগ, বৈদেশিক বাণিজ্য বৃদ্ধিসহ ব্যবসায়িক সকল প্যারামিটারে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে।

    জবাব
    • আবুল হোসেন

      জনাব On Looker, ইসলামী ব্যাঙ্ক অনেক ভাল কাজ করে বললেন – কিন্তু অর্থ পাচার বা জঙ্গী অর্থায়নের অভিযোগ কিংবা ইহুদী ব্যবসায়ীদের ফান্ড রক্ষা এগুলো তো বললেন না আপনি; আমেরিকা বিরূপ হতে পারে তাই প্রভাবশালীরা এসব নিয়ে ঘাটাঘাটি করছেন না।

      জবাব
    • ঝুমা খান

      যতই ইনিয়ে বিনিয়ে ইসলামী ব্যাঙ্কের সুনাম করে মুখে ফেনা তুলুন, কোন লাভ নেই, ইসলামী ব্যাঙ্ক একটি রাজাকারী প্রতিষ্টান, বাংলাদেশে রাজাকারদের কোন স্থান নেই।

      জবাব
      • ময়েনুল ইসলাম

        আপনি কি জানেন পৃথিবীতে ১০০০ সেরা ব্যাংক এর মধ্যে বাংলাদেশের কোন ব্যাংক আছে ।

    • ইহান

      ছোটবেলায় ‘এক কথায় প্রকাশ’ পড়তাম। ইছহাক ভাইয়ের কথাটা পড়ে হঠাৎ ছোটবেলার পড়ার কথাটা মনে পড়ে গেল।

      ধন্যবাদ।

      জবাব
  5. সাধারণ পাবলিক

    আনন্দ অনুষ্ঠানের জন্য টাকা নিলেই আপনার চুলকানি হয়। সরকার যখন কর নেয়, তখন কোথায় থাকেন?

    আপনাদের মন্ত্রী-এমপিরা তো ঐ করের টাকা থেকেই বেতন নেন, দামি গাড়িতে চড়েন। ইসলামী ব্যাংক যে মানহানির মামলা দেয়নি, সেই কপাল!

    জবাব
  6. ময়েনুল ইসলাম

    আমার খুব জানতে ইচ্ছে করে , যে উপরের লিখাটা লিখল , উনি বেশি বুদ্ধিমান না যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রোগ্রাম আয়োজন করল ঊনরা । লেখক সাহেব কি নিজের নাম প্রচার করার জন্য এগুলো লিখেন নাকি । তা না হলে বার বার ইসলামী ব্যাংক থেকে টাকা নেন , আর কিছু লেখক এগুলো নিয়ে লেখালেখি করেন। যারা টাকা নেন তারা কি লেখক দের চেয়ে কম বুঝেন . ভাই যার মন চায়ে সে টাকা নাও , যার মন চায়ে না সে নিও না । তবুও এক জিনিস নিয়ে আর কথা শুনতে ভাল লাগে না । আমি প্রত্রিকার সম্পাদক কে অনু রোধ করব এ ধরনের লিখা আর দিয়েন না , আমাদের পড়তে ভাল লাগে না ।

    জবাব
  7. নির্ঝরের স্বপ্ন ভংগ

    ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকারের নিয়ম কানুন পরিপালন করেই ব্যাংকিং করে। রাষ্ট্র ২য় সর্বোচ্চ কর পায় এই ব্যাংক থেকেই। কেন্দ্রীয় ব্যাংক এই ব্যাংক নিয়মিত অডিট করে। ব্যাংকের প্রতিটি লেনদেনের হিসাব, আয়ের হিসাব, ব্যয়ের হিসাব, আয় কোথায় যায় – প্রত্যেকটা তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংক নিতে পারে। কই, বাংলাদেশ ব্যাংক তো কোন জংগী অর্থায়ন খুঁজে পায়নি।

    জবাব
  8. অতি সাধারন

    অনুভূতিশীল নৈতিকতার প্রকাশ এবং অর্থ লালসা কখনোই এক মানদণ্ডে দাঁড় করানোর মনস্তত্ত্বিক বোধ অথবা আইনী শাসন ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠিত হয়নি বলে দেন দরবার করেই ঘোষ খাওয়ার মহাজনী কারবারের একাংশ এটি। হয় আইন শাসন ও বিচার বিভাগ একক পরিচয়ে নীতি নির্ধারণ করবে নয়তো আমলা বা বেনামে পরিচয় ধারিরা চাটুকারিতার মাধ্যমে সকল ক্ষমতা জনগণের কথা বলে জনগণকে ভাগীয়ে খাবে।

    জবাব
  9. Shabuz

    Apnara Jodi Muslim Hon tobe to ISlami banker Taka nea sobcheye valo hoyese. Onno bank er taka to Haram. Apni ki haram khaben? Ar Vai Islami Bank bondho kore den ar er shathe shongslishto sokol baktike jele den employee Investors, Depositors.

    জবাব
  10. খায়রুল আলম

    লেখককে ধন্যবাদ- হয়তো সবাই খুশী হবেন না, কিন্তুঃ
    ১-আজকাল অন্যের টাকায় উৎসব করার মত “কু-রেওয়াজ” বেড়ে গেছে।
    ২-রেজিস্ট্রেশনের নামে যোগদানকারীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়, যা নিতান্ত কম নয়।
    ৩-নিজ ক্যাম্পাসে খোলা মাঠে মিলিত হওয়াতে যে অপার আনন্দ , তাতে খুব বেশী টাকা খরচ না করলেও যাদের অনুভূতি আছে, তাঁরা ঠিকই আনন্দ পায়
    ৪-খুব বেশী একটা প্রচার হয় না জেনেও বিজ্ঞাপনের তুলনায় অনেক বেশী টাকা দেন তথাকথিত স্পন্সর প্রতিষ্ঠান (এখানে যেমন ইসলামী ব্যাঙ্ক) এবং স্পন্সরদের মূল উদ্দেশ্য ‘অন্যকিছু’
    ৫-এসব অনুষ্ঠানে যোগ দেন বয়স্করা, যাদের নিয়ন্ত্রিত হাল্কা খাবার শ্রেয় – অথচ চলে ভারী এবং ‘ক্ষতিকর’ খাবার (পোলাউ/বিরিয়ানি)

    জবাব
  11. রিপন সরকার

    ধুর, গণজাগরণ মঞ্চের সেই বিবেকহীন লোকের মত কথা হইল। আর গণজাগরণ মঞ্চ তো সরকার আর কিছু ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের স্পন্সর-এ চলে। ইসলামী ব্যাংকে গ্রাহকসেবার মতো যদি রাষ্টীয় ব্যাংক গুলো চালায় তাহলে গ্রাহকগণ একটু তুলনা করার সুযোগ পাবে। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান শুধু ক্ষতির ফেস দেখায়! যেখানে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান লাভের পাহাড় গড়ে তুলছে। যেমন- রেলওয়ে, টেলিটক, বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স ইত্যাদি ইত্যাদি। সোনালী ব্যাংকের কথা আর কি বলি!

    জবাব
  12. আমার বাংলা পোস্ট!

    বুঝি না দেশের কিছুর মানুষের এই ব্যাংকের উপর চুলকানি কেন? এই ব্যাংকের আজ পর্যন্ত একটি খবর পেলাম না যেটি অন্যান্য ব্যাংকের বেলায় পেয়েছি। খারাপকে খারাপ, ভালোকে ভালো বলতে শিখুন। সত্য ও সুন্দরের সাথে থাকু।

    জবাব
  13. Mortuza Hussain

    Dear reader,

    Assalamu’alaikum. Please compare the Bangladesh Bank compliance statistics of Islami Bank and other banks doing banking in Bangladesh. Also we might want to look at last ten years Financial Report of Islamic bank too.

    Mortuza Hussain

    জবাব
  14. নজমুল ইসলাম ফাহিম

    ঈহুদি মালিকানাধীন, মওদুদীবাদি জামাত-শিবির পরিচালিত এই ব্যাংক অনেক অবৈধ লেনদেন করছে, তবুও এটাকে বাজেয়াপ্ত করা যাচ্ছেনা। তার একটা মাত্র কারণ হচ্ছে, সরকারের মন্ত্রীরা তাদের অবৈধ টাকা জমা রেখেছেন

    জবাব
  15. Bangladeshi

    আহারে অসহায়ের আর্তনাদ! নিজের তো কোন কিছু করার যোগ্যতা নেই শুধু লুটপাট ছাড়া। অন্যেরা নিজের যোগ্যতায় কেন উপরে সে নিয়ে হিংসার শেষ নেই। তো কেউ কি জোর করেছে আপনাদের ইসলামী ব্যাংক থেকে টাকা নিতে? আবুল বারাকাতের বিষেদাগারের বিপরীতে মোস্তফা কামালই তো বলেছিল যে তিনি অন্য সব ব্যাংকের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের জন্য ১০ লাখ টাকাও যোগাড় করতে পারেনি। আর সেখানে ইসলামী ব্যাংক একাই দিয়েছে ১০কোটি। নিজেরা কিছু করে দেখান আগে, পারবেন তা করতে? পেরেছেন কখনো?

    জবাব
  16. Muslim

    Apnake k bollo Islami Bank Image Shonkot a poreche ? Last 10 Year a Bangladesh er Best Bank konta apni ki janen. Kobe kon lok Isalmi Bank er ekti position a duty koreche ta diye apni shompurno bank doshi korte parenna. Mone korun apnar choto vai churi kore dhora poreche tai bole ki apnader poribar chor poribar hoye jabe ? Islami Bank ki dhoroner banking system follow kore ta niye ki apni reserch korechen ? Do you have any Idea about Islami Economy ? Amar mone hoy apnar problem Islami Bank ba er shonge shongshlisto karo shonge na …… apnar problem Islam ebong Islamic system er shonge.

    জবাব
  17. Nawrin Akhter

    What is doing Mercantile Bank, Premier Bank, Modhumoti Bank, Farmers Bank etc? If Islami Bank can sponsor, why that banks don’t doing it? They have no responsibility than earning money? That banks managed by Awami League leaders.

    জবাব
  18. সাধারণ পাবলিক

    যুদ্ধাপরাধের বিচার হচ্ছে । যা আমাদের স্বাধীনতা স্বপক্ষের হৃদয়ের দাবী। এখন ইসলামী ব্যাংকের বিষয়টা কি শুধুমাত্র জামায়েতের জন্য গুলিয়ে ফেলা উচিত ? বাংলাদেশের আইনের সীমার মধ্যেই তো এই ব্যাংকটি তার কার্যকলাপ বৈধভাবে পরিচালনা করে আসছে।
    যারা যুদ্ধাপরাধী, তাদের সব সৃষ্টিই কি সেই একই অপরাধে অপরাধী ? মানে তাদের সন্তান ও প্রতিষ্ঠান সবই কি যুদ্ধাপরাধী?
    যদি আপনার উত্তর হ্যাঁ হয় তো এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্হা কেন নিচ্ছেন না ? আর আপনার উত্তর না হলে লক্ষ লক্ষ মানুষের আস্থাবাজন একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আপনাদের এতো অভিমান কেন? এদের আর্থিক দিক আপনাকে হিংসার আগুনে জালিয়ে পুরিয়ে দিচ্ছে ?
    যুদ্ধাপরাধের বিচার শেষ হলে আমরা আমাদের লজ্জার ইতিহাস থেকে বের হয়ে আসব। তখনও কি ইসলামী ব্যাংক কে আপনি যুদ্ধাপরাধী বলে বিচার চাইবেন?
    কারও মতাদর্শ অনুযায়ী তার বিচার হবে না কি কার্যকলাপ অনুযায়ী ?
    প্রশ্ন জাগে, স্বাধীনতা মানে কি যা খুশি বলে দিলাম !!!

    জবাব
  19. Lalon

    বিশ্বের সেরা ১০০০ ব্যাংকের মধ্যে বাংলাদেশের একমাত্র ব্যাংক ইসলামী ব্যাংক। যা দেশ ও জাতির গৌরব ব্যাক্তির অপরাধ ব্যাকের উপর চাপানো আদিম জানোয়ার হিংসাত্বক ছাড়া অন্য কিছুই নয়। যে ব্যাকের বিরুদ্ধে জংঙ্গী বা নাশকতার অর্থ প্রদানের কোন আলামদ আজও পাওয়া যায়নি তার বিরুদ্ধে লেগে পড়া মিডিয়া সন্ত্রাসের নামান্তর এর পিছনে স্বার্থ জড়িত।

    জবাব

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল অ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না। প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন--

  • ১. স্বনামে বাংলায় প্রতিক্রিয়া লিখুন।
  • ২. ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
  • ৩. প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্তিগত আক্রমণ গৃহীত হবে না।

দরকারি ঘর গুলো চিহ্নিত করা হয়েছে—